ড. জাফর ইকবালের মেয়ের হৃদয়স্পর্শী লেখা | বিশ্ব | DW | 07.03.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ব্লগওয়াচ

ড. জাফর ইকবালের মেয়ের হৃদয়স্পর্শী লেখা

ড. জাফর ইকবালের কন্যা ইয়েশিম ইকবাল তাঁর বাবার ওপর হামলার প্রতিক্রিয়া জানিয়ে ব্লগ লিখেছেন৷ তাঁর সেই ব্লগটি এরই মধ্যে অনেকেই শেয়ার করছেন এবং তা নিয়ে মন্তব্য করছেন৷

ইয়েশিম ইকবাল লিখেছেন যে, তাঁর খুব অস্বস্তি ও দু:খ হচ্ছে যে বাংলাদেশ নিরাপদ নেই৷ যে প্রাঙ্গনে তিনি বড় হয়েছেন, সেই বিশ্ববিদ্যালয়ের রোবোটিক্স প্রতিযোগিতার সময় তাঁর বাবার ওপর ছুরি নিয়ে হামলা হয়েছে৷ অনেকেই তাঁকে প্রশ্ন করেছেন যে, কেন এই দেশ ছেড়ে তিনি বা তাঁর পরিবার চলে যাচ্ছেন না?

তিনি এসবের প্রতিক্রিয়ায় লিখেছেন, ‘‘আমি কিছু কথা বলতে চাই৷ আমি ঠিক জানি বাবা সুস্থ হওয়র পর এই কথাগুলিই বলবেন৷ দেখুন, আপনি আশাহীন হয়ে থাকতে পারেন না৷ আপনি কিংবা আপনার দেশের জন্য যা কিছু ভালো, যা কিছু সুন্দর তার জন্য লড়াই থামিয়ে দিতে পারেন না৷''

ইয়েশিম লিখেছেন, ‘‘কোনোকিছুই সহজে আসেনি৷ আজ এই পৃথিবীতে আপনি যতটুকুই উপভোগ করছেন– স্বাধীনভাবে চলার জন্য একটি রাস্তা, খাবার, চিকিৎসা, স্কুলে যাবার অধিকার, ভোট দেয়ার অধিকার, কাজ করে অর্থ আয়ের সুযোগ, অথবা রিক্সায় করে ঘুরে বেড়ানো এবং প্রিয়জনের সঙ্গে ফুচকা খেয়ে পেট খারাপ করা –এ সবই করতে পারছেন, কারণ, কেউ আপনার আগে এই পৃথিবীতে এসেছিলেন...  কাউকে এর জন্য যুদ্ধ করতে হয়েছিল একটু একটু করে, দিনের পর দিন, বছরের পর বছর৷ এই যুদ্ধ আমার বাবা-মা, আমি, আপনি আমাদের মতো মানুষেরাই করেছেন৷ তাঁরা আমাদের যা দিয়ে গেছেন, তা উপভোগ করা আমাদের অধিকার ও দায়িত্ব৷ আর সেই সঙ্গে এ-ও দায়িত্ব যে, আমরা যেন এই যুদ্ধ চালিয়ে যাই৷ তাতে করে আমাদের সন্তানেরা এর ফল ভোগ করতে পারবে৷''

তিনি লিখেছেন যে, যখন এই পথচলা কঠিন হবে, তখন বড় করে একটা নিঃশ্বাস নিতে হবে৷ এরপর মাথা উঁচু করে জেদী হয়ে এগিয়ে যেতে হবে সামনে৷ এই যুদ্ধে যাঁরা স্বজন হারিয়েছেন, তাঁদের কথাও লিখেছেন ইয়েশিম ইকবাল৷

দেশ ছেড়ে তিনি কেন চলে যাবেন না, তা জানাতে গিয়ে তিনি আরো লিখেছেন, ‘‘আমি এই দেশে থাকি, কারণ আমি তা-ই পছন্দ করি৷ আমার কাছে এই দেশ মানে এ ধরনের কলঙ্কিত ঘটনাগুলো নয়৷ এই ঘটনা এবং যারা এসব ঘটাচ্ছে, তারা এই দেশের জন্য সমস্যা, যে সমস্যা নিয়ে অতি দ্রুত কাজ করা দরকার৷'' 

‘‘এ ধরনের মানুষগুলো ছত্রাকের মতো'' উল্লেখ করে ইয়েশিম বলেন, ‘‘এগুলো গজিয়েছে কারণ, ঠিকমতো পরিষ্কার করা হয়নি৷''

তাঁর বাবার হামলার পর সবাই যেভাবে এগিয়ে এসেছেন তার জন্য কৃতজ্ঞতা জানিয়ে পরিশেষে ইয়েশিম ইকবাল লিখেছেন, ‘‘কোনো ভুল হবে না৷ আমরা কোথাও যাচ্ছি না৷''

তাঁর এই পোস্টের প্রতিক্রিয়ায় অনেকেই উজ্জীবিত হয়েছেন৷ ফেসবুক টু্ইটারে পোস্ট দিয়েছেন৷ ফেসবুকে অনিক লিখেছেন, ‘‘অসম্ভব পাওয়ারফুল মেসেজ৷ বাবা, জাফর ইকবালকে হত্যার হুমকি দেয়া হচ্ছে অনেক আগে থেকে, এবার সরাসরি হত্যার চেষ্টা৷ উনাদের জন্য চলে যাওয়াটা খুব সহজ, তবু এই সময় উনি শিরদাঁড়া সোজা করে বললেন, ‘‘we are not going anywhere''

 নাসরিন শাপলা লিখেছেন, ‘‘লেখাটার মাঝের পজিটিভিটি আর ইয়েশিমের র‍্যাশনাল চিন্তা ভাবনার ক্ষমতা আমাকে মুগ্ধ করেছে৷''

টুইটারে বিপাশা এস. হোসেইন পোস্ট দিয়ে বব মার্লির একটি খুব শক্তিশালী একটি গানের কথা লিখেছেন, ‘‘The people who were trying to make this world worse are not taking the day off. Why should I?''

রাফি শামসও পোস্টটি টুইট করে লিখেছেন, ‘‘বাপের বেটি!''

ফখরুজ্জামান লিখেছেন,  ‘‘আমাদের পরবর্তী প্রজন্মের এক মুক্তিযোদ্ধার চমৎকার চিন্তাভাবনা৷ বাপকা বেটি!''

সংকলন: যুবায়ের আহমেদ

সম্পাদনা: আশীষ চক্রবর্ত্তী

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

সংশ্লিষ্ট বিষয়