ত্রিপোলির দূতাবাসে আশ্রয় নিয়েছেন দেড় হাজার বাংলাদেশি | বিশ্ব | DW | 02.03.2011
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ত্রিপোলির দূতাবাসে আশ্রয় নিয়েছেন দেড় হাজার বাংলাদেশি

ত্রিপোলিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এডিএম নুরুজ্জামান ডয়চে ভেলেকে টেলিফোনে জানান, আইওএম ও বিভিন্ন কোম্পানির সহায়তায় লিবিয়ায় বিপদগ্রস্ত বাংলাদেশিদের দেশে ফেরত পাঠান হচ্ছে৷ তিনি জানান, ত্রিপোলির অবস্থা এখন থমথমে৷

default

লিবিয়ায় বিপাকে প্রবাসীরা

ত্রিপোলির বাংলাদেশ দূতাবাসে দেড় হাজার বাংলাদেশি আশ্রয় নিয়েছেন৷ মিশর ও টিউনিশিয়া সীমান্তে আছেন প্রায় ৪ হাজার৷ রাষ্ট্রদূত নুরুজ্জামান জানান, অন্যান্য বিদেশীরা লিবিয়া ছেড়ে চলে যাওয়ায় সেখানে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়েছে বেশি৷ তবে যদি কেউ তেমন অসুবিধার মধ্যে না থাকেন তবে তাদের নিরাপদ আশ্রয়ে লিবিয়াতেই অবস্থানের পরামর্শ দিচ্ছেন তিনি৷

রাষ্ট্রদূত বলেন, দূতাবাস সাধ্যমত বাংলাদেশি নাগরিকদের সহায়তার চেষ্টা করছেন৷ তবে টেলিফোন নেটওয়ার্ক ত্রুটিপূর্ণ হওয়ার কারণে হয়তো কেউ কেউ দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছেন না৷ রাষ্ট্রদূত এডিএম নুরুজ্জামান জানান, লিবিয়ার অবস্থা এখন থমথমে৷ বাংলাদেশি নাগরিকরা লুটপাট ও ছিনতাইয়ের শিকার হচ্ছেন৷ তিনি এই সঙ্কটকালে সবার সহযোগিতা ও দোয়া চেয়েছেন৷

এদিকে গত রাতে আরব আমিরাতের বিমান যোগে আরো শতাধিক বাংলাদেশি লিবিয়া থেকে ঢাকায় এসেছেন৷ আর আজ আরো ৫২৬ জন ফিরে আসবেন বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে৷এদের মধ্যে ৩৮৩ জনকে আইওএম এর সহায়তায় ত্রিপলি থেকে ভাড়া করা বিশেষ বিমানে ঢাকায় আনা হচ্ছে৷ আর গ্রিসের ক্রীট দ্বীপে আশ্রয় নেয়া ১৪৩ জনকে বিমানে করে ঢাকায় পাঠাচ্ছে তাদের নিয়োগকারী কোম্পানি৷

প্রতিবেদন: হারুন উর রশীদ স্বপন, ঢাকা

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়