নতুন গৃহায়ন আইন ভাড়াটিয়াদের সহায়তা করছে | বিশ্ব | DW | 02.02.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

নতুন গৃহায়ন আইন ভাড়াটিয়াদের সহায়তা করছে

অনলাইনে ফ্ল্যাট কিংবা অ্যাপার্টমেন্ট ভাড়া করার জনপ্রিয় ওয়েবসাইট এয়ারবিএনবি৷ তবে এই কোম্পানির কারণে বিশ্বের বিভিন্ন শহরে বাড়ি ভাড়া বেড়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠছে৷

বাড়ির মালিকরা এয়ারবিএনবি-তে নিবন্ধিত হয়ে কারও কাছে ভাড়া দিতে পারেন৷ দীর্ঘস্থায়ী ভিত্তিতে বাসা ভাড়া দেয়ার চেয়ে এই প্রক্রিয়া লাভজনক৷ তাই অনেক বাড়ির মালিক এয়ারবিএনবি-র প্রতি ঝুঁকছেন৷ কিন্তু সমস্যা হচ্ছে, এর ফলে ভাড়া দেয়ার মতো বাসা-বাড়ির সংখ্যা কমে যাচ্ছে৷ ফলে দীর্ঘস্থায়ী ভিত্তিতে বাসা ভাড়া নিতে ইচ্ছুকরা পড়ছেন বিপদে৷

পরিস্থিতি সামলাতে বিশ্বের কয়েকটি শহর কর্তৃপক্ষ আইন করেছে৷ বার্লিনেও ২০১৬ সালে এমন একটি গৃহায়ন আইন করা হয়৷ গতবছর তার সুফল পাওয়া গেছে বলে বার্লিনের স্থানীয় গণমাধ্যম আরবিবিতে প্রকাশিত এক প্রতিবেদন বলছে৷ বার্লিনের ‘সেনেট ডিপার্টমেন্ট ফর আর্বান ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড হাউজিং'-এর বরাত দিয়ে আরবিবি জানাচ্ছে, নতুন আইনের কারণে ভাড়াটিয়াদের জন্য ভাড়া করার মতো অ্যাপার্টমেন্টের সংখ্যা প্রায় আট হাজার বেড়েছে৷ এর মধ্যে অর্ধেকের বেশি অ্যাপার্টমেন্ট এয়ারবিএনবি-র মতো ওয়েবসাইটে নিবন্ধিত ছিল৷

নতুন আইনে বলা হয়, যাঁরা অবৈধভাবে অল্প সময়ের জন্য বাড়ি ভাড়া দেবেন তাঁদের এক লক্ষ ইউরো পর্যন্ত জরিমানা করা হবে৷ আরবিবির প্রতিবেদন বলছে, গতবছর জরিমানার পরিমাণ ছিল ২৬ লক্ষ ইউরোর বেশি৷

সামাজিক গণতন্ত্রী বা এসপিডি দলের নেতৃত্বাধীন বার্লিনের সাবেক সেনেট ঐ আইন প্রনয়ন করেছিল৷ তবে এই আইন সংবিধানসম্মত কিনা, সে ব্যাপারে সিদ্ধান্ত দেবে জার্মানির সর্বোচ্চ আদালত৷ বার্লিনের উচ্চতর প্রশাসনিক আদালত এ সংক্রান্ত মামলাটি সাংবিধানিক আদালতের কাছে পাঠিয়েছে৷ তবে এ বিষয়ে যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের কোনো তারিখ এখনও ঠিক করা হয়নি৷

এদিকে, বাম, সবুজ আর এসপিডি মিলে গঠিত হওয়া সেনেটের নতুন সরকার আরেকটি আইন প্রনয়নের কাজ করছে৷ সেটি কার্যকর হলে বাড়ির মালিকরা বিশেষ অনুমতি ছাড়া পর্যটকদের কাছে বছরে সর্বোচ্চ ৬০ দিন ভাড়া দিতে পারবেন৷

উল্লেখ্য, আমস্টারডাম, প্যারিস, বার্সেলোনা সহ ইউরোপের বিভিন্ন শহরে বাধার মুখে পড়েছে এয়ারবিএনবি৷

মিলান গাগনোন/জেডএইচ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন