ধরা যায় এমন থ্রিডি টিভি প্রযুক্তি উদ্ভাবন করল জাপান | বিজ্ঞান পরিবেশ | DW | 27.08.2010
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

ধরা যায় এমন থ্রিডি টিভি প্রযুক্তি উদ্ভাবন করল জাপান

চিন্তা করুন তো - আপনার হাতে লেজার গান বা প্লাজমা রাইফেল৷ আর সামনে শত্রু৷ কী মনে হবে নিজেকে? আমার তো নিজেকে রাজা মনে হবে৷ আপনাদেরও এমনটাই হবে নিশ্চয়!

default

এই পদ্ধতি পাল্টে যেতে পারে!

এবার বাস্তবে ফিরে আসুন৷ কখনো কী এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি হওয়া সম্ভব?.. হয়তো! কিন্তু ভিডিও গেমস খেলার সময় আমরা এমন অবস্থায় অহরহই পড়ছি৷ তবে ভিডিও গেমস আর বাস্তব তো এক কথা নয়৷ কিন্তু যদি এমন হয় যে, আপনি ভিডিও গেমসের অস্ত্রগুলোকে হাত দিয়ে স্পর্শ করতে পারছেন! মনে যদি হয়, আপনার হাতেই অস্ত্রগুলো আছে! হ্যাঁ, হতে পারে৷ জাপানী গবেষকরা অন্তত তাই বলছেন৷ তাঁদের দাবি, তাঁরা স্পর্শ করা যায় এমন থ্রিডি টেলিভিশন প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেছেন৷

জাপানের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব এডভান্সড ইন্ডাস্ট্রিয়াল সায়েন্স এন্ড টেকনোলজির একদল বিজ্ঞানী এই নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবনের সঙ্গে জড়িত৷ দলটির অন্যতম সিনিয়র বিজ্ঞানী নোরিও নাকামুরা৷ তিনি বলছেন, তাঁদের উদ্ভাবিত প্রযুক্তির কারণে প্রথমবারের মত, বাতাসে ভেসে থাকা থ্রিডি ছবি ধরে দেখা সম্ভব৷ এমনকি হাতের সাহায্যে ছবিগুলোর আকারও পরিবর্তন করা সম্ভব৷ আর এ'কাজে সহায়তা করবে ক্যামেরা - যা হাতের আঙ্গুলের দিকে নজর রেখে ছবিগুলো সেভাবে সাজাবে৷

কবে নাগাদ এই প্রযুক্তির ব্যবহার সম্ভব হবে সে ব্যাপারে অবশ্য কিছু বলেননি গবেষকরা৷ তবে তাঁরা বলছেন, অপারেশনের কাজেও এই প্রযুক্তি ব্যবহার করা যাবে৷ নাকামুরার মতে, এই প্রযুক্তির সহায়তায় ভার্চুয়াল যাদুঘর বানানো সম্ভব৷ যেখানে স্বাভাবিকভাবে ধরা নিষিদ্ধ এমন সব ভাস্কর্য রাখা যাবে৷ আর ঐ ভাস্কর্যগুলোকে এই প্রযুক্তির সাহায্যে হাত দিয়ে ধরা যাবে৷ এমনকি অন্ধরাও তা ছুঁয়ে দেখতে পারবেন৷

প্রতিবেদন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী