পাঁচশ বছরের বেশি পুরনো মিউনিখের এলএমইউ | জার্মানিতে উচ্চশিক্ষা | DW | 03.12.2012
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানিতে উচ্চশিক্ষা

পাঁচশ বছরের বেশি পুরনো মিউনিখের এলএমইউ

জার্মানির ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান লুডভিশ ম্যাক্সিমিলিয়ান ইউনিভার্সিটি৷ পাঁচ শতাব্দীরও বেশি সময় ধরে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে আসছে এই বিশ্ববিদ্যালয়টি৷ হাজার হাজার শিক্ষার্থীর অন্যতম লক্ষ্যস্থল এই ‘সেন্টার অব এক্সেলেন্স’৷

কেবল জার্মানি নয় গোটা ইউরোপের মধ্যে অন্যতম স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে মিউনিখের লুডভিশ ম্যাক্সিমিলিয়ান ইউনিভার্সিটি বা এলএমইউ৷ বিগত ১৪৭২ সালে বাভারিয়া রাজ্যের ডিউক লুডভিশ এই বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন৷ তখন তিনি হয়তো কল্পনাও করতে পারেন নি যে সাড়ে পাঁচশ বছর পরেও হাজার হাজার জ্ঞান পিপাসুর বিচরণে মুখরিত থাকবে এই বিশ্ববিদ্যালয়৷ এখন পর্যন্ত এই বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট ১৩ জন গবেষক তাদের কাজের জন্য নোবেল পুরষ্কার পেয়েছেন৷

Bei sonnigem Frühlingswetter sitzt Ines Giovannini, Studentin der Literaturwissenschaften, am 16.04.2007 zum Semesterstart vor Ludwig-Maximilians-Universität München. Foto: Felix Hörhager/artsandvision +++(c) dpa - Report+++

দেশি বিদেশি হাজার হাজার শিক্ষার্থীর অন্যতম লক্ষ্যস্থল এই ‘সেন্টার অব এক্সেলেন্স’

এই বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছে মোট ১৮টি ফ্যাকাল্টি যার অধীনে বিভিন্ন বিভাগ শিক্ষাদান কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে৷ প্রায় দেড়শ বিষয়ে পড়াশোনার সুযোগ আছে মিউনিখের এই বিশ্ববিদ্যালয়টিতে৷ প্রায় সাতশ অধ্যাপক ও সাড়ে তিন হাজারের বেশি জনবল নিয়ে চলছে এলএমইউ৷ এখানে পড়াশোনা করছে ৪৮ হাজার ছাত্রছাত্রী৷ এদের মধ্যে শতকরা ১৪ ভাগ শিক্ষার্থীই জার্মানির বাইরে থেকে আসা৷ বেশিরভাগ জার্মান মাধ্যমে হলেও ইংরেজি মাধ্যমেও বেশ কিছু বিষয়ে পড়ার সুযোগ রয়েছে৷

জার্মানির মধ্যে মিউনিখ হচ্ছে অত্যন্ত ব্যয়বহুল শহর৷ এখানে জীবনযাত্রার খরচও তাই বেশি৷ জার্মানির অনেক রাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়ের চেয়ে লুডভিশ ম্যাক্সিমিলিয়ান ইউনিভার্সিটিতে প্রতি সেমেস্টারের ফি তুলনামূলক বেশি৷ এছাড়া ছাত্রদের নিজের পকেট থেকে যাতায়াতের খরচ দিতে হয়, জানালেন বাংলাদেশি ছাত্র মোহাম্মদ মুনমুন হাসান মোল্লা৷ এই কারণে প্রতি মাসে তাঁকে অতিরিক্ত পঞ্চাশ ইউরো খরচ করতে হয়৷

অডিও শুনুন 04:00
এখন লাইভ
04:00 মিনিট

অনুষ্ঠানটি শুনতে ক্লিক করুন এখানে

বাংলাদেশি ছাত্র হাসান বাংলাদেশে অণুজীববিজ্ঞান নিয়ে পড়াশোনা করেছেন৷ বর্তমানে তিনি এলএমইউতে বায়োলজি নিয়ে মাস্টার্স করছেন৷ তাঁকে জিজ্ঞেস করেছিলাম এই বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়াশোনা তাঁর কাছে কেমন লাগছে৷ জবাবে তিনি বলেন, ‘‘যদি কারো সত্যিকার অর্থে পড়াশোনা এবং গবেষণা করার আগ্রহ থাকে তাহলে আমি বলবো জার্মানি হচ্ছে তার জন্য খুব ভালো জায়গা৷ এখানে গবেষণা করার জন্য সব ধরণের সুযোগ সুবিধা রয়েছে৷ এছাড়া গবেষণা সহকারীরাও অত্যন্ত বন্ধুভাবাপন্ন৷'' জার্মান ভাষাতে অনেক লেকচার দেওয়া হয় যেটা একটু সমস্যা বলে জানান তিনি৷ তবে শিক্ষকরা সেসব লেকচার শেষে সেগুলোর ইংরেজি অনুবাদ ছাত্রদের জন্য ইন্টারনেটে তুলে দেন বলে জানান মোহাম্মদ মুনমুন হাসান মোল্লা৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন