নবায়নযোগ্য জ্বালানি দিয়ে চলছে জর্ডানের মসজিদ | বিশ্ব | DW | 04.11.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জর্ডান

নবায়নযোগ্য জ্বালানি দিয়ে চলছে জর্ডানের মসজিদ

জর্ডানে সরকারি উদ্যোগে মসজিদে নবায়নযোগ্য জ্বালানির ব্যবহার শুরু হয়৷ এখন দেশটির প্রায় সব মসজিদের জ্বালানি চাহিদার শতভাগ নবায়নযোগ্য জ্বালানি দিয়ে পূরণ হচ্ছে, বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা৷

দেশটির এক গ্রিন কনসালটেন্সিতে কাজ করা কর্মকর্তা ইয়াজান ইসমাইল থমসন রয়টার্স ফাউন্ডেশনকে জানান, ২০১৪ সালে ধর্ম মন্ত্রণালয় আম্মানের মসজিদগুলোকে সবুজ করার প্রকল্প শুরু করে৷ প্রকল্প বাস্তবায়ন এতটাই সফল হয়েছে যে, অনেক মসজিদ এখন তাদের উৎপাদিত অতিরিক্ত বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে বিক্রিও করছে৷

আম্মানের তা'লা আল-আলি মসজিদের ইমাম বলেন, সৌরশক্তি ব্যবহারের প্রধান কারণ, ধর্মীয় দায়িত্ব পালন করা৷ কারণ ইসলাম ধর্মে প্রাকৃতিক সম্পদ রক্ষার আহ্বান জানানো হয়েছে বলে জানান তিনি৷

তবে সৌরশক্তি ও এলইডি বাল্ব ব্যবহারের কারণে মসজিদ কর্তৃপক্ষ আর্থিকভাবে লাভবান হচ্ছে বলেও স্বীকার করেন তিনি৷

উল্লেখ্য, আম্মান হচ্ছে বিশ্বের ৭০টি শহরের একটি, যারা ২০৫০ সালের মধ্যে ‘কার্বন নিরপেক্ষ' হওয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে৷ এর মানে হচ্ছে, এই শহরগুলো যে পরিমাণ জলবায়ু পরিবর্তনকারী গ্যাস নির্গমন করবে, তার চেয়ে বেশি কার্বন ডাই-অক্সাইড শোষণকারী গাছ লাগাবে কিংবা অন্য কোনো পরিবেশবান্ধব প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে৷

দেশটির পরিবেশমন্ত্রী নায়েফ হামাইদি আল-ফায়েজ থমসন রয়টার্স ফাউন্ডেশনকে বলেন, ‘‘আমরা ২০৩০ সালের মধ্যে গ্রিনহাউস গ্যাস নির্গমন ৪০ শতাংশ কমিয়ে আনার অঙ্গীকার করেছি৷''

২০২২ সালের মধ্যে দেশের মোট জ্বালানি চাহিদার ২০ শতাংশ নবায়নযোগ্য জ্বালানি দিয়ে মেটানোর লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে জর্ডান৷ তবে নির্দিষ্ট সময়ের আগেই লক্ষ্যপূরণ সম্ভব হবে বলে মনে করছেন আল-ফায়েজ৷ সে লক্ষ্যে শুধু মসজিদ নয়, ঘরবাড়ি, স্কুল, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও সরকারি ভবনের ছাদেও সোলার প্যানেল বসানো হচ্ছে বলে জানান তিনি৷

জেডএইচ/ডিজি (থমসন রয়টার্স ফাউন্ডেশন)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন