তিউনিসিয়ার বেন আলি ও তাঁর স্ত্রীকে ৩৫ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে | বিশ্ব | DW | 21.06.2011
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

তিউনিসিয়ার বেন আলি ও তাঁর স্ত্রীকে ৩৫ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে

আরব বিশ্বের আন্দোলন প্রথমে শুরু হয়েছিল তিউনিসিয়ায়৷ ফলে সেদেশের সাবেক প্রেসিডেন্ট বেন আলিকেই প্রথমে ক্ষমতা ছাড়তে হয়েছে৷ এবার আবারও তিনি প্রথম হলেন৷ তাঁর বিরুদ্ধে দেয়া হয়েছে ৩৫ বছরের কারাদণ্ডের রায়৷

epa02779510 (FILE) A file photograph dated 13 December shows the former Tunisian President Zine El Abidine Ben Ali at the airport Tunis-Carthage in Tunis, Tunisia. According to media reports on 13 June 2011, Tunisia's ousted ex-leader Zine el-Abidine Ben Ali and his wife Leila will be trialed in absentia on 20 June 2011. Ben Ali fled to Saudi Arabia after he was toppled by mass protests on 14 January after 23 years in power. EPA/STR +++(c) dpa - Bildfunk+++ usage Germany only, Verwendung nur in Deutschland

বেন আলি

অভিযোগ - চুরি ও ঘরে বিশাল অংকের অর্থ ও গয়না রাখা৷

রায়ের বিস্তারিত

বেন আলির বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে মোট ৯৩টি৷ একে একে সেগুলোর বিচার করা হবে৷ সেই প্রক্রিয়াই শুরু হয়েছে৷ প্রথমে চুরির মামলার রায় হলো৷ আগামী ৩০ তারিখে হবে অবৈধভাবে অস্ত্র ও মাদক রাখার মামলার রায়৷ একজন বিচারক বলছেন ৩৫ বছরের যে কারাদণ্ডের রায় হয়েছে সেটা এ ধরণের অপরাধের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ সাজা৷ এছাড়া সাড়ে ৬৫ মিলিয়ন ডলারেরও বেশি জরিমানা করা হয়েছে বেন আলি ও তাঁর স্ত্রীকে৷

বেন আলির প্রতিক্রিয়া

রায় নিয়ে বেন আলির কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি৷ তবে বিচারকাজ শুরুর আগে তিনি তাঁর আইনজীবীর মাধ্যমে একটি বিবৃতি দিয়েছেন৷ তাতে তিনি তাঁর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন৷ তাঁর কাছে থাকা অবৈধ অস্ত্র সম্পর্কে তিনি বলেন,

Judge Touhami Hafi gestures, at the Tunis Criminal Court, in Tunis, Monday, June 20, 2011, for the hearing of the two embezzlement cases of money laundering and drug trafficking, against Zine El Abidine Ben Ali , Tunisia's former autocratic ruler. Tunisia's former autocratic ruler, whose ouster triggered a series of Arab world uprisings, went on trial in absentia Monday in the first of what will likely be a long series of court proceedings five months after he went into exile. The Tunis Criminal Court is hearing two embezzlement, money laundering and drug trafficking cases against Zine El Abidine Ben Ali. It follows the discovery of around $27 million in jewels and cash plus drugs and weapons at two palaces outside Tunis after he flew to Saudi Arabia on Jan. 14. Ben Ali, 74, vigorously denied the charges in a statement through his French lawyer, calling the proceedings a shameful masquerade of the justice of the victorious. (Foto:Hassene Dridi/AP/dapd)

রায় দেয়া হচ্ছে

বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধানরা এসব অস্ত্র তাঁকে উপহার হিসেবে দিয়েছিল৷ আর যে গয়না পাওয়া গেছে সেগুলো বিদেশি অতিথিরা তাঁর স্ত্রীকে উপহার হিসেবে দিয়েছে, এমনটাই বলতে চেয়েছেন বেন আলি৷ এছাড়া বাসায় পাওয়া যাওয়া অর্থ সম্পর্কে তিনি বলেছেন যে, তাঁকে ফাঁসানোর জন্য ইচ্ছে করে তাঁর চলে যাওয়ার পর বাসায় ঐ অর্থগুলো রাখা হয়েছে৷ তিনি নিজে তিউনিসিয়া ছাড়তে চাননি বলেও ঐ বিবৃতিতে দাবি করেছেন৷

কীভাবে সৌদি আরব গেলেন?

তিনি বলছেন তাঁকে কৌশলে সরিয়ে দেয়া হয়েছে৷ বেন আলি বলেন তাঁর বিরুদ্ধে চলা বিক্ষোভের সময় নিরাপত্তার খাতিরে তিনি তাঁর স্ত্রী ও সন্তানদের বিমান করে সৌদি আরবে রেখে আসতে গিয়েছিলেন৷ সৌদিতে নামার পর তিনি বিমানের পাইলটকে বলেছিলেন অপেক্ষা করতে৷ কারণ তিনি ফিরে যাবেন৷ কিন্তু পাইলট তাঁর নির্দেশ অমান্য করে আবার তিউনিসিয়ায় ফিরে যায়৷

তিউনিসিয়ার আন্দোলন

বিশ্ববিদ্যালয় পাশ করা এক ছেলে বেকারত্বের জ্বালা সইতে না পেরে আত্মহত্যা করে৷ পরবর্তীতে এই ঘটনা সাধারণ জনগণের মনে ক্ষোভের আগুন ঢেলে দেয়৷ ফলে শুরু হয় দেশজুড়ে ব্যাপক বিক্ষোভ৷ ফলে প্রায় তিন সপ্তাহ পর দেশ ছেড়ে পালিয়ে চলে যেতে হয় তাঁকে৷ সেটা জানুয়ারি ১৪ তারিখের কথা৷

প্রতিবেদন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম

বিজ্ঞাপন