পাকিস্তানে দ্রুত মানবিক ত্রাণ পাঠানোর অনুরোধ বান কি-মুনের | বিশ্ব | DW | 15.08.2010
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

পাকিস্তানে দ্রুত মানবিক ত্রাণ পাঠানোর অনুরোধ বান কি-মুনের

পাকিস্তানের বন্যা উপদ্রুত এলাকা পরিদর্শনকালে এর ভয়াবহতা এবং মানুষের দুর্ভোগ দেখে জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি-মুন আন্তর্জাতিক গোষ্ঠীগুলোর প্রতি দ্রুত মানবিক ত্রাণ পাঠানোর অনুরোধ জানালেন৷

Pakistan, flood, UN, জাতিসংঘ, মহাসচিব, বান কি মুন, প্রধানমন্ত্রী ইউসুফ রাজা গিলানি

জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন এবং প্রধানমন্ত্রী ইউসুফ রাজা গিলানি

দুই সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে চলা বন্যা এবং এর ফলে সরকারি হিসাবে দুই কোটি পানি বন্দিকে দেখতে তিনি পাকিস্তান সফরে গেলেন৷ রাজধানী ইসলামাবাদের কাছে সেনাবাহিনীর একটি বিমান ঘাঁটিতে তাঁর নিজস্ব উড়োজাহাজ থেকে নেমেই তিনি বললেন, পাকিস্তানি জনগণের জন্য দ্রুত ত্রাণ সরবরাহে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে দাবি জানাতেই আমার এই সফর৷ তিনি পাকিস্তানের জনগণকে অভয়বাণী দিয়ে বলেন, ‘আমরা আপনাদের পাশে আছি৷ আপনারা মনোবল হারাবেন না৷ আমরা আপনাদের জন্য প্রয়োজনীয় ত্রাণ সামগ্রী সংগ্রহের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি৷'

এই বন্যায় এ পর্যন্ত ১৬শ মানুষ মারা গেছে৷ মানুষের মধ্যে এখন আশ্রয় এবং খাদ্য সামগ্রীর অভাব৷ জাতিসংঘ সেখানকার বন্যা দুর্গতদের জন্য ইতিমধ্যেই দাতাসংস্থাগুলোর কাছে অর্থ এবং ত্রাণসামগ্রী পাঠানোর আহবান জানিয়ে বলছে, এখন এই সমস্যা মোকাবিলার জন্য প্রয়োজন ৪৬০ মিলিয়ন ডলার৷ এই ভয়াবহ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের ত্রাণ দিয়ে সহায়তা করছে জাতিসংঘ ত্রাণ সংস্থাগুলো৷ তারা বিভিন্নভাবে জরুরি প্রয়োজনীয় খাদ্য, পানীয় এবং ওষুধ সরবরাহ শুরু করেছে৷ জার্মান বার্তা সংস্থা ডিপিএ জানিয়েছে, জাতিসংঘের বিভিন্ন অঙ্গসংস্থা, পাকিস্তান সরকার এবং সাহায্য সংস্থাগুলোর কর্মীরা দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন৷ তারা বিভিন্ন দুর্গত এলাকায় মানুষের কাছে ত্রাণ পৌঁছে দেবার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন৷ তবে এখনও প্রায় ৬০ লাখ দুর্গতের কাছে কোনো ধরনের ত্রাণ পৌঁছায়নি বলে জানাচ্ছে কোন কোন সংবাদ সংস্থা৷

সফরকালে জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন প্রেসিডেন্ট আসিফ আলি জারদারি এবং প্রধানমন্ত্রী ইউসুফ রাজা গিলানির সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন৷ দুই জনের সঙ্গে পৃথক আলোচনায় তিনি বন্যার্ত মানুষের প্রয়োজনে আরও কি কি করা যায়, সে বিষয়ে আলাপ করেন৷ একই সঙ্গে বন্যা কবলিতদের জন্য পাকিস্তান সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের কথাও জানানো হয় তাঁকে৷

এদিকে, বন্যা কবলিত এলাকাগুলোতে পানিবাহিত বিভিন্ন রোগ বালাই দেখা দিচ্ছে বলে খবর৷ এতে সবচেয়ে বেশী শিকার হচ্ছে শিশুরা৷ বিভিন্ন স্থানে বিশুদ্ধ খাবার পানির মারাত্মক সংকট দেখা দিয়েছে৷ ঐ সব অঞ্চলের মানুষের কাছে দ্রুত খাবার পানি পৌছে দেয়ার উপর গুরুত্ব দিয়েছে সাহায্য সংস্থাগুলো৷

প্রতিবেদন: সাগর সরওয়ার

সম্পাদনা: হোসাইন আব্দুল হাই

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন