নিউ জার্সিতে গুলির লড়াই, নিহত ৬ | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 11.12.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্র

নিউ জার্সিতে গুলির লড়াই, নিহত ৬

নিউ জার্সিতে ইহুদি মালিকানাধীন এক সুপার মার্কেটে দুই বন্দুকধারীর সঙ্গে পুলিশের ৪ ঘণ্টা গুলির লড়াই। এখনও পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ৬। যার মধ্যে রয়েছে দুই বন্দুকধারী এবং এক পুলিশ কর্মী।

ফের অ্যামেরিকায় প্রকাশ্য রাস্তায় গুলিযুদ্ধ। মঙ্গলবার নিউ জার্সিতে দুই বন্দুকধারীর সঙ্গে পুলিশের দীর্ঘ গুলির লড়াই হয়। ঘটনাস্থলেই নিহত হন এক পুলিশ সদস্য। নিহত হয়েছেন ৩ জন সাধারণ মানুষ। প্রবল লড়াইয়ের পরে পুলিশের গুলিতে নিহত হয় দুই বন্দুকধারীও।

মার্কিন পুলিশ সূত্রের খবর, নিউ জার্সির জার্সি সিটিতে মঙ্গলবার ঘটনাটি ঘটে। দুই বন্দুকধারী বিপুল পরিমাণ অস্ত্র নিয়ে প্রথমে ঢুকে পড়ে জার্সি সিটির একটি কবরস্থানে। সেখানেই পুলিশের সঙ্গে তাদের প্রথম গুলিযুদ্ধ হয়। লড়াইয়ের সময় গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় এক পুলিশ কর্মীর। সূত্রের খবর, ওই পুলিশের নাম জো সিলস।

প্রত্যক্ষদর্শীদের কথায়, এরপরেই কবরস্থান থেকে একটি ট্রাক নিয়ে সোজা খানিক দূরের একটি ইহুদি সুপার মার্কেটে চলে যায় দুই বন্দুকধারী। পুলিশও তাদের ধাওয়া করে। সুপারমার্কেটে তখন বিপুল ভিড়। তার সুযোগ নিয়ে দুই বন্দুকধারী ঢুকে পড়ে ভিড়ের ভিতর। সেখান থেকেই এলোপাথাড়ি গুলি চালাতে থাকে। বাজার অঞ্চল বলে পুলিশও অতিরিক্ত সতর্ক হয়ে যায়। সেখানে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকবাজদের প্রায় ৪ ঘণ্টা যুদ্ধ হয়। নিহত হন ৩ জন সাধারণ মানুষ। শেষ পর্যন্ত পরাস্ত হয় আততায়ীরাও। পুলিশের গুলিতে ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়।

ঘটনার জেরে বন্ধ করে দেওয়া হয় যান চলাচল এবং আশপাশের স্কুল কলেজ। প্রশ্ন ওঠে কী ছিল বন্দুকধারীর উদ্দেশ্য? প্রাথমিক ভাবে পুলিশ এ বিষয়ে কোনও কথা বলতে না চাইলেও পরে জানানো হয়, ইহুদি মার্কেটই লক্ষ্য ছিল দুষ্কৃতীদের।

এসজি/জিএইচ (ডিডব্লিউ/এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন