পাকিস্তানে বাস থেকে নামিয়ে ১৪ যাত্রীকে হত্যা | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 18.04.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

পাকিস্তান

পাকিস্তানে বাস থেকে নামিয়ে ১৪ যাত্রীকে হত্যা

পাকিস্তানের বালুচিস্তানে বাস থেকে নামিয়ে ১৪ জন যাত্রীকে হত্যা করেছে বন্দুকধারীরা৷ বৃহস্পতিবার দুপুরে করাচি থেকে বালুচিস্তানের গ্বাদারগামী কয়েকটি বাস থেকে নামিয়ে হত্যা করা হয় তাঁদের৷

বিভিন্ন গণমাধ্যমের কার্যালয়ে বিবৃতি পাঠিয়ে এই হামলার দায় স্বীকার করেছে ‘বালুচ রাজি আজোই সানগার' নামে একটি উগ্রপন্থি গোষ্ঠী

বালুচিস্তানের স্বরাষ্ট্র সচিব হায়দার আলি বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছেন, উগ্রপন্থীদের প্রায় ২০ জনের একটি দল বালুচিস্তানের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় মাক্রান কোস্টাল হাইওয়ে এলাকায় কয়েকটি যানবাহন থামিয়ে এ হত্যাকাণ্ড চালায়৷

পাকিস্তানের একজন সরকারি কর্মকর্তার উদ্ধৃতি দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, দুর্বৃত্তরা পরিচয়পত্রের মাধ্যমে প্রথমে গাড়িতে থাকা যাত্রীদেরকে চিহ্নিত করে গাড়ি থেকে নামিয়ে আনে৷ এরপর তাঁদের হত্যা করা হয়৷

করাচি ও গ্বাদরের মধ্যবর্তী ওরমারা এলাকা থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় ওই ১৪ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয় বলে জানিয়েছে বালুচ কর্তৃপক্ষ৷

নিজেদের বার্তায় হামলাকারী গোষ্ঠী দাবি করেছে, নিহতদের সবাই পাকিস্তান নৌবাহিনী ও কোস্টগার্ডের সদস্য৷ পরিচয় জানার পরই তাঁদেরকে হত্যা করা হয়েছে৷

পাকিস্তান নৌবাহিনীর বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এপি জানিয়েছে, নৌবাহিনীর কয়েকজন নাবিক ও কর্মকর্তা নিহতদের মধ্যে রয়েছেন৷ একজন কোস্টগার্ড সদস্যও রয়েছেন তাঁদের মাঝে৷

নিহতদের সবার পরিচয় নিশ্চিত করতে না পারলেও তাঁরা সবাই পাকিস্তানি নাগরিক বলে এএফপিকে নিশ্চিত করেছেন বালুচিস্তানের স্বরাষ্ট্র সচিব আলি৷

এদিকে, হামলার ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে এ বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান৷

স্বধীনতার দাবিতে দীর্ঘদিন ধরেই বিচ্ছিন্নতাবাদী আন্দোলন চালিয়ে আসছে বালুচিস্তানভিত্তিক কয়েকটি উগ্রপন্থী সংগঠন৷ তাদের দাবি, বহিরাগতরা বালুচিস্তানের সম্পদ লুটে নিচ্ছে ও তাদের শোষণ করছে৷

আরআর/এমবি (রয়টার্স, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন