পদত্যাগের চাপে জনসন | বিশ্ব | DW | 25.09.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ব্রিটেন

পদত্যাগের চাপে জনসন

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের পার্লামেন্ট স্থগিতের সিদ্ধান্তকে বেআইনি ঘোষণার পর বুধবার পার্লামেন্টে ফিরতে শুরু করেছেন সংসদ সদস্যরা৷ জনসনের পদত্যাগের দাবিতে নতুন করে সরব হয়ে উঠতে পারেন তারা৷

সুপ্রিম কোর্টের প্রেসিডেন্ট লেডি হেল (ডানে) জনসনের (বামে) সিদ্ধান্ত অবৈধ বলে ঘোষণা দেন

সুপ্রিম কোর্টের প্রেসিডেন্ট লেডি হেল (ডানে) জনসনের (বামে) সিদ্ধান্ত অবৈধ বলে ঘোষণা দেন

৩১ অক্টোবরের মধ্যে ব্রেক্সিট কার্যকরে সংসদ মুলতবি ঘোষণা করেও পার পেলেন না ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন৷ আদালত এই সিদ্ধান্তকে বেআইনি অভিহিত এবং বাতিল করে দেয়ায় উল্টো পদত্যাগের চাপই বাড়বে তাঁর সরকারের উপর৷

তবে পদত্যাগের দাবিকে নাকচ করে দিয়েছেন জনসন৷ বলেছেন, আদালতের রায়ের সাথে তিনি একমত নন৷ উদ্ভুত পরিস্থিতিতে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনের জন্য যুক্তরাষ্ট্র সফর সংক্ষিপ্ত করে আজই তিনি ব্রিটেনে ফিরে এসেছেন৷

নিউইয়র্কে দেয়া এক তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় জনসন তাঁর পরিকল্পনামাফিক সময়ের ভেতর ব্রেক্সিট কার্যকরে এখনও অনড় থাকার কথা জানিয়েছেন৷ বলেছেন, ‘‘৩১ অক্টোবরের মধ্যে ইউরোপ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার জন্য জনগণের যে ইচ্ছা’’ তা বাস্তবায়নে আদালতের এই রায় তাঁকে বাধা দিতে পারবে না৷

এদিকে বিভিন্ন বিরোধী রাজনীতিবিদরা  জনসনের পদত্যাগের দাবি তুললেও লেবার পার্টি প্রধান কর্বিন বলছেন ভিন্ন কথা৷ বুধবার বিবিসি রেডিওকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, জনসনকে নামানোর সময় এটি নয়৷ তার বদলে ৩১ অক্টোবর কোনো চুক্তি ছাড়া ব্রেক্সিট যাতে কার্যকর না হয় সে বিষয়টি নিশ্চিত করতে পার্লামেন্টের উপর জোর দেন তিনি৷

এমন পরিস্থিতিতে ব্রেক্সিট আর জনসনের ভবিষ্যৎ কী হবে তা জানা যাবে আজ থেকে শুরু হওয়া সংসদ অধিবেশনে৷

এফএস/এসিবি (এপি, এফপি, ডিপিএ)

২৪ জুলাইয়ের ছবিঘরটি দেখুন...

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন