নরওয়ে হামলায় অভিযুক্তের পরিচয় প্রকাশ | বিশ্ব | DW | 15.10.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

নরওয়ে

নরওয়ে হামলায় অভিযুক্তের পরিচয় প্রকাশ

নরওয়ে পুলিশ জানিয়েছে, জঙ্গি মনোভাব থেকেই স্থানীয় মানুষের উপর আক্রমণ চালিয়েছিল ওই ব্যক্তি।

বুধবার তির-ধনুক নিয়ে নরওয়ের কঙ্গসবার্গে সাধারণ মানুষের উপর হামলা চালিয়েছিল এক ব্যক্তি। মৃত্যু হয়েছিল পাঁচ জনের। গুরুতর আহত তিন। বৃহস্পতিবার রাতে ওই ব্যক্তির পরিচয় প্রকাশ করে নরওয়ের পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, সারা রাত জেরা করার পর পুলিশের কাছে স্বীকারোক্তি দিয়েছে ওই ব্যক্তি।

সংবাদমাধ্যমকে পুলিশ জানিয়েছে, ওই ব্যক্তির বয়স ৩৭ বছর। ড্যানিশ নাগরিক ওই ব্যক্তি কিছুদিন আগে ইসলাম গ্রহণ করেছিল। চরমপন্থায় বিশ্বাসী ওই ব্যক্তি বেশ কিছুদিন ধরেই হামলার পরিকল্পনা করছিল। তির-ধনুক ছাড়াও তার কাছে আরো বেশ কিছু অস্ত্র ছিল বলে পুলিশ জানিয়েছে। তবে ওই ব্যক্তির সঙ্গে আরো কেউ এই ঘটনায় যুক্ত কি না, তা এখনো স্পষ্ট করেনি পুলিশ।

নরওয়ের দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থিত ছোট্ট শহর কঙ্গসবার্গ। রাজধানী ওসলো থেকে দূরত্ব আশি কিলোমিটার। বুধবার সন্ধ্যায় সেখানেই আক্রমণ চালায় ওই ব্যক্তি। তির-ধনুক নিয়ে শহরের সিটি সেন্টারে হামলা চালায় সে। নির্দিষ্ট ব্যক্তিদের লক্ষ্য করে সে তির ছুঁড়তে থাকে। সন্ধে সাড়ে ছয়টা থেকে সে আক্রমণ চালাতে শুরু করে বলে প্রত্যক্ষদর্শীদের বক্তব্য। ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছায় ২০ মিনিটের মধ্যে। কিন্তু তারপরেও বেশ কিছুক্ষণ ওই ব্যক্তি আক্রমণ চালাতে থাকে। ঘটনায় এক পুলিশকর্মীও আহত হয়েছেন।

ডিডাব্লিউকে এক স্থানীয় সাংবাদিক জানিয়েছেন, ঘটনাস্থল থেকেই ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। কিন্তু কেন সে আক্রমণ চালিয়েছে, প্রাথমিকভাবে পুলিশের কাছে তা স্পষ্ট ছিল না। সারা রাত জেরা করার পর শেষপর্যন্ত ওই ব্যক্তি স্বীকারোক্তি দেয় বলে ওই সাংবাদিক জানিয়েছেন।

ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়ে নরওয়েতে। এর আগে প্রায় ১০ বছর আগে এমন ঘটনা ঘটেছিল সেখানে। সন্ত্রাসী হামলায় ৭৭ জনের মৃত্যু হয়েছিল।

বুধবারের ঘটনাকে ভয়াবহ বলে মন্তব্য করেছেন দেশের প্রেসিডেন্ট এবং প্রধানমন্ত্রী। আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছেন তারা।

এসজি/জিএইচ (রয়টার্স, এএফপি)