নিউ ইয়র্কে ট্রাক চালিয়ে হামলা, আইএস জড়িত? | বিশ্ব | DW | 01.11.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

যুক্তরাষ্ট্র

নিউ ইয়র্কে ট্রাক চালিয়ে হামলা, আইএস জড়িত?

মঙ্গলবার নিউ ইয়র্কে এক ব্যক্তি পথচারী ও সাইকেল-আরোহীদের উপর ট্রাক  চালিয়েছে৷ আইএস সরাসরি এই হামলার সঙ্গে যুক্ত কিনা, সে বিষয়ে তদন্ত চলছে৷

ফ্রান্সের নিস শহরে হামলার যে ধরন শুরু হয়েছিল, তা অনুসরণ করে প্রায় ১৫ মাস ধরে ইউরোপের একাধিক শহরে হামলা চালিয়েছে আততায়ীরা৷ ট্রাক বা বড় আকারের গাড়ি চালিয়ে নিরীহ পথচারীদের ধাক্কা দিয়ে যত বেশি সম্ভব হত্যার অপেক্ষাকৃত ‘সহজ' উপায় বেছে নিয়েছে তারা৷ এবার নিউ ইয়র্ক শহরেও একই কায়দায় ভয়াবহ হামলা চালালো এক আততায়ী৷

মঙ্গলবার স্থানীয় সময় দুপুর তিনটার পর ভাড়া করা পিকআপ ট্রাক নিয়ে হাডসন নদীর তীরে পথচারী ও সাইকেল আরোহীদের পিষে দিলো এক আততায়ী৷ হামলায় আট জন নিহত ও প্রায় ১২ জন আহত হয়েছে৷ নিহতদের মধ্যে ৫ জন আর্জেন্টিনার নাগরিক৷

তবে আরও প্রাণহানির আশঙ্কার আগেই পেটে পুলিশের গুলি লাগায় হামলাকারীর ট্রাকটি এক স্কুল বাসের সঙ্গে ধাক্কা মারে৷ তারপর সে চালকের আসন থেকে নেমে পালাবার চেষ্টা করে৷ কিন্তু পুলিশ তাকে গ্রেফতার করতে সমর্থ হয়৷ ২৯ বছর বয়সি এই হামলাকারী ২০১০ সালে আইনি পথেই উজবেকিস্তান থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এসেছিল বলে জানা গেছে৷ তার নাম সম্ভবত সায়ফুল্লো সাইপভ৷  কিছু সূত্র অনুযায়ী সে তথাকথিত ইসলামিক স্টেট-এর নামে এই হামলা চালিয়েছে বলে এক লিখিত বিবৃতি ট্রাকে রেখে দিয়েছিল৷ তবে তদন্তকারীদের প্রাথমিক ধারণা, সে একাই এই হামলার ষড়যন্ত্র করেছিল৷ এফবিআই, নিউ ইয়র্ক পুলিশসহ বেশ কিছু নিরাপত্তা এজেন্সি তদন্ত শুরু করেছে৷

নাইন-ইলেভেনের ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার পর নিউ ইয়র্ক শহরে কোনো একক হামলায় এত মানুষের প্রাণহানি ঘটেনি৷ নিউ ইয়র্কের মেয়র বিল ডি ব্লাসিও বলেন, এটি অবশ্যই সন্ত্রাসী হামলা – অত্যন্ত কাপুরোষিত এই হামলায় নিরীহ মানুষদের হত্যা করা হয়েছে৷

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বেশ কিছু মুসলিম-প্রধান দেশ থেকে অ্যামেরিকার প্রবেশের ক্ষেত্রে কড়া নিয়ম চালু করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন৷ নিউ ইয়র্কের হামলার পর তিনি ‘এক্সট্রিম ভেটিং' কর্মসূচি আরও কড়া করে তোলার নির্দেশ দিয়েছেন৷

এসবি/এসিবি (রয়টার্স, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়