দুর্নীতি রোধে আন্নার মন্ত্রশিষ্য কেজরিয়ালের রাজনীতিতে প্রবেশ | বিশ্ব | DW | 02.10.2012
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

দুর্নীতি রোধে আন্নার মন্ত্রশিষ্য কেজরিয়ালের রাজনীতিতে প্রবেশ

দুর্নীতি বিরোধী আন্দোলনে একদা আন্না শিবিরের পুরোধা ব্যক্তি সমাজকর্মী অরবিন্দ কেজরিয়াল আজ মহাত্মা গান্ধীর ১৪৩তম জন্ম বার্ষিকীতে রাজনীতিতে প্রবেশের কথা ঘোষণা করেন৷ বলেন, আন্না ও তাঁর পথ আলাদা, কিন্তু লক্ষ্য এক৷

মঙ্গলবার মহাত্মা গান্ধীর ১৪৩তম জন্ম বার্ষিকীতে দুর্নীতি বিরোধী আন্না হাজারের মন্ত্রশিষ্য অরবিন্দ কেজরিয়াল রাজনৈতিক দল গঠন করে রাজনীতিতে প্রবেশ করলেন আনুষ্ঠানিকভাবে৷ আন্নার সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হবার ১২ দিনের মাথায়৷

আজ দিল্লির কনস্টিটিউশন ক্লাবে তিনি দলের নীতি, আদর্শ, কর্মসূচি এবং গঠনতন্ত্র সংক্রান্ত ‘ভিশন ডক্যুমেন্ট' প্রকাশ করেন৷ তাতে ব্যক্ত করা হয়, সদস্য ও প্রার্থী নির্বাচন, জন লোকপাল বিলের প্রতি দায়বদ্ধতা, দলীয় কাজকর্মের দিকে নজর রাখতে অভ্যন্তরীণ লোকপাল নিয়োগ ইত্যাদি বিষয়৷ দলের নাম এখনও ঠিক হয়নি৷ হবে আগামী মাসে৷

কেজরিয়াল বলেন, দল গঠনের উদ্দেশ্য দেশের রাজনৈতিক কাঠামোয় পরিবর্তন আনা৷ এটা ঠিক রাজনৈতিক দল নয়, রাজনৈতিক বিপ্লব৷ তাঁর সহযোগী প্রশান্ত ভূষণ বলেন, বর্তমান ব্যবস্থায় সরকার পাঁচ বছরের জন্য নির্বাচিত হয়ে আমজনতার বুকের ওপর বসে রাজত্ব করেন, নীতি তৈরি করেন, সিদ্ধান্ত নেন৷ এই ব্যবস্থার পরিবর্তন করতে হলে নির্বাচনে ঐসব ব্যক্তিদের চ্যালেঞ্জ করা দরকার৷ এমন লোকেদের সংসদে পাঠাতে হবে যাঁরা রাজনৈতিক ব্যবস্থায় পরিবর্তন আনতে পারেন৷

Indien Korruption Anna Hazare

আন্নার মন্ত্রশিষ্য অরবিন্দ কেজরিয়াল বলেন, ‘‘আন্না ও তাঁর পথ আলাদা, কিন্তু লক্ষ্য এক’’

বিজেপি'র মতে, ভারতের সংবিধানে দল গঠনের অধিকার সবাইকেই দেয়া হয়েছে৷ চাইলে যে কেউ ভোটে লড়তে পারে৷ কাজেই এতে কারোর আপত্তি থাকার কথা নয়৷

উল্লেখ্য ভিশন ডক্যুমেন্টে দলিত, অনগ্রসর শ্রেণির জন্য সংরক্ষণ, মুসলিম সম্প্রদায়কে সন্দেহ, বঞ্চনা ও অনগ্রসরতার বেড়াজাল থেকে শিক্ষা, কর্মসংস্থান ও সমানাধিকারের মাধ্যমে মুক্ত করার কথা বলা হয়৷ দলের কোনো সাংসদ ও বিধায়ক সরকারি বাংলো ও দেহরক্ষী নেবে না৷ দলের টাকা-পয়সার হিসেব ওয়েবসাইটে দেয়া হবে স্বচ্ছতা রাখতে৷

এর আগে কেজরিয়াল দেখা করেন গুরু আন্নার সঙ্গে দিল্লিতে৷ আন্না রাজনৈতিক দল গঠনের বিরোধী৷ পরে কেজরিয়াল বলেন, তাঁদের পথ আলাদা হলেও, লক্ষ্য এক৷ তাঁর লড়াইও দুর্নীতির বিরুদ্ধে৷

এদিকে আজ জাতির জনক মহাত্মা গান্ধীর ১৪৩তম জন্ম জয়ন্তীতে তাঁর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানান রাষ্ট্রপতি, উপ-রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী, বিজেপি নেত্রী সুষমা স্বরাজ, এল.কে আডবানি প্রমুখ৷ এই উপলক্ষ্যে আয়োজন করা হয় বিভিন্ন অনুষ্ঠানের৷ এই দিনটি সারা বিশ্বে পালিত হয় আন্তর্জাতিক অহিংসা দিবস হিসেবে৷ গান্ধীজির জীবনাদর্শ হলো, ‘আমরা যদি সবাই সবাইকে ভালোবাসি, পরস্পরের হাত ধরে চলি, তাহলে পৃথিবীটা বদলে যেতে বাধ্য৷'

প্রতিবেদন: অনিল চটোপাধ্যায়, নতুন দিল্লি

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন