দলের মধ্যেই সমর্থন হারাচ্ছেন লাশেট | বিশ্ব | DW | 28.09.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

দলের মধ্যেই সমর্থন হারাচ্ছেন লাশেট

জার্মানির সংসদ নির্বাচনে ঐতিহাসিক বিপর্যয়ের পর ইউনিয়ন শিবিরের চ্যান্সেলর পদপ্রার্থী আরমিন লাশেট প্রবল চাপের মুখে পড়েছেন৷ তার ‘উদ্ধত মনোভাবে‘ অনেক নেতা বিরক্তি প্রকাশ করছেন৷

ঘরে-বাইরে প্রচণ্ড চাপের মুখে রয়েছেন জার্মানির ইউনিয়ন শিবিরের চ্যান্সেলর পদপ্রার্থী আরমিন লাশেট৷ শিবিরের মধ্যে নেপথ্যে ও প্রকাশ্যে তার বিরুদ্ধে সমালোচনা বেড়ে চলেছে৷ নির্বাচনের ফলাফল স্পষ্ট হয়ে যাবার পরেও তিনি যেভাবে সরকার গড়ার দাবি করেছিলেন, সেই বিষয়টি দলের অনেক নেতা-কর্মী মোটেই ভালো চোখে দেখছেন না৷ নির্বাচনে কার্যত ভরা়ডুবির পর এবং শিবির তালিকার দ্বিতীয় স্থানে নেমে যাওয়া সত্ত্বেও লাশেটের ‘ঔদ্ধত্য' অনেকের বিরক্তির কারণ হয়ে উঠেছে৷ শিবিরের ঐতিহাসিক নির্বাচনি বিপর্যয়ের পর চাপের মুখে তিনি পিছিয়ে গিয়ে ‘দেশের প্রয়োজনে' জোট সরকার গড়ার চেষ্টার কথা বলেছেন৷ অর্থাৎ নির্বাচনে জয়ী এসপিডি দল জোট গঠনে ব্যর্থ হলে তবেই তিনি সেই প্রচেষ্টা চালাতে চান৷ তবে স্পষ্ট ভাষায় হার স্বীকার এবং জয়ের জন্য এসপিডি দল বা দলের চ্যান্সেলর পদপ্রার্থী আরমিন লাশেটকে অভিনন্দন জানানোর সৌজন্যও তিনি দেখান নি৷

সিডিইউ ও সিএসইউ দলের একাধিক নেতা লাশেটের এমন আচরণের তীব্র সমালোচনা করছেন৷ তাদের মতে, সবার আগে বিনীত মনোভাব দেখিয়ে ভোটারদের রায় শ্রদ্ধার সঙ্গে মেনে নেওয়া উচিত৷ হেসে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ফল্কার বুফিয়ে বলেছেন, এই ফলাফলের পর ইউনিয়ন শিবিরের সরকার গড়ার দায়িত্ব নেবার কোনো সুযোগ নেই৷ দলের যুব শাখার প্রধান টিলমান কুবান বলেন, ‘‘আমরা নির্বচনে হেরে গেছি৷ ব্যস, আর কিছু বলার নেই৷'' তার মতে, সরকার গড়ার দায়িত্ব এখন এসপিডি, সবুজ দল ও এফডিপি দলের কাঁধে বর্তায়৷

এসপিডি দলের নেতারাও লাশেটের ‘ঔদ্ধত্য' সম্পর্কে বিরক্তি প্রকাশ করছেন৷ দলের সাধারণ সম্পাদক লার্স ক্লিংবাইল বলেন, ‘‘কেউ আরমিন লাশেটকে চ্যান্সেলর হিসেবে চায় না৷ আশা করি আগামী কয়েক দিনে তারও সেই উপলব্ধি হবে৷ উল্লেখ্য, সোমবার প্রকাশিত এক জনমত সমীক্ষায় ৭১ শতাংশ মানুষ লাশেটের সরকার গড়ার উদ্যোগের বিরোধিতা করেছেন৷

এমন প্রেক্ষাপটে ইউনিয়ন শিবিরের মধ্যে লাশেটের ভবিষ্যৎ নিয়ে জল্পনাকল্পনা চলছে৷ ইউনিয়ন শিবিরের কয়েকজন নেতা সরাসরি অথবা পরোক্ষভাবে দলের নেতা হিসেবে লাশেটের অপসারণের ডাক দিচ্ছেন৷ নির্বাচনে রেকর্ড মাত্রার বিপর্যয়ের পর তারা দলের নেতৃত্ব ও কর্মসূচি ঢেলে সাজানোর ডাক দিচ্ছেন৷ লাশেটের নিজের দলের নেতা ও প্রতিদ্বন্দ্বী নরবার্ট রোটগেন সবার আগে নির্বাচনি ফলাফলের বিশ্লেষণের পর ব্যক্তি ও পদের বিষয়ে সিদ্ধান্তের পক্ষে সওয়াল করেছেন৷

শেষ পর্যন্ত সরকার গড়ার সুযোগ না পেলে বা সেই কাজে ব্যর্থ হলে লাশেট কি নর্থরাইন ওয়েস্টফেলিয়ার মুখ্যমন্ত্রী থেকে যাবেন? নাকি বুন্ডেসটাগে সংসদীয় দলের নেতা হিসেবে বিরোধী পক্ষের নেতৃত্ব দেবেন? সিডিইউ ও সিএসইউ দলের সংসদীয় দলের বর্তমান নেতা রাল্ফ ব্রিংকহাউস লাশেটের এমন প্রচেষ্টা সম্পর্কে চরম বিরক্তি প্রকাশ করেছেন৷ বাভেরিয়ার মুখ্যমন্ত্রী মার্কুস স্যোডার ব্রিংকহাউসের প্রশংসা করে লাশেটের উপর চাপ আরও বাড়িয়ে দিয়েছেন৷

এসবি/কেএম (ডিপিএ, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়