‘পশ্চিমা গোয়েন্দারা সিরিয়ার বিদ্রোহীদের সহায়তা করছে’ | বিশ্ব | DW | 19.08.2012
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

‘পশ্চিমা গোয়েন্দারা সিরিয়ার বিদ্রোহীদের সহায়তা করছে’

ব্রিটিশ এবং জার্মান গোয়েন্দারা গোপনে সিরিয়ার বিদ্রোহীদের সহায়তা করছে৷ বিদ্রোহীরা সেদেশের প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদকে ক্ষমতা থেকে হটাতে সশস্ত্র সংগ্রামের পথ বেছে নিয়েছে৷ বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে এই তথ্য৷

সিরিয়ায় সহিংসতা থামার কোনো লক্ষণ নেই৷ সেদেশে এই সহিংস পরিস্থিতির মাঝেই জাতিসংঘের পর্যবেক্ষকরা তাঁদের কর্মকাণ্ড গুটিয়ে নিচ্ছেন৷ একটি মানবাধিকার পর্যবেক্ষক সংস্থা জানিয়েছে, আলেপ্পোর উত্তরাঞ্চলের রণক্ষেত্রে সরকারি বাহিনীর গোলাবর্ষণে প্রাণ হারিয়েছে কমপক্ষে সাত ব্যক্তি৷ নিহতদের মধ্যে দুটি শিশুও রয়েছে৷

‘সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস' জানিয়েছে, শনিবারের সংঘর্ষে সেদেশে নিহতের সংখ্যা ১৩৭৷ দামেস্ক প্রদেশের আল-তাল শহরে ৪২টি মরদেহ ‘ডাম্প' করা হয়েছে বলেও জানায় সংগঠনটি৷ সিরিয়ায় সহিংসতা বৃদ্ধির চিত্রই ফুটিয়ে তুলছে নিহতের এই সংখ্যা৷

সিরিয়ায় জাতিসংঘের পর্যবেক্ষক মিশনের প্রধান জেনারেল বাবাকার গে মনে করেন, সিরিয়ার কোনো পক্ষই বেসামরিক জানমালের নিরাপত্তার দিকে ভ্রুক্ষেপ করছে না৷ তিনি উভয়পক্ষকে আন্তর্জাতিক আইন মেনে বেসামরিক জানমাল রক্ষায় উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানান৷

Syrien Bürgerkrieg FSA Kämpfer in Aleppo

পশ্চিমা গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, ব্রিটিশ এবং জার্মান গোয়েন্দারা সিরিয়ার সরকারি সেনাদের গতিবিধি সম্পর্কে গোপনে বিদ্রোহীদেরকে তথ্য সরবরাহ করছে

গে বলেন, ‘‘আমি আবারো উভয়পক্ষকে সহিংসতা বন্ধের আহ্বান জানাচ্ছি৷ কেননা এরফলে সেদেশের নিরাপরাধ মানুষের ভোগান্তি বাড়ছে৷ আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইন অনুযায়ী, বেসামরিক নাগরিকদের সুরক্ষায় উভয়পক্ষের বাধ্যবাধকতা রয়েছে৷ কিন্তু এই বাধ্যবাধকতা মানছে না কোনো পক্ষই৷ জাতিসংঘ সিরিয়া ছেড়ে যাবে না৷ সহিংসতা থেকে সংলাপের পথ খুঁজতে আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাবো৷''

এদিকে, সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত জাতিসংঘ এবং আরব লিগের সিরিয়া বিষয়ক বিশেষ দূত লাখদার ব্রাহিমি সেদেশের বিরোধী পক্ষের রোষানলে পড়েছেন৷ আসাদের ক্ষমতা ত্যাগ করা উচিত কিনা - সে বিষয়ে মন্তব্য না করায় বিপাকে পড়েছেন ব্রাহিমি৷

সিরিয়ার এই সহিংস পরিস্থিতির মধ্যে নতুন বোমা ফাটালো জার্মান এবং ব্রিটিশ মিডিয়া৷ পশ্চিমা গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, ব্রিটিশ এবং জার্মান গোয়েন্দারা সিরিয়ার সরকারি সেনাদের গতিবিধি সম্পর্কে গোপনে বিদ্রোহীদেরকে তথ্য সরবরাহ করছে৷ জার্মানির বিদেশ বিষয়ক গোয়েন্দা সংস্থা বিএনডি'র এক কর্মকর্তা ‘বিল্ড আম সনটাগ' পত্রিকাকে বলেছেন, ‘‘আসাদ প্রশাসনের পতনে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখায় আমরা গর্ববোধ করতে পারি৷'' অন্যদিকে ব্রিটেনের ‘সানডে টাইমস' পত্রিকা জানিয়েছে, বিদ্রোহীরা যাতে সরকারি সেনাদের উপর মোক্ষম আঘাত হানতে পারে সেজন্য বিদ্রোহীদেরকে প্রয়োজনীয় তথ্য সরবরাহ করছে ব্রিটিশ গোয়েন্দারা৷

উল্লেখ্য, সিরিয়ায় গত বছরের মার্চ মাস থেকে চলা সরকারবিরোধী আন্দোলনে এখনও পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা ২৩,০০০৷ ‘সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস'এর হিসাব এটি৷ জাতিসংঘ অবশ্য জানিয়েছে যে, সেদেশে নিহতের সংখ্যা ১৭,০০০৷

এআই / ডিজি (রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন