তিন দশক পর ক্ষমতাচ্যুত সুদানের প্রেসিডেন্ট বশির | বিশ্ব | DW | 11.04.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

সুদান

তিন দশক পর ক্ষমতাচ্যুত সুদানের প্রেসিডেন্ট বশির

সেনাবাহিনীর কাছে ক্ষমতাচ্যুত হলেন তিন দশক আগে অভ্যুত্থানের মাধ্যমে সুদানের প্রেসিডেন্ট পদ দখলকারী ওমর আল বশির৷

তিন দশক আগে ওমর আল বশিরও অভ্যুত্থানের মাধ্যমে সুদানের প্রেসিডেন্ট পদ দখল করেছিলেন

তিন দশক আগে ওমর আল বশিরও অভ্যুত্থানের মাধ্যমে সুদানের প্রেসিডেন্ট পদ দখল করেছিলেন

প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে টানা বিক্ষোভের মধ্যে বৃহস্পতিবার সুদানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ও ভাইস প্রেসিডেন্ট আওয়াদ ইবনে আউফ জানান, সেনাবাহিনী দেশটির ক্ষমতা দখল এবং বশিরকে গ্রেপ্তার করেছে

রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে এক ভাষণে সামরিক পোশাক পরিহিত আওয়াদ ইবনে আউফ বলেন, ‘‘দুই বছর পর অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে৷ এই সময়ের জন্য অন্তর্বর্তীকালীন সামরিক পরিষদ গঠন করা হবে৷''

আগামী তিন মাসের জন্য সুদানে জরুরি অবস্থা জারির পাশাপাশি অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য রাতে কারফিউ জারি থাকবে বলে জানান প্রতিরক্ষামন্ত্রী আওয়াদ৷

একইসঙ্গে সংবিধান স্থগিতের পাশাপাশি দেশের সীমান্ত ও আকাশপথ অনির্দিষ্টকাল বন্ধ থাকার ঘোষণা সেনাবাহিনী দিয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি৷

১৯৮৯ সালে রক্তপাতহীন অভ্যুত্থানের মাধ্যমে সুদানের ক্ষমতা দখল করেন বশির৷ সুদানের দারফুরে কয়েক বছরের সংঘাতে তিন লাখ মানুষ নিহত হওয়ার পর আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে অভিযুক্ত হন ৭৫ বছর বয়সি এই নেতা৷

Sudan Militär und Demonstranten in Khartoum

সুদানের সেনাবাহিনী দেশটির ক্ষমতা দখল এবং প্রেসিডেন্ট বশিরকে গ্রেপ্তার করেছে

অতি মাত্রায় মূল্যস্ফীতির মধ্যে হঠাৎ করে রুটির দাম বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে গত ডিসেম্বরে রাজধানী খার্তুমসহ সুদানের বিভিন্ন এলাকায় বিক্ষোভ শুরু হয়৷ বশির সরকারের অব্যবস্থাপনাকে খাদ্য সংকট ও প্রায় ৭০ ভাগ মূল্যস্ফীতির জন্য দায়ী করেন বিক্ষোভকারীরা৷

এরপর দ্বিতীয় দফায় গত শনিবার থেকে রাজধানী খার্তুমের সেনা সদর দপ্তরের সামনে টানা বিক্ষোভ শুরু করে হাজার হাজার মানুষ৷ বশিরকে ক্ষমতাচ্যুত করতে সেনা হস্তক্ষেপের দাবি জানানো হয়েছিল ওই বিক্ষোভ থেকে

প্রেসিডেন্টের বাসভবন এলাকায় ওই বিক্ষোভের মধ্যে মঙ্গলবার সংঘর্ষে ছয় জন সেনা সদস্যসহ ১১ জন নিহত হন৷ ডিসেম্বর থেকে এই বিক্ষোভ-সংঘর্ষে সুদানে অর্ধ-শতাধিক নিহত হয়েছেন৷

নানা জল্পনা-কল্পনার মধ্যে বৃহস্পতিবার সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে ‘জরুরি ঘোষণা' আসার খবর আসে বিভিন্ন মাধ্যমে৷ শেষ পর্যন্ত বশির সরকারেরই প্রতিরক্ষামন্ত্রী সেনাবাহিনীর সিদ্ধান্তগুলোর ঘোষণা দেন৷

বশিরের ৩০ বছরের শাসনামলে নানামুখী আন্তর্জাতিক চাপে ছিল সুদান৷ ১৯৯৩ সালে যুক্তরাষ্ট্র সরকার ‘সন্ত্রাসের মদদদাতা' তালিকায় অন্তর্ভূক্ত করে তাঁর সরকারকে৷ এর চার বছর পর সুদানের উপর অবরোধ আরোপ করে ওয়াশিংটন৷

এমবি/জেডএইচ (রয়টার্স, ডিপিএ, এপি, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন