1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
Symbolbild Protest gegen Vergewaltigung
ছবি: picture-alliance/Pacific Press/E. McGregor

‘ধর্ষক’কে ছেড়ে দিলেন কাউন্সিলর, গৃহবধূর আত্মহত্যা

সমীর কুমার দে ঢাকা
১২ সেপ্টেম্বর ২০২০

‘ধর্ষক’কে হাতে নাতে আটক করেছিলেন এলাকাবাসী৷ নিয়ে গিয়েছিলেন ওয়ার্ড কাউন্সিলরের কাছে৷ কিন্তু নিজের ভাতিজা হওয়ায় সেই ধর্ষককে ছেড়ে দেন কাউন্সিলর৷ 

https://www.dw.com/bn/%E0%A6%A7%E0%A6%B0%E0%A7%8D%E0%A6%B7%E0%A6%95%E0%A6%95%E0%A7%87-%E0%A6%9B%E0%A7%87%E0%A7%9C%E0%A7%87-%E0%A6%A6%E0%A6%BF%E0%A6%B2%E0%A7%87%E0%A6%A8-%E0%A6%95%E0%A6%BE%E0%A6%89%E0%A6%A8%E0%A7%8D%E0%A6%B8%E0%A6%BF%E0%A6%B2%E0%A6%B0-%E0%A6%97%E0%A7%83%E0%A6%B9%E0%A6%AC%E0%A6%A7%E0%A7%82%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%AE%E0%A6%B9%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%AF%E0%A6%BE/a-54906066

উল্টো বকাঝকা করেন ধর্ষিতা গৃহবধূকেই৷ ক্ষোভে দুঃখে আত্মহত্যা করেন দুই সন্তানের জননী গৃহবধু সখিনা বেগম (৩৫)৷ 

ঘটনাটি রাজশাহীর গোদাগাড়ি উপজেলার কাঁকনহাট পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ড এলাকার৷ এ ঘটনায় কাউন্সিলর লুৎফর রহমান মিশুসহ তিনজন গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷ তবে অভিযুক্ত ‘ধর্ষক’ মফিজুল ইসলাম পলাতক৷

গৃহবধূর স্বামী কামাল হোসেন ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘আমি একটি পোশাক কারখানার কাভার্ড ভ্যানের হেলপার হিসেবে কাজ করি৷ ঘটনার দিন অর্থাৎ গত বুধবার আমি চট্টগ্রাম ছিলাম৷ রাত সাড়ে ৯টার দিকে স্ত্রীর সঙ্গে ফোনে কথাও হয় আমার৷ রাত পৌনে ২টার দিকে খবর পাই এলাকার মফিজুল ইসলাম ঘরে ঢুকে আমার স্ত্রীকে ধর্ষণ করেছে৷ স্থানীয় লোকজন তাকে ধরে কাউন্সিলরের কাছে নিয়ে গেছে৷ আর কাউন্সিলর আমার স্ত্রীকে বকাঝকা করে মফিজুলকে ছেড়ে দিয়েছেন৷ আমার স্ত্রী যদি দোষীও হয় তাহলে কেন আমার পরিবারকে জানালো না কাউন্সিলর ৷ তার কারণেই আমার স্ত্রী আত্মহত্যা করেছে৷’’

‘আমার দুই সন্তান মা-হারা হয়ে গেল’

স্থানীয়রা বলছেন, চাকরির কারণে অধিকাংশ সময় বাড়ির বাইরে থাকেন কামাল হোসেন৷ সাড়ে ১৪ বছর বয়সী মেয়ে আর ৮ বছর বয়সী ছেলেকে নিয়ে বাড়িতে থাকেন সখিনা৷ গত বুধবার রাতে ধর্ষণের ঘটনার পর বৃহস্পতিবার আত্মহত্যা করেন তিনি৷

রাতে মফিজুল যখন সখিনার ঘরে ঢোকেন তখন চোর চোর বলে চিৎকার করেন তিনি৷ তাঁর চিৎকারে এগিয়ে আসেন প্রতিবেশী আকবর আলী ও মেরাজুল ইসলামসহ স্থানীয়রা৷ তারা মজিফুলকে হাতে নাতে আটক করে  কাউন্সিলরের বাসায় নিয়ে যান৷সাথে ছিলেন সখিনাও৷ সেখানেই সখিনাকে বকাঝকা করেন ওয়ার্ড কাউন্সিলর, জানান এলাকাবাসী৷

সখিনার স্বামী কামাল হোসেন বলেন ‘‘ধর্ষক মফিজুল ওয়ার্ড কাউন্সিলর মিশুর আপন চাচাতো ভাইয়ের ছেলে৷ এ কারণে তিনি তাকে ছেড়ে দিয়েছেন৷’’ 

তিনি বলেন ‘‘এখন যদি আমাকে ওরা ৫ কোটি টাকাও দিতে চায় আমি নেব না৷ আমি ১৯ বছর ধরে সংসার করছি৷ আমার দুই সন্তান মা-হারা হয়ে গেল৷ টাকা দিয়ে তো আমি স্ত্রীকে ফিরে পাব না৷’’

‘ধর্ষককে গ্রেফতারের অভিযান অব্যহত থাকবে’

গোদাগাড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খায়রুল ইসলাম ডয়চে ভেলেকে বলেন ‘‘আমরা প্রাথমিক তদন্তে নিশ্চিত হয়েছি, ধর্ষককে ছেড়ে দেওয়ায় ক্ষোভে দুঃখে গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন৷ আমরা ঘটনাটি জানার পরপরই কাউন্সিলরসহ  আকবর আলী ও মেরাজুল ইসলাম নামে আরো দুজনকে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠিয়েছি৷ নিহতের বাবা মুন্তাজ আলী বাদি হয়ে ধর্ষণ ও আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলা করেছেন৷ এই মামলায় ধর্ষকসহ চারজনকে আসামী করা হয়েছে৷ আটক তিনজনকে এই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে দ্রতই রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করা হবে৷ আর ধর্ষককে গ্রেফতারের অভিযান অব্যহত থাকবে৷’’

নারী নেত্রী খুশি কবীর ডয়চে ভেলেকে বলেন ‘‘ঘটনাটি অত্যন্ত দুঃখজনক৷ একজন নারী কখন আত্মহত্যা করে? যখন সে মনে করে, এই পৃথিবীতে তার আর বেঁচে থাকার অধিকার নেই৷ কারও কাছে সে আর বিচার পাবে না৷ এখনও আমাদের সমাজে নারীকে পণ্য মনে করা হয়৷ ফলে নারীরা নিজেদের চরম অনিরাপদ মনে করে৷ আমি এই ঘটনায় কাউন্সিলর ও ধর্ষকসহ সংশ্লিষ্টদের কঠোর শাস্তির দাবি জানাই৷’’

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

Bangladesch | Dhaka Karwan Market

মূল্যস্ফীতির আরো চাপে সাধারণ মানুষ

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

প্রথম পাতায় যান