নব্য নাৎসি গোষ্ঠী নিষিদ্ধ করলো জার্মানি | বিশ্ব | DW | 23.01.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

নব্য নাৎসি গোষ্ঠী নিষিদ্ধ করলো জার্মানি

জার্মানির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হর্স্ট সেহোফার বৃহস্পতিবার ‘কমব্যাট ১৮' নামে একটি নব্য নাৎসি গোষ্ঠী নিষিদ্ধ করার ঘোষণা দিয়েছেন৷ এই গোষ্ঠীর নেতাদের বাড়িতে বৃহস্পতিবার সকালে অভিযান চালানো হয়েছে৷

প্রায় দুইশ' নিরাপত্তাকর্মী জার্মানির ছয়টি রাজ্যে অভিযানে অংশ নেন৷ এই সময় ফোন, ল্যাপটপ, নাৎসি প্রতীক সম্বলিত পোশাক জব্দ করা হয়৷

এক বিবৃতিতে জার্মানির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সেহোফার বলেছেন, ‘‘আজকের নিষেধাজ্ঞা একটি স্পষ্ট সংকেত দিচ্ছে: উগ্র ডানপন্থি ও ইহুদিবিরোধীদের জার্মান সমাজে কোনো জায়গা নেই৷''

অভিবাসীদের সমর্থনে কথা বলার জন্য পরিচিত জার্মান রাজনীতিক ভাল্টার ল্যুবেককে গতবছর হত্যা করা হয়েছিল৷ সন্দেহভাজন হত্যাকারীর সঙ্গে ‘কমব্যাট ১৮' গোষ্ঠীর যোগাযোগ ছিল বলে ধারণা করা হয়৷

এছাড়া গতবছর হালে শহরের একটি সিনাগগের কাছে দুজনকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছিল৷ তারও বছর দুয়েক আগে আরেকটি নব্য নাৎসি গোষ্ঠী এনএসইউ-র বিরুদ্ধে অভিবাসীদের হত্যার অভিযোগ আনা হয়েছিল৷

জার্মান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘‘এনএসইউর সন্ত্রাসী হামলা, ভাল্টার ল্যুবেক হত্যা এবং হালে শহরের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড, আমাদের মতো মুক্ত সমাজে উগ্র ডানপন্থিরা কতখানি বিপদের হয়ে উঠছে, তা বুঝিয়ে দিয়েছে৷''

১৯৯২ সালে ব্রিটেনে কমব্যাট ১৮ গোষ্ঠী গড়ে ওঠে৷ ১ আর ৮ সংখ্যা দিয়ে ইংরেজি বর্ণমালার এক ও আট নম্বর অক্ষরকে বোঝানো হয়েছে৷ এই দুটি অক্ষর হচ্ছে ‘এ' এবং ‘এইচ'- যা আডল্ফ হিটলারের নামের আদ্যক্ষর৷

কমব্যাট ১৮ গোষ্ঠীর জার্মান শাখায় ২০ জনের মতো সদস্য রয়েছে বলে মনে করা হয়৷ কাসেল শহরের ৪৩ বছর বয়সি স্ট্যানলি ব়্যোসকে এবং ডর্টমুন্ডের ৩৫ বছর বয়সি রবিন শ্মিমান এই গোষ্ঠীর অন্যতম শীর্ষ নেতা বলে জানা গেছে৷ টিউনিশিয়ার এক নাগরিককে গুলি করার দায়ে জেল খেটেছেন শ্মিমান৷

নিষেধাজ্ঞার কারণে কমব্যাট ১৮-র সদস্যরা কোথাও মিলিত হতে পারবে না৷ এছাড়া কোথাও তাদের লোগো ব্যবহারও অবৈধ বলে বিবেচিত হবে৷ ইউরোপের পুলিশ সংস্থা ইউরোপোল বলেছে, কমব্যাট ১৮ ইউরোপের জন্যও হুমকি৷

জেডএইচ/এসিবি (এএফপি, রয়টার্স, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন