পাকিস্তানের ক্যাচ মিস আর পিটারসনের দাপট | খেলাধুলা | DW | 07.05.2010
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

পাকিস্তানের ক্যাচ মিস আর পিটারসনের দাপট

এক ম্যাচও না জিতে সুপার এইটে উঠেছিল ইংল্যান্ড৷ এবারের টোয়েন্টি টোয়িন্টি বিশ্বকাপে বৃষ্টি আর ডার্ক-ওয়ার্থ লুইস পদ্ধতির কল্যানে সম্ভব হয়েছিল তা৷ কিন্তু দ্বিতীয় ধাপে খেলা দেখাতে শুরু করেছে ইংল্যান্ড৷

default

শহীদ আফ্রিদির সংগ্রহ শূন্য (ফাইল ফটো)

সুপার এইটের প্রথম আসরেই ইংল্যান্ড কুপোকাত করেছে শক্তিশালী পাকিস্তানকে৷ জয়ের নায়ক, কেভিন পিটারসন৷ সাবেক এই টেস্ট অধিনায়কের সংগ্রহ অপরাজিত ৭৩ রান৷ আর এই রানের সুবাদে পাকিস্তানের করা ১৪৭ রান টপকে যেতে তেমন একটা বেগ পেতে হয়নি ইংল্যান্ডকে৷

অবশ্য খেলার শুরুতে নিজ পায়ে নিজের ব্যাটের আঘাতে আহত হন পিটারসন৷ এজন্য কিছুক্ষণ খেলা বন্ধ রেখে চিকিৎসাও করতে হয় তাঁর৷ সে যাই হোক, বর্তমানে নিজেকে ফিট হিসেবেই দাবি করছেন পিটারসন৷

তবে, পাকিস্তানের পরাজয়ের পেছনে বড় কারণ কিন্তু অন্য৷ পাঁচ পাঁচটি ক্যাচ মিস করেছে দলটি৷ প্রথম ওভারেই ক্রেইগ কিসওয়েটারের তুলে দেয়া সহজ ক্যাচ হাত ফঁসকে মিস করেন সাইদ আজমল৷ এরপর সেই ক্রেইগ করেন ২৫ রান৷ তবে শুধু ক্রেইগ নয়, লাম্ব এবং পিটারসনকেও একবার করে জীবন দিয়েছেন আজমল৷ এরপরও কি জয়ের আশা করতে পারে পাকিস্তান?

ওয়েস্ট ইন্ডিজে ক্রিকেটের ছোট বিশ্বকাপের অপর ম্যাচে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা৷ শুরুতে ব্যাট করতে নেমে দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহ ১৭০ রান৷ উদ্বোধনী জুটিতে জ্যাক ক্যালিস ৩১ ও হার্শেল গিবস ১৪ রান করেন৷ তবে শেষ পাঁচ ওভারে কিউই বোলারদের তুলোধুনো করেন অ্যালবি মর্কেল ও এবি ডি ভিলিয়ার্স৷ ১৮ বল খেলে মর্কেলের সংগ্রহ ৪০, যার মধ্যে পাঁচটিই ছয়৷

জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় নিউজিল্যান্ড৷ মাত্র ছয় রান করে আউট হন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান ব্রেন্ডন ম্যাককুলাম৷ এরপর বাকি ব্যাটসম্যানরা ভালো খেললেও জয়ের লক্ষ্য পূরণে ব্যর্থ হন৷ তাই ২০ ওভার শেষে ৭ উইকেটে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ ১৫৭৷ ইস্! আরেকটু চেষ্টা করলে জয়টা কি অসাধ্য ছিল দলটির জন্য?

প্রতিবেদক: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন