তাইওয়ানকে চীনের অংশ বলায় কাতারের সমালোচনা | বিশ্ব | DW | 15.06.2022

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

তাইওয়ান

তাইওয়ানকে চীনের অংশ বলায় কাতারের সমালোচনা

ফুটবল বিশ্বকাপের আয়োজক কাতার তাদের এক ওয়েবসাইটে তাইওয়ানকে চীনের অংশ বলে উল্লেখ করেছে৷ সে কারণে বুধবার কাতারের সমালোচনা করেছে তাইওয়ান৷

যারা বিশ্বকাপের টিকিট কেটেছেন তাদের সবাইকে ‘হায়া' কার্ডের জন্য আবেদন করতে হচ্ছে৷ কারণ এই কার্ড কাতারের ভিসা হিসেবে কাজ করবে৷ মঙ্গলবার এই কার্ডের আবেদন সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইটের জাতীয়তা অংশের ড্রপ-ডাউন তালিকায় তাইওয়ানের নাম ছিল না৷ এর কারণ হিসেবে কাতারের এক কর্মকর্তা তাইওয়ানের নাগরিকদের চীনা হিসেবে বিবেচনা করা হবে বলে জানিয়েছিলেন৷ এরপর বুধবার ওয়েবসাইটে ‘তাইওয়ান, চীনা রাজ্য' এই শব্দগুলো যুক্ত করা হয়৷ সঙ্গে তাইওয়ানের পতাকা ব্যবহার করা হয়৷ কিন্তু ঐ শব্দগুলোও তাইওয়ানের নাগরিকদের ক্ষুব্ধ করে৷

এর প্রতিক্রিয়ায় বুধবার তাইওয়ানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জোয়ানে উ বলেন, ‘‘আমাদের দেশকে খাটো করার চেষ্টা মেনে নেয়া যায় না''৷ তারা আয়োজকদের সঙ্গে যোগাযোগ করে অবিলম্বে বিষয়টি সংশোধনের চেষ্টা করছেন বলেও জানান তিনি৷

কাতারের আয়োজকদের একটি ‘সুন্দর বিশ্বকাপ ফুটবল' উপহার দেয়ার আহ্বান জানান উ৷ কোনো ‘অসঙ্গত রাজনৈতিক উপাদান' যেন বিশ্বকাপ আয়োজনে প্রভাব ফেলতে না পারে সেই দাবিও জানান তিনি৷

এ ব্যাপারে কাতারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে৷ তবে এখনও প্রতিক্রিয়া জানা যায়নি৷

বিশ্বের বেশিরভাগ দেশের মতো কাতারের সঙ্গে তাইওয়ানের কোনো কূটনৈতিক সম্পর্ক নেই৷

বেইজিংয়ের সঙ্গে রাজনৈতিক সমস্যা এড়াতে অলিম্পিকের মতো প্রতিযোগিতায় ‘চাইনিজ তাইপে' নামে অংশ নিয়ে থাকেন তাইওয়ানের অ্যাথলিটরা৷

সাম্প্রতিক সময় সরকারি নথিপত্র ও ওয়েবসাইটে তাইওয়ানকে চীনের অংশ হিসেবে উল্লেখ করতে বিভিন্ন দেশ ও কোম্পানির প্রতি চাপ প্রয়োগ করে আসছে চীন৷ এক্ষেত্রে ‘তাইওয়ান, চীনা রাজ্য', ‘তাইওয়ান, চীন' এসব শব্দ ব্যবহার করতে বলা হচ্ছে৷

জেডএইচ/কেএম (রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন