তাজমহল এবার বাংলাদেশে | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 07.12.2008
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

সমাজ সংস্কৃতি

তাজমহল এবার বাংলাদেশে

বিখ্যাত তাজমহলের নাম তো সকলে জানে৷ কিন্তু মোগল সম্রাট শাহজাহানের অমর কীর্তি এ তাজমহলকে সামনাসামনি দেখার সৌভাগ্য কয়জনেরই বা হয়ে থাকে? এবার বাংলাদেশের চিত্র পরিচালক আহসানুল্লাহ মনি তেমনই এক সুযোগ করে দিতে যাচ্ছেন৷

সম্রাট শাহজাহানের প্রেমের নিদর্শন তাজমহল

সম্রাট শাহজাহানের প্রেমের নিদর্শন তাজমহল

কথায় আছে দুধের সাধ ঘোলে মেটানো৷ আহসানুল্লাহ মনির উদ্যোগটিও তেমনই৷ ভারতের আগ্রার তাজমহল দেখার শখ যারা মেটাতে পারেননি তারা ঢাকার অদুরে গিয়ে দেখে আসতে পারেন আহসানুল্লাহ মনির তাজমহল৷ যারা আগেই তাজমহল দেখেছেন তারা হয়তো আহসানুল্লাহ মনির তাজমহল দেখে অবাক হতে পারেন৷ কারণ হুবহু একই রকম৷ আকৃতি তো বটেই এমনকি পাথরের দেয়াল সহ সব জায়গাতে রয়েছে দুই তাজমহলের অসাধারণ মিল৷


এরকম একটি উদ্যোগের কারণ সম্পর্কে মনি বলেন, প্রত্যেকেই চায় আগ্রার তাজমহল দেখতে কিন্তু অনেক বেশী খরচের কারণে খুব কম বাংলাদেশীই এ সুযোগ পায়৷ সম্রাট শাহজাহান তার প্রিয়তম স্ত্রীকে ভালোবেসে তাজমহল করেছিলেন৷ আর আমার এই নতুন তাজমহল সম্রাট শাহজাহানের প্রতি ভালোবাসা থেকে৷ তার এই নতুন তাজমহল কেবল বাংলাদেশ নয়, বিদেশ থেকেও পর্যটকদের টেনে আনবে বলে আশা করেন মনি৷

Eintritt zum Königspalast Taj Mahal

এবার হয়তো পর্যটকরা বাংলাদেশেও ছুটে আসবে তাজমহল দেখতে


নতুন এই তাজমহল তৈরীতে খরচ হয়েছে ৫৮মিলিয়ন ডলার৷ পাঁচ বছর লেগেছে এটি নির্মাণ করতে৷ মনি বলেন, আমরা নির্মাণ কাজে যন্ত্র ব্যবহার করেছি বলে সময় কম লেগেছে নইলে এটিও হয়তো তৈরী করতে আসল তাজমহলের মত ২০ বছর সময় লেগে যেতো৷ এ কাজের জন্য ভারত থেকে ছয়জন বিশেষজ্ঞ নিয়ে এসেছেন মনি৷ তারা প্রথমে আগ্রার তাজমহলের পুরো মাপজোক নিয়ে এসেছেন৷ তারপর এখানে এসে হুবহু একই তাজমহল নির্মাণ শুরু করেন৷ এছাড়া ইতালি থেকে নিয়ে আসা হয়েছে মার্বেল ও গ্রানাইট পাথর এবং বেলজিয়াম থেকে হীরা৷ নতুন তাজমহলের গম্বুজটি বানাতে ১৬০ কেজি তামা ব্যবহার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশের অন্যতম চিত্র পরিচালক মনি৷


রুপময় বাংলাদেশের যাত্রা

একদিকে যখন চলছে নতুন তাজমহল নির্মান তখন বাংলাদেশের তত্ত্বাবধায়ক সরকার চালু করলো রুপময় বাংলাদেশ এর৷ বাংলাদেশের পর্যটন শিল্পকে তুলে ধরতে এখন এটিই হবে স্লোগান৷ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান উপদেষ্টা ড. ফখরুদ্দিন আহমেদ রোববার এই নতুন ব্রান্ডিং উদ্বোধন করেন ৷

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন