তালেবান ঠেকাতে আফগান বাহিনীর রণকৌশল বদল | বিশ্ব | DW | 23.07.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

আফগানিস্তান

তালেবান ঠেকাতে আফগান বাহিনীর রণকৌশল বদল

তালেবানের কাছে কয়েকটি বড় পরাজয়ের পর কৌশল পালটাচ্ছে আফগান বাহিনী৷ আফগান ও মার্কিন কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, কাবুলের মতো কিছু গুরুত্বপূর্ণ শহর, সীমান্ত চেকপোস্ট এবং অবকাঠামোকে কেন্দ্র করে সেনা মোতায়েন করার কথা ভাবছে সরকার৷

এমন কৌশলের ফলে অন্য অনেক অঞ্চল তালেবানের হাতে চলে যাওয়ার সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে৷ কিন্তু কর্মকর্তারা মনে করছেন, বিভিন্ন প্রদেশের রাজধানীকে রক্ষার মাধ্যমে দেশটিতে বিভাজন এড়াতে এর বিকল্প নেই৷

এর আগে কৌশল পালটানো বিষয়ে ধারণা পাওয়া গেলেও এত বিস্তারিত জানা যায়নি৷ ৩১ আগস্টের আগে দেশটি থেকে সব সৈন্য প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন৷ এর আগেই এই নতুন কৌশল কার্যকর করতে চায় আফগান সরকার৷ বার্তাসংস্থা রয়টার্স এক বিশেষ প্রতিবেদনে জানিয়েছে এসব তথ্য৷

তালেবান এরই মধ্যে আফগানিস্তানের অনেক অঞ্চলের দখল নিয়েছে৷ পেন্টাগন বুধবার জানিয়েছে, দেশটির অর্ধেকের বেশি জেলা এখন তালিবানের নিয়ন্ত্রণে৷ অর্ধেকেরও বেশি প্রাদেশিক রাজধানীকে কাবুল থেকে বিচ্ছিন্ন করতে ব্যাপক চাপ প্রয়োগও করছে তালেবান৷

মার্কিন কর্মকর্তাদের বরাতে রয়টার্স জানিয়েছে, গোয়েন্দাদের ধারণা ছয় মাসের মধ্যে আফগান সরকারের পতনও ঘটতে পারে৷

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক আফগান কর্মকর্তা বার্তাসংস্থাটিকে জানিয়েছেন, দেশজুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা সেনাসদস্যদের অল্প কিছু জায়গায় জড়ো করলে কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ এলাকা এবং অবকাঠামো (যেমন ভারতের সহায়তায় নির্মিত একটি বাঁধ) এবং মহাসড়কের নিয়ন্ত্রণ ধরে রাখা সম্ভব হবে৷

কিন্তু বিশেষ বিশেষ জায়গায় সেনা জড়ো করার মানে হচ্ছে অন্য এলাকাগুলোকে অরক্ষিত রেখে দেয়া এবং সেসব এলাকার বাসিন্দা বা আদিবাসী জনগোষ্ঠীকে তালিবানের হাতে ছেড়ে দেয়া৷ আফগান কর্মকর্তা বলছিলেন, ‘‘এই সিদ্ধান্ত মানুষের সামনে কীভাবে তুলে ধরবেন? স্বাভাবিকভাবেই মানুষ খুব ভীত৷ একের পর এক অঞ্চলের দখল নিচ্ছে তালিবান৷''

মার্কিন জেনারেল মার্ক মাইলি বলেছেন, তালিবান ‘কৌশলগতভাবে এগিয়ে রয়েছে'৷ নতুন কৌশলে জেলার কেন্দ্র সমর্পণ করে কাবুলের মতো বেশি জনসংখ্যার কেন্দ্রগুলোতে বেশি নজর দেয়ার কতা ভাবা হচ্ছে৷ বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানিয়েছেন, ‘‘তালিবানের পুরোপুরি ক্ষমতা দখল বা অন্য যেকোনো কিছুই ঘটতে পারে৷ শেষ পর্যন্ত কী হবে, তা এখনও নিশ্চিত নয়৷''

মার্কিন মেরিন জেনারেল কেনেথ ম্যাকেঞ্জি মার্কিন কেন্দ্রীয় কমান্ডের কমান্ডারের দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি আফগানিস্তানে মার্কিন সেনাবেহিনী এবং আফগান বাহিনীর সহায়তার বিষয়টি দেখভাল করেন৷ তিনি বলেন, ‘‘সবকিছু রক্ষা করা সম্ভব নয়৷ সব জায়গাকে রক্ষা করতে গেলে কিছুই রক্ষা করা সম্ভব হবে না৷ ফলে আমার মনে হয় আফগানরা এ বিষয়টি বুঝতে পেরেই সেনা জড়ো করছে৷''

কৌশলগতভাবে অগুরুত্বপূর্ণ এবং ঝুঁকিপূর্ণ বিভিন্ন এলাকায় চেকপয়েন্টে সেনা মোতায়েন নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র অনেক আগে থেকেই উদ্বেগ প্রকাশ করে আসছে৷ সেদিকে ইঙ্গিত করে ম্যাকেঞ্জি বলেন, ‘‘আমার মনে হয় এখন তারা বিষয়টি বুঝতে পেরেছে যে সেনা সদস্যদের একত্রিত করা দরকার৷ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এলাকা সর্বোচ্চ শক্তি দিয়ে রক্ষা করা দরকার৷''

নতুন রণকৌশল বিষয়ে জানতে আফগান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের যোগাযোগ করা হলেও কোনো সাড়া মেলেনি বলে জনিয়েছে রয়টার্স৷

এডিকে/কেএম (রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন