পরমাণু অস্ত্র নিয়ে ইরানকে বাইডেনের হুমকি | বিশ্ব | DW | 29.06.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

অ্যামেরিকা

পরমাণু অস্ত্র নিয়ে ইরানকে বাইডেনের হুমকি

ইসরায়েলের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বৈঠকে ইরানকে পরমাণু অস্ত্র নিয়ে কড়া বার্তা দিলেন জো বাইডেন।

ইরানকে কার্যত হুমকি দিলেন জো বাইডেন। জানিয়ে দিলেন, তিনি যতদিন অ্যামেরিকার প্রেসিডেন্টের পদে থাকবেন, ততদিন ইরান পরমাণু অস্ত্র তৈরি করতে পারবে না। ইসরায়েলের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বৈঠকে এ কথা স্পষ্ট করে দেন বাইডেন। পাশাপাশি সোমবার সিরিয়ায় বিমান হামলার সমর্থনেও যুক্তি দিয়েছেন বাইডেন। জানিয়েছেন, তার নির্দেশেই ওই বিমান হামলা হয়েছে।

সোমবার হোয়াইট হাউসে বৈঠকে বসেছিলেন ইসরায়েলের প্রেসিডেন্ট রেউভিন রিভলিন এবং মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ইরান প্রসঙ্গে দীর্ঘ আলোচনা হয় তাদের। ইরান নিয়ে বরাবরই কড়া মনোভাব ইসরায়েলের। সেখানে একাধিক হামলা চালিয়েছে তারা। ইরানের মদতপুষ্ট একাধিক জঙ্গি গোষ্ঠীর উপরেও আক্রমণ চালিয়েছে তারা। দুই রাষ্ট্রপ্রধানের আলোচনায় উঠে আসে পরমাণু চুক্তির বিষয়টি। ২০১৮ সালে যে চুক্তি থেকে বেরিয়ে এসেছিল ট্রাম্প প্রশাসন। এবং তার পর থেকেই একের পর এক হুমকি দিতে শুরু করেছে ইরান। দেশের পরমাণু কেন্দ্রে ইউরেনিয়ামের পরিমাণ বহু গুণ বাড়িয়েছে।

বাইডেন এ দিন বলেছেন, ২০১৫ সালের পরমাণু চুক্তিতে অ্যামেরিকা ফিরতে চায়। তার জন্য আলোচনাও চলছে। কিন্তু ইরান যা করছে, অ্যামেরিকা তা বরদাস্ত করে না। বাইডেন জানিয়েছেন, তিনি যাতদিন ক্ষমতায় থাকবেন, ইরান ততদিন অন্তত পরমাণু অস্ত্র তৈরি করতে পারবে না। অ্যামেরিকা কড়া নজর রেখেছে। প্রয়োজনে কঠিনতম পদক্ষেপ নেবে অ্যামেরিকা।

বৈঠক শেষে ইসরায়েলের প্রেসিডেন্ট সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে। ইরান নিয়ে বাইডেন মনোভাব তিনি সমর্থন করেন। প্রেসিডেন্ট হিসেবে এটাই শেষ অ্যামেরিকা সফর রিভলিনের। আগামী মাসেই ইসরায়েলে নতুন প্রেসিডেন্ট আসতে চলেছেন। ইসরায়েলের নতুন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গেও বৈঠকে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন বাইডেন।

বিমান হামলা সমর্থন

মার্কিন প্রেসিডেন্ট একক ভাবে বিমান হামলার নির্দেশ দিতে পারেন কি না, তা নিয়ে মার্কিন কংগ্রেসে প্রশ্ন উঠেছে। তবে ইসরায়েলের প্রেসিডেন্টকে বাইডেন জানিয়েছেন, এই ক্ষমতা তার আছে। সিরিয়ায়নির্দিষ্ট জঙ্গি ঘাঁটিতে অ্যামেরিকা হামলা চালিয়েছে। তিনটি ঘাঁটি ধ্বংস করা গেছে। যাদের মৃত্যু হয়েছে, তারা জঙ্গি বলেও দাবি করেছেন বাইডেন। ইসরায়েলও মার্কিন বিমান হামলা সমর্থন করেছে। বস্তুত, সিরিয়ায় ইরানের মদতপুষ্ট একাধিক জঙ্গি ঘাঁটিতে ইসরায়েল হামলা চালিয়েছে বলে বাইডেনকে জানিয়েছেন ইসরায়েলের প্রেসিডেন্ট। বাইডেন জানিয়েছেন, ভবিষ্যতে এ ধরনের আরো হামলা হবে।

এসজি/জিএইচ (রয়টার্স, এপি)