‘পদত্যাগ′ করতে অস্বীকার করলেন মুগাবে | বিশ্ব | DW | 20.11.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জিম্বাবোয়ে

‘পদত্যাগ' করতে অস্বীকার করলেন মুগাবে

পদ থেকে সরে দাঁড়াতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন জিম্বাবোয়ের প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবে৷ জাতির উদ্দেশে দেয়া এক ভাষণে দলের পরবর্তী সম্মেলনে সভাপতিত্ব করার ঘোষণাও দেন তিনি৷

এর আগে মুগাবের দল জানু-পিএফ জরুরি বৈঠক করে দলীয় প্রধানের পদ থেকে তাঁকে বহিষ্কার করে৷ এই বৈঠক থেকে পদত্যাগের জন্য মুগাবেকে আজ সোমবার পর্যন্ত সময় বেঁধে দেওয়া হয়৷ এই সময়ের মধ্যে পদত্যাগ না করলে তাঁকে অভিশংসন করা হবে বলে সতর্ক করে দেয় দলটি৷

পার্টি থেকে তাঁকে বহিষ্কারের বিষয়ে কোনো মন্তব্য না করলেও ক্ষমতায় সামরিক হস্তক্ষেপকে তিনি ন্যায়পরায়ণতার প্রতি জিম্বাবোয়ের নিরাপত্তা বাহিনীর উদ্বেগ হিসেবে উল্লেখ করেন৷ অতীতের কিছু ব্যর্থতা অনেকের ক্ষোভের কারণ হয়েছে উল্লেখ করে মুগাবে বলেন, গত সপ্তাহের সামরিক হস্তক্ষেপকে হুমকি হিসেবে দেখছেন না তিনি৷ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তাবেষ্টিত মুগাবে তাঁর টেলিভিশন ঘোষণায় দেশবাসীকে প্রবীণ মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে বিভিন্ন প্রজন্মের মধ্যে দূরত্ব কমানোর আহ্বান জানান৷

এ ঘোষণা চলাকালীন সময়েও রাজধানী হারারের রাস্তায় উপস্থিতি ছিল সেনাবাহিনী৷ হাজার হাজার মানুষও মুগাবের পদত্যাগের দাবিতে রাস্তায় নামেন৷ এই ভাষণে তিনি পদত্যাগের ঘোষণা দেবেন বলে গুঞ্জন ছিল৷

স্বাধীনতা যোদ্ধাদের সংগঠন ওয়ার ভেটারানস অ্যাসোসিয়েশনের নেতা ক্রিস্টফার মুতসভাঙ্গা জানান, মঙ্গলবারের সংসদ অধিবেশনেই মুগাবেকে অভিশংসনের মাধ্যমে ক্ষমতা থেকে সরানো হবে৷ ‘‘হয় জানু-পিএফের কোনো নেতা পার্টির ভিতরে কী হয়েছে তা জানাননি তাঁকে, ফলে তিনি এ মিটিং সম্পর্কে না জেনেই বক্তব্য দিয়েছেন আর নয়ত পার্টি তাঁকে নিয়ে কি বলেছে এ বিষয়ে তিনি অন্ধ বা বধির৷''

অনেকে ক্ষমতা থেকে মুগাবের পতন দেশটির দমন নিপীড়ন ও অর্থনৈতিক সংকটের অবসান হিসেবে মনে করলেও অনেকের মনে এ নিয়ে সংশয় থেকেই গেছে৷ অন্যদিকে, সাউথ আফ্রিকান ডেভেলাপমেন্ট কমিউনিটি ও আফ্রিকান ইউনিয়ন থেকে বহিষ্কার এড়াতে সেনা অভ্যুত্থানের মাধ্যমে মুগাবেকে ক্ষমতাচ্যুত করার প্রসঙ্গটি এড়াতে চাইছে দেশটির সেনাবাহিনী৷

গত মঙ্গলবার স্ত্রী গ্রেসকে ক্ষমতায় বসাতে ভাইস প্রেসিডেন্ট নানগাগবাকে বহিষ্কার করলে মুগাবের বিরুদ্ধে সেনা অভ্যুত্থানের ঘটনা ঘটে৷ ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়াতে রাজি না হওয়ায় গৃহবন্দি করা হয় মুগাবেকে৷

আরএন/ডিজি (রয়টার্স, ডিপিএ, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়