নাইজেরিয়ায় জঙ্গি হামলায় নিহত ৫০ | বিশ্ব | DW | 24.05.2022

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

নাইজেরিয়া

নাইজেরিয়ায় জঙ্গি হামলায় নিহত ৫০

নাইজেরিয়ার বোর্নো রাজ্যে জঙ্গিরা অন্তত ৫০ জনকে হত্যা করেছে৷ দেশটির ক্যামেরুন সীমান্ত সংলগ্ন এলাকায় রবিবারের এই ঘটনা বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে এক প্রত্যক্ষদর্শী টেলিফোনে জানিয়েছেন৷

নাইজেরিয়ায় সক্রিয় বোকো হারাম (ফাইল ফটো)

নাইজেরিয়ায় সক্রিয় বোকো হারাম (ফাইল ফটো)

সেই ২০০৯ সাল থেকে নাইজেরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চল এবং বোর্নো রাজ্যে উগ্রপন্থি ইসলামিস্ট গোষ্ঠী বোকো হারাম সক্রিয় রয়েছে৷ ফলে সেখান থেকে লাখ লাখ মানুষ পালিয়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছে এবং সাড়ে তিন লাখের মতো মানুষ বিভিন্ন হামলা ও মানবিক সংকটে মারা গেছেন বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ৷

এরই মধ্যে অবশ্য বোকো হারাম বিভক্ত হয়ে গেছে এবং গোষ্ঠীটির ‘‘ইসলামিক স্টেট ওয়েস্ট আফ্রিকা'' প্রশাখা পশ্চিম আফ্রিকায় বিভিন্ন হামলার দায় স্বীকার করেছে৷ 

সর্বশেষ হামলার জন্য স্থানীয়রা বোকো হারামকে দায়ী করেছে৷ দেশটির সেনাবাহিনীর মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ওনিয়েমা নুইচাকু অবশ্য এই বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেননি৷

স্থানীয় কৃষক হারুন টম বলেন, ‘‘নিজেদের কৃষিজমিতে কাজ করা আমাদের নিরীহ নাগরিকদের হত্যার ঘটনায় আমরা সবাই ব্যথিত৷ আমরা রেনে আজ ৫০ জনকে সমাহিত করেছি৷ তাদের অনেকে বর্ষা মৌসুমের আগে ক্ষেত পরিষ্কারে ব্যস্ত ছিল, বাকিরা জ্বালানি কাঠ জোগাড় করছিল৷'' 

এগিড মোহাম্মদ কিছুদিন আগে একটি শরণার্থী শিবির থেকে রেনে ফিরে গিয়েছিলেন৷ রবিবারের হত্যালীলার বর্ণনা দিতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘‘বোকো হারামের অনেক সদস্য হাতে বন্দুক ও চাপাতি নিয়ে মোটর সাইকেলে করে এসে ক্ষেতে কাজ করা মানুষদের ঘিরে ফেলে৷ এরপর তারা একে একে তাদের হত্যা করে৷''

ঘটনার পর থেকে মোহাম্মদের এক চাচাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না৷ তিনি বলেন, ‘‘তাদের দড়ি দিয়ে বেঁধে জবাই করা হয়েছে৷ আমি যখন আপনাদের সঙ্গে কথা বলছি তখনও অনেকে নিখোঁজ রয়েছেন৷''

এআই/এসিবি (রয়টার্স)