নতুন ইউরোপের স্বপ্ন দেখাচ্ছেন মাক্রোঁ | বিশ্ব | DW | 05.03.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ইউরোপ

নতুন ইউরোপের স্বপ্ন দেখাচ্ছেন মাক্রোঁ

ইউরোপীয় পার্লামেন্ট নির্বাচনের আগে ইউরোপের ২৮টি সংবাদপত্রে প্রকাশিত এক লেখনিতে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁ উগ্র জাতীয়তাবাদ সম্পর্কে সতর্ক করে দিয়ে একগুচ্ছ সংস্কারের প্রস্তাব রেখেছেন৷

ব্রেক্সিট ছাড়াও ঘরে-বাইরে অনেক সংকটের মুখে রয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন৷ আগামী মে মাসে ইউরোপীয় পার্লামেন্ট নির্বাচনে তার প্রতিফলন দেখা যেতে পারে৷ বিশেষ করে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে জনমোহিনী ‘পপুলিস্ট' রাজনৈতিক দলগুলি জাতীয়তাবাদ, অভিবাসন, কর্মসংস্থান ইত্যাদি একাধিক বিতর্কিত বিষয় তুলে ধরে মানুষের সমর্থন আদায় করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে৷ তাদের মধ্যে অনেক শক্তি ইইউ প্রতিষ্ঠানগুলির বিরুদ্ধেও সরব৷ এমন চ্যালেঞ্জের মুখে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁ ইউরোপের নাগরিকদের কাছে ভবিষ্যৎ সম্পর্কে তাঁর স্বপ্নের রূপরেখা তুলে ধরলেন৷ ইইউ সদস্য দেশগুলির ২৮টি সংবাদপত্রে তাঁর লেখা সেই প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে৷

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইউরোপীয় নাগরিকদের মনে ইইউ-র প্রতি আরও আস্থা, ভালবাসা ও উৎসাহ জাগিয়ে তুলতে চান৷ সুদূরপ্রসারী সংস্কারের মাধ্যমে তিনি তাঁদের অনেক ক্ষোভ দূর করে উজ্জ্বল ভবিষ্যতের স্বপ্ন দেখিয়েছেন৷ তাঁর মতে, আধুনিক বিশ্বের অনেক ঘটনার ফলে ইউরোপের মানুষ ধাক্কা খাচ্ছেন৷ অথচ ইইউ সে সব থেকে তাঁদের রক্ষা করতে ব্যর্থ হয়েছে৷ এই সংকটের সবচেয়ে বড় দৃষ্টান্ত ব্রেক্সিট৷ মাক্রোঁ মনে করেন, জাতীয়তাবাদীরা মানুষের সেই ন্যায্য ক্ষোভের ফায়দা তুলছে, যদিও তাদের ঝুলিতে কোনো সমাধানসূত্র নেই৷ তাই তাদের মোকাবিলা করতে হবে৷ 

এমানুয়েল মাক্রোঁ মনে করেন, একমাত্র ইউরোপীয় স্তরেই বর্তমান সংকট ও চ্যালেঞ্জগুলির মোকাবিলা করা সম্ভব৷ সঙ্কীর্ণ জাতীয়তাবাদের মাধ্যমে কোনো সমস্যার সমাধান সম্ভব নয়৷ তবে তার জন্য ইইউ-র বর্তমান কাঠামো উপযুক্ত নয়৷ অর্থাৎ যেমনটা চলে আসছে, সবকিছু সে ভাবে রেখে দিয়ে সন্তুষ্ট হয়ে বসে থাকলে চলবে না৷

বর্তমান জগতে গণতন্ত্রের বিপদ সম্পর্কেও সাবধান করে দিয়েছেন মাক্রোঁ৷ বিশেষ করে নির্বাচন প্রক্রিয়ার উপর যেভাবে সাইবার হামলা ও অবৈধ হস্তক্ষেপের ঘটনা ঘটছে, তার মোকাবিলা করতে তিনি গণতন্ত্রের সুরক্ষার জন্য এক ইউরোপীয় প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার প্রস্তাব রেখেছেন৷ তাছাড়া ইউরোপের রাজনৈতিক দলগুলির জন্য বাইরে থেকে অর্থের জোগান নিষিদ্ধ করতে চান তিনি৷ নির্বাচনি প্রচারের সময়ে ভুয়া তথ্য ও খবর ছড়ানোকে শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসেবে গণ্য করতে ফ্রান্স গত বছর যে সব ব্যবস্থা নিয়েছে, ইউরোপীয় স্তরেও তেমন পদক্ষেপ দেখতে চান তিনি৷

অভিবাসন সম্পর্কে ইউরোপের মানুষের ভয়ভীতি দূর করতেও মাক্রোঁ কিছু প্রস্তাব রেখেছেন৷ শেঙেন এলাকার সংস্কার ও ইউরোপের বহির্সীমানার জন্য ইউরোপীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী গড়ে তোলার পাশাপাশি রাজনৈতিক আশ্রয়প্রার্থীদের জন্য এক ইউরোপীয় প্রতিষ্ঠান দেখতে চান তিনি৷ ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট বলেন, সুরক্ষিত সীমানা ছাড়া কোনো সমাজের মধ্যে আত্মপরিচয় বোধ সম্ভব নয়৷

এমানুয়েল মাক্রোঁ ইউরোপীয় স্তরে প্রতিরক্ষার কাঠামো আরও জোরদার করতে চান৷ তাছাড়া ব্যবসা-বাণিজ্য জগতের জন্যও ইউরোপের স্বার্থে তিনি কিছু সংস্কারের প্রস্তাব রেখেছেন৷

এসবি/জেডএইচ (ডিপিএ, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন