পতাকা সরানোয় জার্মানির প্রতি তাইওয়ানের অসন্তোষ | বিশ্ব | DW | 14.07.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক

পতাকা সরানোয় জার্মানির প্রতি তাইওয়ানের অসন্তোষ

জার্মান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটের একটি অংশ থেকে সরানো হয়েছে তাইওয়ানের পতাকা৷ এ কারণে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে তাইওয়ান৷

জার্মান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটের একটি অংশে বলা আছে বিভিন্ন রাষ্ট্রের সাথে জার্মানির দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের কথা৷ ওয়েবসাইটের সেই অংশ থেকে গত সপ্তাহে সরিয়ে দেওয়া হয় তাইওয়ানের পতাকার ছবি৷ এরপর সোমবার তাইওয়ান এর প্রতিক্রিয়া জানায়৷

তাইওয়ানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জোয়ান ওউ সাংবাদিকদের বলেন, তারা ‘স্পষ্টভাবে’ তাদের সরকারের অবস্থান তাইওয়ানের রাজধানী তাইপের জার্মান ইন্সটিটিউটকে জানিয়েছেন৷ প্রসঙ্গত, এই জার্মান ইন্সটিটিউট জার্মান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অংশ৷

বিশ্বের অন্যান্য জাতীয় বা অঞ্চলভিত্তিক পতাকা, যেমন চীনের হংকং বা ম্যাকাওয়ের পতাকা এখনো আছে সেই ওয়েবসাইটে৷ শুধু তাইওয়ানের পতাকার জায়গাটা খালি৷ আগে সেখানে থাকতো তাইওয়ানের পতাকার ছবি৷

এ বিষয়ে ওউ বলেন, এমন আচরণ তারা মেনে নেবেন না৷

জার্মানির ‘এক চীন' নীতির প্রভাব?

জার্মান সংবাদসংস্থা ডিপিএতে প্রকাশিত জোয়ান ওউয়ের মন্তব্যের আগে ও পরে অন্যান্য সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয় জার্মান সরকারের ওয়েবসাইট থেকে পতাকা সরানোর খবর ৷ এরপর ১০ জুলাই একটি সংবাদ সম্মেলনে জার্মানির পক্ষে মুখপাত্র রাইনার ব্রেউল জানান, এই পদক্ষেপ আসলে জার্মানির ‘এক চীন’ নীতির প্রকাশ৷ তাঁর এই মন্তব্য প্রকাশিত হয় তাইওয়ানের সরকারচালিত ‘রেডিও তাইওয়ান ইন্টারন্যাশনাল (আরটিআই)’ ও ‘তাইওয়ান নিউজ’ সংবাদমাধ্যমে৷

রেডিও তাইওয়ান ইন্টারন্যাশনালকে ব্রেউল বলেন, ‘‘আমাদের তাইওয়ানের সাথে কোনো কূটনৈতিক সম্পর্ক নেই৷ স্বতন্ত্র রাষ্ট্র হিসাবে আমরা তাইওয়ানকে চিনি না৷ সুতরাং, দ্বিপাক্ষিক কূটনৈতিক সম্পর্ক বোঝানোর ক্ষেত্রে আমরা বিশ্বের বিভিন্ন স্বতন্ত্র রাষ্ট্রের সাথে অন্যান্য অঞ্চলের যে পার্থক্য মেনে চলি, তা নিয়ে অবাক হবার কিছু নেই৷’’

জন সিল্ক/এসএস

বিজ্ঞাপন