পাকিস্তানকে হারিয়ে আফগানিস্তান এশিয়ার সেরা | বিশ্ব | DW | 20.11.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ক্রিকেট

পাকিস্তানকে হারিয়ে আফগানিস্তান এশিয়ার সেরা

ভারতকে হারিয়ে বাংলাদেশও আশা জাগিয়েছিল৷ কিন্তু বৃষ্টির কারণে ভাগ্য সুপ্রসন্ন হলো পাকিস্তানের৷ সেই পাকিস্তানকে নাস্তানাবুদ করেই এশিয়ার সেরা হয়েছে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ আফগানিস্তানের যুবারা৷

বলছি, অনূর্ধ-১৯ এশিয়া কাপ ক্রিকেটের কথা৷ মালয়েশিয়ায় এ আসর শুরুর আগে কোনো ঘোর আফগানও আফগানিস্তানকে ফেবারিট ভেবেছিলেন কিনা সন্দেহ৷ কিন্তু আসর শুরু হতেই আশ্চর্যজনক উত্থানের প্রমাণ রাখতে শুরু করে আফগানিস্তান৷ প্রথম ম্যাচেই পাকিস্তানকে হারায় তারা ৭ উইকেটে৷ সেই পাকিস্তানই ফাইনালে আবার এমন নাকাল যে, ভারতের সাবেক ক্রিকেটার মোহাম্মদ কাইফ টুইটারে আফগানদের অভিনন্দন জানাতে একটুও দেরি করেননি৷

গ্রুপ পর্বে অবশ্য শ্রীলঙ্কার কাছে হেরেছিল আফগানিস্তান৷ তারপরও পাকিস্তান এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতকে উড়িয়ে গ্রুপ ‘বি'-র শীর্ষে থেকেই সেমিফাইনালে ওঠে পাকিস্তানের প্রতিবেশী দেশটি৷

গ্রুপ ‘এ'-র চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বাংলাদেশ৷ কিন্তু নেপালকে ২ উইকেটে, মালয়েশিয়াকে ২৬২ রানে এবং ভারতকে ৮ উইকেটে হারিয়ে সেমিফাইনালে পাকিস্তানের পাশাপাশি বৃষ্টিকেও পায় প্রতিপক্ষের ভূমিকায়৷ আর তাই ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতির সুবিধা পেয়ে পরে ব্যাট করেও ২ রানে ম্যাচ জিতে ফাইনালে ওঠে পাকিস্তান৷

অন্য সেমিফাইনালটিতে আফগানিস্তানের প্রতিপক্ষ ছিল ভারতকে ডিঙ্গিয়ে গ্রুপ ‘এ'-র রানার্সআপ হওয়া নেপাল৷ কিন্তু হিমালয়ের দেশ আফগানিস্তানের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি৷ ৭ উইকেটের জয়ের সঙ্গে তুমুল আত্মবিশ্বাস নিয়েও ফাইনালে ওঠে জঙ্গিবাদ আর বোমা হামলায় মানুষের মৃত্যুর জন্যই সচরাচর খবরের শিরোনামে আসা দেশটি৷

কিন্তু রবিবার মালয়েশিয়ায় ফাইনাল শেষ হওয়ার পর থেকে আফগানিস্তান আবার অন্য কারণে শিরোনামে৷ ২০১৩ সালে সাফ ফুটবল জিতে তাক লাগানো দেশটি এবার জিতলো ক্রিকেটের অনূর্ধ-১৯ এশিয়া কাপ৷

কীভাবে? গল্পটা খুব ছোট এবং একপেশে৷ টস হেরে ব্যাট করার সুযোগ পেয়ে ইকরাম ফজলির অপরাজিত সেঞ্চুরির (১০৭*) সুবাদে ৫০ ওভারে ৭ উইকেটে ২৪৮ রান করে আফগানিস্তান৷ ম্যাচের পরের অংশটা  আফগান বোলার-ফিল্ডারদের৷ মাত্র ১৩ রানে ৫ উইকেট নিলেন অফব্রেক বোলার মুজিব আর লেগব্রেক বোলার কাইস আহমাদ নিলেন ১৮ রানে ৩ উইকেট৷ তাতেই ২২ দশমিক ১ ওভারে মাত্র ৬৩ রানে অলআউট পাকিস্তান৷

শিরোপা, প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ (ইকরাম ফজলি), প্লেয়ার অব দ্য সিরিজ (মুজিব) – মালয়েশিয়া থেকে সবই জিতে নিয়েছে আফগানিস্তান৷ এখন শুধু এ পথ ধরে এগিয়ে যাওয়ার পালা৷

এসিবি/ডিজি (ক্রিকইনফো)

নির্বাচিত প্রতিবেদন