পদক খোয়ালেন হ্যামিল্টন, আর্মস্ট্রং এর প্রতারণার অভিযোগ | খেলাধুলা | DW | 21.05.2011
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

পদক খোয়ালেন হ্যামিল্টন, আর্মস্ট্রং এর প্রতারণার অভিযোগ

আবারও মাদক কেলেঙ্কারিতে তোলপাড় সাইক্লিং জগত৷ সাবেক অলিম্পিক চ্যাম্পিয়ন টাইলার হ্যামিল্টন দোষ স্বীকার করে স্বর্ণপদক ফিরিয়ে দিয়েছেন৷ এদিকে সাইক্লিং কিংবদন্তী ল্যান্স আর্মস্ট্রং এর বিরুদ্ধে অভিযোগ আনলো তাঁরই ঘনিষ্ঠ সহযোগী৷

default

ল্যান্স আর্মস্ট্রং

শুরুতে হ্যামিল্টনের কথা বলা যাক৷ গত ২০০৪ সালের এথেন্স অলিম্পিকে স্বর্ণপদক জয়ী এই তারকা অবশেষে তার পদক ফিরিয়ে দিয়েছেন৷ ডোপিং টেস্টে ধরা পড়ে যে অলিম্পিক চলাকালে নিষিদ্ধ মাদক ব্যবহার করেছিলেন টাইলার হ্যামিল্টন৷ এই ঘটনা স্বীকার করার পর অলিম্পিক কমিটি জানায় যে তারা হ্যামিল্টনের পদক বাতিল করবে৷ তার আগেই শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের এন্টি ডোপিং এজেন্সি জানায় যে হ্যামিল্টন ইতিমধ্যে তার স্বর্ণপদক ফিরিয়ে দিয়েছেন৷ বৃহস্পতিবার মার্কিন টেলিভিশনে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি স্বীকার করেছেন, যে অলিম্পিকের সময় তিনি শক্তি বর্ধক ওষুধ নিয়েছিলেন৷

Der US-Radsportler Tyler Hamilton während der Olympiade 2004

টাইলার হ্যামিল্টন

তবে ওই সাক্ষাৎকারে আরও এক বোমা ফাটালেন হ্যামিল্টন৷ নিজের স্বর্ণপদক তো গেছেই, তার ওপর অভিযোগ তুললেন যে সাতবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ল্যান্স আর্মস্ট্রং ও নাকি নিষিদ্ধ মাদক ব্যবহার করতেন এবং এই কুকীর্তির সহযোগী ছিলেন তাঁরা দুজনই৷ অনেকের কাছে মনে হতে পারে যে, পদক খুইয়ে এখন আর্মস্ট্রংকে এক হাত নেওয়ার চেষ্টা করছেন হ্যামিল্টন৷ কিন্তু জর্জ হিনক্যাপির বক্তব্যের পর তাদের সেই সন্দেহ আর থাকবে কিনা সেটা বলা মুশকিল৷ কারণ এই হিনক্যাপিকেই গত বছর আর্মস্ট্রং বলেছিলেন, সে আমার ভাইয়ের মত৷

তো সেই ভাইয়ের মত হিনক্যাপি কী বললেন? তিনিও মার্কিন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছেন, যে আর্মস্ট্রং শক্তি বর্ধক মাদক ব্যবহার করতেন, এমনটিই বলা হয়েছে মার্কিন টিভি সিবিএস এর খবরে৷ লস এঞ্জেলেসে জুরিদের সামনে দেওয়া এক সাক্ষ্যদানে এই তথ্য জানিয়েছেন আমর্স্ট্রং এর ঘনিষ্ঠ জর্জ হিনক্যাপি৷ হ্যামিল্টনও সেই জুরিদের সামনে তার অপরাধ স্বীকার করেছেন৷

প্রতিবেদন: রিয়াজুল ইসলাম

সম্পাদনা: জাহিদুল হক