ধরা পড়ল মেক্সিকোর কুখ্যাত গ্যাংস্টার ‘এল মারো’ | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 04.08.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

মেক্সিকো

ধরা পড়ল মেক্সিকোর কুখ্যাত গ্যাংস্টার ‘এল মারো’

অপরাধী কর্মকাণ্ডের জন্য সারা দুনিয়ায় কুখ্যাত মেক্সিকোর ড্রাগ গ্যাং সান্তা রোজা দ্য লিমা৷ মেক্সিকোর গুয়ানাখুয়াতো রাজ্যের ত্রাস ছিল এই বাহিনী আর তার প্রধান৷

পুরো নাম হোসে আন্তনিও ইয়েপেজ অর্তিস হলেও অপরাধ জগতে পরিচিত এক নামে, ‘এল মারো'৷ যার বাংলা করলে দাঁড়ায় ‘মুগুর'৷ দেখতে ছোটখাট হলেও গোটা মেক্সিকোতে ত্রাস ছড়ায় তার নামে, বিশেষ করে গুয়ানাখুয়াতো রাজ্যে৷

সান্তা রোজা দ্য লিমা নামের একটি দুর্ধর্ষ অপরাধী গ্যাংয়ের প্রধান এই এল মারো৷ দলটি মূলত গুয়ানাখুয়াতোর সরকারি পাইপলাইন আর শোধনাগার থেকে জ্বালানি তেল চুরির জন্য কুখ্যাত ছিল৷ কিন্তু দিনকে দিন ক্ষমতাধর হয়ে ওঠে তারা৷ শুরু হয় অন্য গ্যাংগুলোর সঙ্গে আধিপত্য বিস্থারের লড়াই৷ খালিসকো নিউ জেনারেশন কার্টেল নামের আরেকটি দলের সঙ্গে তাদের বিবাদে মেক্সিকোর এক সময়কার নিরাপদ অঞ্চলটি হয়ে ওঠে রক্তক্ষয়ী৷

শুরুর দিকে এল মারো তার দলের চুরি ডাকাতির ভাগ দিয়ে স্থানীয়দের হাতে রাখত৷ কিন্তু সরকার থেকে তেলের পাইপলাইন আর রেলের নিরাপত্তা বাড়ানোর পর মুশকিল হয় যায় তারা৷ এল মারোর বাহিনীর মূল কাজ হয়ে দাঁড়ায় তখন চাঁদাবাজি আর অপহরণ৷ বছরের পর বছর ধরে নানা অভিযান চালিয়েও তার নাগাল পাচ্ছিল না মেক্সিকোর আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী৷

অবশেষে রোববার মেক্সিকোর পুলিশ ও সেনাবাহিনীর যৌথ অভিযানে ধরা দিতে হয়েছে এই মোস্ট ওয়ান্টেডকে৷ গুয়ানাখুয়াতো রাজ্যের অ্যাটর্নি জেনারেলের বিবৃতি অনুযায়ী ইয়েপেত অর্তিস বা এল মারোকে আরো পাঁচ সহযোগীসহ গ্রেপ্তার করা হয়েছে৷ সেই সঙ্গে তার আস্তানা থেকে অপহৃত একজন স্থানীয় ব্যবসায়ীকেও উদ্ধার করা হয়৷

তার গ্রেপ্তার দেশটির বর্তমানে প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ ওবরাদোরের সরকারের জন্য বড় সাফল্য হিসেবে দেখা হচ্ছে৷ কেননা অপরাধের মাত্রা ব্যাপক হারে কমানোর প্রতিশ্রুতি দিয়ে ২০১৮ সালে ক্ষমতায় এসেছেন তিনি৷

এফএস/কেএম (এপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন