পরীক্ষার হলে ২০ ছাত্রের চুল কেটেছেন অধ্যক্ষ | বিশ্ব | DW | 17.10.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

পরীক্ষার হলে ২০ ছাত্রের চুল কেটেছেন অধ্যক্ষ

ছাত্রদের পরিচ্ছন্নতার শিক্ষা দিতে পরীক্ষার হলে বসে ২০ জন ছাত্রের চুল কেটে দিয়েছেন এক অধ্যক্ষ৷

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ার কুশলা নেছারিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মো. বাকের হোসাইন তার ছাত্রদের চুল কেটে দেন৷

ডয়চে ভেলের কনটেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বৃহস্পতিবার তিনি বলেন, ‘‘আমি দাখিল শ্রেণির সব ছাত্রকে পরীক্ষার আগের দিন চুল কেটে মাদ্রাসায় আসতে বলেছিলাম৷ ছাত্ররা আমার কথার অবাধ্য হওয়ায় ওদের চুল কেটে দিয়েছি৷’’

এই মাদ্রাসার দাখিল শ্রেণির শিক্ষার্থীরা জানান, গত বুধবার তাদের বাংলা পরীক্ষা চলছিল৷ পরীক্ষার প্রথম ঘণ্টা পড়ার পর হঠাৎ করে অধ্যক্ষ কাঁচি নিয়ে এসে ২০ ছাত্রের মাথার চুল কেটে দেন৷

এ ঘটনার পর ক্ষুব্ধ ছাত্ররা পরীক্ষা না দিয়ে বেরিয়ে যান৷ এ সময় তাদের দাখিল পরীক্ষার ফরম পূরণ করতে দেওয়া হবে না বলে হুমকি দেওয়া হলে তারা পরীক্ষার হলে ফেরেন৷

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম মাহফুজুর রহমান বলেন, ‘‘ষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে৷ যদি সত্যতা পাওয়া যায় তা হলে বিধি মোতাবেক অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে৷’’

এসআই/কেএম (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন