নিজেদের অধিকার রক্ষায় শিশুরাই গড়েছে সংগঠন | অন্বেষণ | DW | 01.02.2014
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

অন্বেষণ

নিজেদের অধিকার রক্ষায় শিশুরাই গড়েছে সংগঠন

নাইজেরিয়ায় শিশুদের অধিকার রক্ষায় শিশুরাই তৈরি করছে সংগঠন৷ শিশুশ্রম বন্ধ করা না গেলেও অন্তত কাজের ভালো পরিবেশ চায় শিশুরা৷ এ জন্য সংগঠন গড়া হচ্ছে৷ কিন্তু তাতে কাজ কি কিছু হচ্ছে?

গডউইন জেমসের সকালে স্কুলে থাকার কথা৷ কিন্তু স্কুল বাদ দিয়ে কাজে যেতে বাধ্য হয়েছে সে৷ তার বয়স মাত্র ১৪ বছর৷ তা সত্ত্বেও তার অনেক কাজ করতে হয়৷ নাইজেরিয়ার দক্ষিণ পশ্চিমে অবস্থিত বাডাগ্রি-তে বাস করে গডউইন৷ অধিকাংশ সময় সে টিনের চাল তৈরির কাজ করে৷

তার বাবা-মাও কাজ করে৷ কিন্তু গডউইন এবং তার পাঁচ ভাইবোনের খরচ মেটাতে সে আয় যথেষ্ট নয়৷ তাই তাকেও সাহায্য করতে হয়৷ গডউইন জেমস বলেন, ‘‘আমি যদি তাদের সাহায্য করি, তাহলে তারা খুশি মনে আমাকে লেখাপড়ায় সহায়তা করবে৷''

কাজ পাওয়ায় সে খুশি৷ তবে সে মনে করে, বাবা-মা তার কাছ থেকে অনেক বেশি আশা করছে৷ তাই গডউইন এবং অন্যান্য শিশু শ্রমিকরা একটি অ্যাসোসিয়েশন তৈরি করেছে, যা অনেকটা শ্রমিক ইউনিয়নের মতো৷ তিনি বলেন, ‘‘তারা আমার পক্ষে দাঁড়ায় এবং আমার মায়ের কাছে গিয়ে অ্যাসোসিয়েশনের কর্মকাণ্ড সম্পর্কে জানায়৷ আফ্রিকায় শিশুদের অধিকার সম্পর্কেও অভিভাবকদের অবহিত করে তারা৷''

গডউইনদের সংগঠনটি আফ্রিকান মুভমেন্ট অফ ওয়ার্কিং চিলড্রেন অ্যান্ড ইয়ুথ (এএমডাব্লিউসিওয়াই) এর সঙ্গে সম্পৃক্ত৷ তারা সপ্তাহে একদিন সাক্ষাৎ করে৷ তবে তারা শিশুশ্রম বন্ধে প্রচারণা চালাচ্ছে না৷ কারণ এই মুহূর্তে তা বাস্তবসম্মত নয়৷ তাই তারা আপাতত কাজের ভালো পরিবেশ নিশ্চিত করতে চাচ্ছে৷

আকোনাসু গবেডোজিন আগে ইউনিয়নের সদস্য ছিলেন৷ এখন তিনি স্কুল শিক্ষক৷ এবং ইউনিয়নের ব্যবস্থাপনায় সহায়তা করেন৷ অল্পবয়সি শ্রমিকদের স্বার্থরক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন তিনি৷ তিনি বলেন, ‘‘ছোটবেলায় আমার কোনো কিছু বলার সুযোগ ছিল না৷ আমি শুধুমাত্র তাই করতাম, যা আমার বাবা-মা, সমাজ করতে বলতো৷ কেননা তখন শিশুদের কোনো সংগঠন ছিল না৷ শিশুদের অধিকার সম্পর্কে জানানোর কেউ ছিল না৷''

আকোনাসু নাইজেরিয়ার শিশুদের সমস্যা সম্পর্কে জানেন৷ তবে পরিবর্তনের গতি বড় ধীর৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

বিজ্ঞাপন