ধর্ম অবমাননার অভিযোগে পাকিস্তানে শ্রীলঙ্কান নাগরিক হত্যা | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 04.12.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

পাকিস্তান

ধর্ম অবমাননার অভিযোগে পাকিস্তানে শ্রীলঙ্কান নাগরিক হত্যা

ধর্ম অবমাননার অভিযোগে পাকিস্তানের শিয়ালকোট শহরে এক শ্রীলঙ্কান নাগরিককে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে৷ হত্যার পর তার মৃতদেহ পুড়িয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা৷  

ঘটনাস্থলে প্রহরায় পুলিশ

ঘটনাস্থলে প্রহরায় পুলিশ

নিহত শ্রীলঙ্কান নাগরিক শিয়ালকোটের এক খেলাধুলার পোশাক কারখানায় কর্মরত ছিলেন৷ কারখানার দেয়ালের একটি পোস্টার ছিঁড়ে ফেলায় ধর্ম অবমাননার অভিযোগে কারখানার শ্রমিক এবং স্থানীয়রা পিটিয়ে হত্যা করে৷ 

নিহত ব্যক্তির নাম প্রিয়ান্থা কুমারা, বয়স আনুমানিক ৪০ বছর বলে জানা গেছে৷

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায়, কারখানার ব্যবস্থাপক শ্রীলঙ্কান ওই নাগরিককে যে জায়গাটিতে হত্যা করা হয়েছে সে জায়গায় শতশত মানুষ দাঁড়িয়ে আছেন৷

দক্ষিণ এশিয়ার দেশ পাকিস্তানে ধর্ম অবমাননার শাস্তি দিতে ব্লাসফেমি আইন চালু আছে৷ সে আইনে ধর্ম অবমাননার দায়ে মৃত্যুদণ্ডও হতে পারে৷ তা সত্ত্বেও এ অভিযোগে পাকিস্তানে বিচারবিহর্ভূতভাবে হত্যার ঘটনাও ঘটে৷   

কয়েকদিন আগে পাকিস্তানের খাইবার পাখতুন প্রদেশে পুলিশের সাথে সংঘর্ষের পর স্থানীয়রা একটি থানায় আগুন ধরিয়ে দেয়৷ ধর্ম অবমাননার অভিযোগে সেখানে এক ব্যক্তিকে আটক করেছিল পুলিশ৷ 

তার আগে গত বছর পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত যুক্তরাষ্ট্রের এক নাগরিককে বিচার চলার সময় আদালতের ভেতরে গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা৷    

আরআর/এসিবি (ডিপিএ, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন