দুশ্চিন্তায় রয়েছেন ‘অন্তর্বাসে বিষদাতা ভ্লাদিমির’ | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 03.02.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

রাশিয়া

দুশ্চিন্তায় রয়েছেন ‘অন্তর্বাসে বিষদাতা ভ্লাদিমির’

রাশিয়ার বিরোধী নেতা নাভালনি কারাদণ্ডের রায় সত্ত্বেও প্রেসিডেন্ট পুটিনের কর্তৃত্ব চ্যালেঞ্জ করে রাশিয়ার ক্ষমতাকেন্দ্রে অস্বস্তি সৃষ্টি করছেন৷ নাভালনির অধিকারের পক্ষে আন্তর্জাতিক সমর্থনও বাড়ছে৷

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুটিন এর আগে সম্ভবত কখনো এমন অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়েন নি৷ মঙ্গলবার এক আদালত বিরোধী নেতা আলেক্সেই নাভালনির বিরুদ্ধে সাড়ে তিন বছরের কারাদণ্ডের রায় দিয়েছে৷ কিন্তু বিরোধী নেতার সমর্থনে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ বন্ধ হচ্ছে না৷ কড়া পদক্ষেপ সত্ত্বেও ক্ষমতাকেন্দ্রের উপর পুটিন প্রশাসনের জোর কিছুটা আলগা হচ্ছে বলে অনেক মহল মনে করছে৷

নাভালনি নিজে আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চতর আদালতে আপিল করবেন বলে জানিয়েছেন৷ তার আইনজীবীদের মতে, আদালতের বর্তমান রায় কার্যকর হলে নাভালনিকে দুই বছর আট মাস জেলে থাকতে হবে৷ সেইসঙ্গে পাঁচ লাখ রুবল জরিমানাও করা হয়েছে৷ অর্থাৎ গৃহবন্দি দশার সময়ের সঙ্গে হিসেব করে কারাবাসের মেয়াদ কিছুটা কমানো হতে পারে৷ উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে এক ভুয়া মামলার জের ধরে নাভালনি প্রোবেশনে ছিলেন, অর্থাৎ তার প্রাপ্য শাস্তি স্থগিত রাখা হয়েছিল৷ বিষক্রিয়ার পর জার্মানিতে চিকিৎসা করাতে গিয়ে নাভালনি প্রোবেশনের শর্ত ভাঙায় আদালত কারাদণ্ডের রায় দিয়েছে৷

মঙ্গলবার আদালতে বক্তব্য রাখার সুযোগের পূর্ণ সদ্ব্যবহার করে কড়া ভাষায় নাভালনি পুটিনের সমালোচনা করেন৷ তিনি গত আগস্ট মাসে নিজের বিষক্রিয়ার জন্য সরাসরি পুটিন ও গোয়েন্দা সংস্থা এফএসবি-কে দায়ী করেন৷ তাঁর অন্তর্বাসের মধ্যে নভিচক বিষ চালান করায় নাভালনি পুটিনকে ‘ভ্লাদিমির, দ্য আন্ডারপ্যান্টস পয়জনার’ হিসেবে বর্ণনা করেন৷ চলতি মাসে স্বেচ্ছায় জার্মানি থেকে রাশিয়া ফিরে এবং আদালতে দাঁড়িয়ে এমন শ্লেষাত্মক ভাষায় পুটিনের সমালোচনা করে তিনি যে সাহস দেখিয়েছেন, এর ফলে তার সমর্থক ও সরকারবিরোধীদের সাহস আরও বেড়ে যেতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে৷ সমর্থকদের উদ্দেশ্যে নাভালনি বলেছেন, তাকে জেলে পোরা কঠিন না হলেও গোটা দেশকে জেলে পোরা সম্ভব নয়৷

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মস্কোয় নিরাপত্তা বাহিনী ব্যাপক ধরপাকড় চালিয়েছে৷ মানবাধিকার কর্মীদের সূত্র অনুযায়ী কমপক্ষে ৮৫০ জন বিরোধী সমর্থককে আটক করা হয়েছে৷ সামাজিক যোগাযোগ নেটওয়ার্কে প্রকাশিত বেশ কিছু ভিডিওতে এমন দৃশ্যও দেখা গেছে৷ একাধিক বিক্ষোভে ‘পুটিন একজন চোর' বুলি শোনা গেছে৷ অনেকে গাড়ি হর্ন বাজিয়ে বিক্ষোভকারীদের পক্ষে সমর্থন দেখিয়েছেন৷ সেন্ট পিটার্সবার্গে বিরোধী সমর্থকদের দূরে রাখতে প্রশাসন শহরের কেন্দ্রস্থল ঘিরে রেখেছিল৷ সেখানেও কমপক্ষে ১৭০ জনকে আটক করা হয়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে৷

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেনসহ ব্রিটেন, ফ্রান্স, জার্মানি, অস্ট্রিয়া ও পোল্যান্ডের মতো অনেক দেশের নেতারা নাভালনির বিরুদ্ধে মামলাকেরাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হিসেবে বর্ণনা করেছেন৷ ইউরোপীয় ইউনিয়নের সরকার পরিষদের প্রধান শার্ল মিশেল বলেন, ইইউ এই রায় মেনে নিচ্ছে না৷ বিচার প্রক্রিয়া রাজনৈতিক করে তোলা উচিত নয়৷ তিনি বিরোধী বিক্ষোভকারীদের রাজনৈতিক মত প্রকাশের অধিকারের প্রতি সমর্থন জানান৷ মস্কো অবশ্য অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপের অভিযোগ করে যাবতীয় আন্তর্জাতিক সমালোচনা নাকচ করে দিয়েছে৷

এসবি/কেএম (রয়টার্স, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন