পাকিস্তানের রক্ষীদের গুলিতে মৃত ভারতীয় মৎস্যজীবী | বিশ্ব | DW | 08.11.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভারত

পাকিস্তানের রক্ষীদের গুলিতে মৃত ভারতীয় মৎস্যজীবী

পাকিস্তানের রক্ষীদের গুলিতে মারা গেলেন এক ভারতীয় মৎস্যজীবী। একজন আহত। গুজরাটের ওখার কাছে এই ঘটনা ঘটেছে।

প্রতীকী চিত্র।

প্রতীকী চিত্র।

গুজরাটের কাছে সমুদ্রে মাছ ধরতে গিয়েছিল নৌকা জলপরী। নৌকায় ছিলেন সাতজন মৎস্যজীবী। ওখার কছে পাকিস্তান মেরিটাইম সিকিউরিটি এজেন্সি(পিএমএসএ)-র রক্ষীরা নৌকা লক্ষ্য করে গুলি চালায়। তাতে এক মৎস্যজীবীর মৃত্যু হয়েছে। একজন আহত। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার।

দেবভূমি দ্বারকার পুলিশ সুপার সুনীল জোশী জানিয়েছেন, পাক রক্ষীদের গুলিতে যে ভারতীয় মৎস্যজীবী মারা গেছেন, তার নাম শ্রীধর রমেশ চামরে। বয়স ৩৩ বছর। বাড়ি মহারাষ্ট্রের পালঘরের ভাদরাই গ্রামে। রোববার তার দেহ ওখা বন্দরে নিয়ে আসা হয়। নভি বন্দর পুলিশ থানায় একটি এফআইআর দায়ের করা হয়েছে।

কী ঘটেছিল

জলপরীর মালিক জয়ন্তীভাই রাঠোর জানিয়েছেন, ‘‘শ্রীধর নৌকার কেবিনে ছিলেন। সেখানেই তার গুলি লাগে। তিনটে বুলেট তার বুকে এসে লাগে। সঙ্গে সঙ্গে তার মৃত্যু হয়। মাছ ধরার নৌকার ক্যাপ্টেন আহত হয়েছেন। পাকিস্তানী রক্ষীরা এলোপাথারি গুলি চালাচ্ছিল৷’’

ওখার কাছে ভারতীয় মৎস্যজীবীদের এর আগেও ধরেছে পাকিস্তান। গত ফেব্রুয়ারিতে পাকিস্তান জানিয়েছিল, ২৭০ জন ভারতীয় মৎস্যজীবী ও ৪৯ জন সাধারণ মানুষ পাকিস্তানের জেলে বন্দি। আর ভারতে কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্যসভায় জানিয়েছে, পাকিস্তানের ৭৭জন মৎস্যজীবী ও ২৬৩ জন সাধারণ মানুষ ভারতের জেলে বন্দি। 

কেন এই ঘটনা?

ভারতীয় সেনাবাহিনীর সাবেক লেফটন্যান্ট জেনারেল উৎপল ভট্টাচার্য মনে করেন, এই ঘটনাকে বিচ্ছিন্নভাবে দেখলে হবে না। ডয়চে ভেলেকে তিনি বলেছেন, ‘‘ভারত এখন সফট ডিপ্লোমেসির রাস্তায় হাঁটছে। আর দুই দিন পরেই ভারতের উদ্যোগে আফগনিস্তান নিয়ে দিল্লিতে এনএসএ পর্যায়ের আলোচনা হবে। তাতে পাকিস্তানকে আমন্ত্রণ করা সত্ত্বেও তারা যোগ দিচ্ছে না। চীন এখনো জানায়নি তারা আসবে কি না। তবে রাশিয়া, ইরান সহ একাধিক দেশ বৈঠকে যোগ দেবে।  সম্প্রতি গ্লাসগোতে প্রধানমন্ত্রী মোদীর সফরও যথেষ্ট সাড়া জাগিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে পাকিস্তান গুলি করে এক মৎস্যজীবীকে মারল।’’

উৎপল ভট্টাচার্যের মতে, ''পাকিস্তান তাদের আগ্রাসী মনোভাব দেখাচ্ছে। ভারতীয় কূটনীতির মোকাবিলায় তারা এই পথ নিয়েছে। ভারতের থেকে তাদের উল্টো রাস্তা নিতে হবে বলেই এই কাজ করেছে।''

পাকিস্তানের প্রতিক্রিয়া

পাকিস্তান জানিয়েছে, ভারতীয় নৌকাটি তাদের জলসীমায় প্রবেশ করেছিল। প্রথমে তারা শূন্যে গুলি চালায়। সতর্ক করার চেষ্টা করে। তাতে কাজ হয়নি। তখন তারা নৌকা লক্ষ্য করে গুলি চালায়।

উৎপল ভট্টচার্যের বক্তব্য, ''কোনো ঘটনা ঘটলে পাকিস্তানের তরফে ঠিক এই বয়ানই দেয়া হয়।''

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সূত্র জানাচ্ছে, ভারত বিষয়টিকে যথেষ্ট গুরুত্ব দিচ্ছে। পাকিস্তানের সঙ্গে কূটনৈতিক স্তরে বিষয়টি তোলা হবে। ভারত এই বিষয়ে কঠোর মনোভাব নিয়েই চলবে।

জিএইচ/এসজি (পিটিআই, এনডিটিভি)