নিরাপত্তায় প্রধান ঝুঁকি জলবায়ু পরিবর্তন ও সন্ত্রাসবাদ | বিশ্ব | DW | 11.02.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

নিরাপত্তায় প্রধান ঝুঁকি জলবায়ু পরিবর্তন ও সন্ত্রাসবাদ

জলবায়ু পরিবর্তন, ইসলামিক স্টেট এবং সাইবার হামলা– এই তিনটি বিষয়কে বিশ্ব নিরাপত্তার জন্য হুমকি হিসেবে দেখছে বিশ্বের বেশিরভাগ মানুষ৷ পিউ রিসার্চ সেন্টারের নতুন জরিপে উঠে এসেছে এই তথ্য৷

২৬টি দেশের উপর এই জরিপ চালানো হয়েছে৷ সোমবার জরিপের ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে৷ সেখানে দেখা যাচ্ছে, বেশিরভাগ দেশ জলবায়ু পরিবর্তনকে বৈশ্বিক নিরাপত্তার জন্য সবচেয়ে বড় হুমকি হিসেবে দেখছে, এরপরেই আছে সন্ত্রাসবাদ, বিশেষ করে তথাকথিত জঙ্গি গোষ্ঠী ‘ইসলামিক স্টেট'-এর দৌরাত্ম্যের কথা বলেছে তারা৷ পিউ রিসার্চ সেন্টারের গবেষণায় এসব তথ্য উঠে এসেছে৷ এমনকি চীনের ক্ষমতা, বিশ্ব অর্থনীতি, উত্তর কোরিয়ার পরমাণু কর্মসূচি এসবও আছে ঝুঁকিপূর্ণ তালিকার নীচের দিকে৷ জরিপে অংশ নেয়া বেশিরভাগ মানুষ মনে করেন, যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষমতা এবং এর প্রভাব তাদের দেশের জন্য একটা বড় হুমকি৷

বড় হুমকি

জার্মানি ও ক্যানাডাসহ ১৩টি দেশ নিজেদের দেশের নিরাপত্তার জন্য ‘বৈশ্বিকজলবায়ু পরিবর্তন'কে সবচেয়ে বড় হুমকি হিসেবে দেখছে ফ্রান্স, ইটালিসহ ৮টি দেশ ইসলামিক স্টেটকে তাদের দেশের জন্য সবচেয়ে বড় হুমকি মনে করে৷ আর যুক্তরাষ্ট্র, জাপানসহ চারটি দেশ সাইবার হামলাকে তাদের দেশের নিরাপত্তার জন্য হুমকি মনে করছে৷ রাশিয়ার ক্ষমতা মাত্র একটি দেশের কাছে সবচেয়ে বড় হুমকি মনে হয়েছে, সেটি হলো পোল্যান্ড৷  জার্মানিতে জরিপে অংশ নেয়াঅর্ধেকেরও বেশি মানুষ যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষমতা ও এর প্রভাবকে তাদের দেশের জন্য বড় হুমকি হিসেবে দেখছে৷

ডয়চে ভেলে পিউ রিসার্চ সেন্টারের সহকারী পরিচালক এবং এই গবেষণা প্রতিবেদনের প্রধান লেখক জ্যাকব পোশটার-এর সাথে কথা বলে গবেষণার ফলাফল সম্পর্কে কিছু বিষয় জেনেছে৷ গবেষণার ফলাফলে দেখা গেছে, ২০১৩ সালে ২২টি দেশের মানুষের উপর একই ধরনের জরিপ করা হয়েছিল, সেখানে যুক্তরাষ্ট্রের চেয়ে চীন ও রাশিয়ার ক্ষমতাশীল হয়ে ওঠাকে বেশিরভাগ দেশ হুমকি মনে করেছিল৷ এছাড়া ২০১৩ সালের তুলনায় যুক্তরাষ্ট্রের বেশিরভাগ মানুষ ২০১৮ সালে জলবায়ু পরিবর্তনকে নিরাপত্তার জন্য সবচেয়ে বড় হুমকি মনে করছে৷

মিশায়েল ক্নিগে, লুইস স্যান্ডার্স ফোর/এপিবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন