নারায়নগঞ্জে মসজিদে বিস্ফোরণে নিহত ১৪ | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 05.09.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

নারায়নগঞ্জে মসজিদে বিস্ফোরণে নিহত ১৪

নারায়নগঞ্জের মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১৪ জন মারা গেছেন৷ আহতদের বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে৷

শুক্রবার রাতে নারায়নগঞ্জ শহরের পশ্চিম তল্লা এলাকার বায়তুল সালাহ জামে মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনাটি ঘটে৷ স্থানীয়দের সহযোগিতায় অগ্নিদগ্ধদের অধিকাংশকে ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয় বলে জানিয়েছে ডয়চে ভেলের কন্টেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম৷

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যমগুলোতে বলা হয়েছে, শুক্রবার এশার নামাযের পরপর মসজিদের ছয়টি এসি বিকট শব্দে বিস্ফোরিত হয়৷ এ সময় মুসল্লিরা সুন্নত নামায আদায় করছিলেন৷   

বিস্ফোরেণে অর্ধশতাধিক ব্যক্তি মারাত্মকভাবে দগ্ধ হন৷ স্থানীয়দের সহযোগিতায় আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়৷ বার্ন ইউনিটের ডাক্তাররা জানিয়েছেন, আহত অধিকাংশের অবস্থাই আশঙ্কাজনক৷ 

কী কারণে বিস্ফোরণ ঘটেছে তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি৷ প্রাথমিকভাবে এটিকে গ্যাস পাইপ থেকে সৃষ্ট দুর্ঘটনা বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে ফায়ার সার্ভিস৷ বাহিনীর প্রধান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. সাজ্জাদ হোসাইনকে উদ্ধৃত করে ডয়চে ভেলের কন্টেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জানায় ‘‘মসজিদের ফ্লোরের নিচ দিয়ে একটি গ্যাসের লাইন গেছে৷ সেই লাইন থেকে গ্যাস লিক হয়ে বদ্ধ মসজিদের ভেতরে জমা হয়৷ এসি থাকায় পুরো মসজিদ বন্ধ ছিল৷ লিক হওয়া গ্যাস বের হতে পারেনি৷’’

‘‘সুইচ অন বা অফ করার সময় কোথাও বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট হয়েছে৷ গ্যাস উপরের দিকে থাকায় এসিগুলো বিস্ফোরিত হয় বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে৷’’

এরপরেও ঘটনা খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, "তারা পুরো বিষয়টি তদন্ত করে দেখবেন৷’’

আরআর/এফএস (বিডিনিউজ টোন্টিফোর ডটকম)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন