‘দুনীর্তি আর নোংরা রাজনীতির কাছে আজ শিক্ষা জিম্মি′ | আলাপ | DW | 24.06.2016
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

আলাপ

‘দুনীর্তি আর নোংরা রাজনীতির কাছে আজ শিক্ষা জিম্মি'

‘‘ভবিষ্যৎ প্রজন্ম ধ্বংস হচ্ছে, জাতি হচ্ছে মেধাশূন্য৷ উদাহরণ সরূপ বলা যায় ‘আই অ্যাম জিপিএ ফাইভ- '' বাংলাদেশের শিক্ষা পদ্ধতি নিয়ে একজন পাঠকের এই মন্তব্য ফেসবুক পাতায়৷ অনেক পাঠকই কিন্তু তাঁর সাথে একমত৷

বাচ্চাদের সৃজনশীল পরীক্ষা দেয়ার ক্ষেত্রে ডয়চে ভেলের পাঠক নিয়াজ মাহমুদ জানাচ্ছেন , অনেক শিক্ষক নাকি সৃজনশীল প্রশ্নই করতে পারেননা৷ তাই বাচ্চাদের কাছ থেকে আর কী আশা করা যেতে পারে?

নিয়াজ মাহমুদের সাথে পাঠক তাসিনও সুর মিলিয়েছেন৷ তাছাড়া ডয়চে ভেলের ফেসবুক পাঠক সুমন মিত্র, মাহফুজ রহমান, কামরুল হাসান, নোমান, দিদারুল আলম, তুষার, নেহাল, শরিফুল আলম, হারুন উর রশীদ সকলেই কিন্তু একই মত পোষন করেন৷

‘‘ভবিষ্যত প্রজন্ম ধ্বংস হচ্ছে, জাতি হচ্ছে মেধাশূণ্য৷ উদাহরণ সরূপ বলা যায় ‘আই অ্যাম জিপিএ ফাইভ-'' বাংলাদেশের পরীক্ষা পদ্ধতি সম্পর্কে এই মন্তব্য পাঠক শাকিলের৷

আর মারুফ হাসান তন্ময় বাংলাদেশের শিক্ষা পদ্ধতি পরিবর্তনের অনুরোধ জানিয়েছেন৷ তবে শিক্ষা পদ্ধতির এই দূরবস্থার জন্য কিন্তু নিয়মিত ফেসবুকবন্ধু অর্জুন বৈদ্য দেশের পরিস্থিতিকেই দায়ী করেছেন৷

তাঁর ভাষায়,‘‘ আগে শিক্ষকরা সম্মানের জন্য আসতো আর এখন টাকার কথা চিন্তা করে আর তা সবাই না হলেও বেশিরভাগই৷ ছাত্ররা আসতো শিক্ষিত হবার জন্য আর এখন তারা আসে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বড় নেতা আর সন্ত্রসী হবার জন্য৷ আসলে নীতি আদর্শহীন যে কোনো ব্যবস্থা শুধু কাগজ কলমে এগিয়ে যায়, সমাজে আলোকিত মানুষের সার্টিফিকেট বাড়ে- আলোকিত মানুষ নয়৷ তার উদাহরণ বর্তমান সময়৷''

অন্যদিকে সুব্রত দেবনাথের সোজা মন্তব্য, ‘‘দুনীর্তি আর নোংরা রাজনীতির কাছে আজ শিক্ষা জিম্মি৷'' শুধু তাই নয়, এর সাথে নাকি শিক্ষকরাও জড়িত৷

সংকলন: নুরুননাহার সাত্তার

সম্পাদনা: আশীষ চক্রবর্ত্তী

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন