দুর্গাপুজো নিয়েও কেন্দ্র-রাজ্য টানাপড়েন | বিশ্ব | DW | 05.05.2022

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

পশ্চিমবঙ্গ

দুর্গাপুজো নিয়েও কেন্দ্র-রাজ্য টানাপড়েন

ইউনেসকো হেরিটেজের সম্মান পেয়েছে দুর্গাপুজো। এবার তার অনুষ্ঠান নিয়ে কেন্দ্র-রাজ্য টানাপড়েন শুরু।

দুইদিনের সরকারি কর্মসূচি নিয়ে পশ্চিমবঙ্গে গেছেন ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। বৃহস্পতিবার উত্তরবঙ্গে তার একাধিক কর্মসূচি আছে। শুক্রবার কলকাতায় ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে দুর্গাপুজোর অনুষ্ঠানে যোগ দেয়ার কথা তার। আর সেই অনুষ্ঠান নিয়েই শুরু হয়েছে বিতর্ক। সেখানে পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে ডাকলেও রাজ্য প্রশাসনের কাউকে ডাকা হয়নি। ডাকা হয়নি মুখ্যমন্ত্রী বা অন্য কোনো মন্ত্রীকেও।

২০২১ সালের ডিসেম্বর মাসে ইউনেকসো দুর্গাপুজোকে ইনট্যানজিবল হেরিটেজের সম্মান দেয়। মূলত দুর্গাপুজো ঘিরে রাজ্যে যে শিল্পের প্রদর্শনী হয়, তাকেই সম্মান জানিয়েছে ইউনেসকো। ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে এবিষয়ে ইউনেসকোর কাছে আবেদন জানিয়েছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে রাষ্ট্রপুঞ্জে আবেদন জানিয়েছেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী। তারই প্রেক্ষিতে ডিসেম্বর ইউনেস্কো সম্মান প্রদান করে।

দুর্গাপুজোর এই স্বীকৃতির পর তা নিয়ে অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা করে কেন্দ্রীয় সরকার। শুক্রবার মেমোরিয়ালে তারই অনুষ্ঠান হওয়ার কথা। কিন্তু সেখানে রাজ্যের কাউকে ডাকা হয়নি। ডাকা হয়নি দুর্গাপুজোর সঙ্গে সম্পৃক্ত শিল্পীদেরও। আর তা নিয়েই ক্ষোভ তৈরি হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী এবিষয়ে এখনো কোনো মন্তব্য করেননি। তবে রাজ্য সরকারের এক মন্ত্রী ডয়চে ভেলেকে জানিয়েছেন, ''যারা এই সম্মান অর্জন করল, যারা সম্মানের জন্য আবেদন করল, যাদের শৈল্পিক অবদানের জন্য এই সম্মান পাওয়া গেল, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তাদেরকেই ব্রাত্য রাখলেন এই অনুষ্ঠান থেকে।'' মুখ্যমন্ত্রী এবিষয়ে এখনো কোনো মন্তব্য না করায়, ওই মন্ত্রীও নাম প্রকাশ করতে চাননি।

বিজেপির নেতারা এবিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাননি। বিষয়টি কেন্দ্রীয় সরকারের হাতেই ছেড়ে দিয়েছেন তারা। তবে বিজেপির একটি সূত্র জানিয়েছে, শেষ মুহূর্তে বিতর্ক এড়াতে রাজ্য সরকারের কোনো কোনো ব্যক্তির কাছে আমন্ত্রণপত্র যেতেও পারে। কিন্তু রাজ্য সরকার সেই আমন্ত্রণ গ্রহণ করবে কি না, তা নিয়েও ধোঁয়াশা আছে।

এর আগে একাধিক বিষয়ে কেন্দ্রের সঙ্গে সরাসরি বিতর্ক হয়েছে রাজ্য সরকারের। বিভিন্ন বিষয়ে রাজ্য সরকারকে প্রশ্ন করে অস্বস্তিতে ফেলেছে কেন্দ্র। আবার কেন্দ্র রাজ্যের বিষয়ে নাক গলাচ্ছে বলে কটাক্ষ করেছে রাজ্যও। কিন্তু দুর্গাপুজো নিয়ে নতুন যে বিতর্ক শুরু হয়েছে, তা অভূতপূর্ব।

এসজি/জিএইচ (পিটিআই)