দুই ডাকাতকে একাই দাবড়ালেন ১০৩ বছর বয়সি নারী | বিশ্ব | DW | 13.07.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

দুই ডাকাতকে একাই দাবড়ালেন ১০৩ বছর বয়সি নারী

জার্মানির ডাকাতরা বোধ হয় এবার একটু বুঝে-শুনে চলবেন৷ তাদের ডাকাতির মূল টার্গেট ছিলেন বৃদ্ধরা৷ কিন্তু শতবর্ষী এক নারী যা করেছেন, এবার বোধ হয় একটু অন্যভাবে ভাবতে হবে ডাকাত মহাশয়দের৷

মানুষকে ঠকাতে এসব চোর বা ডাকাতরা নানান ফন্দি আঁটে৷ এর একটি হলো ‘পেপার ট্রিক'৷ অনেক সময় জাল টাকা বা ভুয়া কাগজ দেখিয়ে বিভ্রান্ত করে বা মনোযোগ অন্যদিকে নিয়ে চুরি বা ডাকাতি করে এসব সংঘবদ্ধ চোরেরা

১০৩ বছরের এই বৃদ্ধার ভাগ্যেও তেমনটিই ঘটতে যাচ্ছিলো৷ বৃহস্পতিবার পুলিশ জানায় যে, দুই অচেনা নারী এসে ঐ বৃদ্ধার কলিং বেল চাপেন৷ যে মুহূর্তে তিনি দরজা খোলেন তখনই একটি কাগজ দেখিয়ে বলেন, এ বিষয়ে বিস্তারিত বলবেন তারা৷ এরপর জোর করে ভেতরে ঢুকে যান৷

কিন্তু সেই বৃদ্ধা রুখে দাঁড়ান৷ তাঁর ভর দেয়ার লাঠি দিয়ে পেটাতে পেটাতে বের করে দেন তাদের৷ এ সময় ভবনের নীচে থাকা এক অচেনা যুবকও পালিয়ে যান৷ ধারণা করা হচ্ছে, সেই যুবকও এই নারীদের সঙ্গেই ছিলেন৷

ভিডিও দেখুন 01:59
এখন লাইভ
01:59 মিনিট

Crime in Germany: The figures that matter

ইউরোপে প্রতারকরা এভাবেই নানা কৌশলে ঠকাচ্ছে মানুষকে৷ তাদের মূল লক্ষ্য বয়স্করা৷ এতে তারা নানা রকমের ‘সাদা কাগজ বা ভুয়া নথি' ব্যবহার করছে৷ একে বলা হচ্ছে, ‘পেপার ট্রিক'৷

যেমন, প্রতারক চক্রের কেউ এসে একজনকে হয়তো দরজায় নক করে বলবে যে, বাড়ির বাসিন্দার প্রতিবেশীকে একটি বার্তা দিতে হবে৷ তাই কাগজ কলম দরকার৷ অথবা এসে বলবে যে, কোনো একটি বিষয়ে আবেদন সই করতে হবে৷

যাকে লক্ষ্য করা হবে, তাঁকে এই কাজে ব্যস্ত রেখে অথবা মনোযোগ অন্য দিকে নিয়ে গিয়ে এ সময়েই চুরি করে পালিয়ে যাবে চক্রের সদস্যরা

আবার কেউ কেউ হয়তো অসুস্থ হবার ভান করবে৷ অথবা এক গ্লাস পানি বা টয়লেট ব্যবহার করতে চাইতে পারে৷

জেডএ/এসিবি (এএফপি, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও