ডর্টমুন্ডে ব্যবহৃত বিস্ফোরক জার্মান সেনাবাহিনীর? | বিশ্ব | DW | 17.04.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

ডর্টমুন্ডে ব্যবহৃত বিস্ফোরক জার্মান সেনাবাহিনীর?

জঙ্গি হামলায় সমর্থন জানানোয় তিন জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ৷ এছাড়া জার্মান একটি দৈনিকের দাবি, ডর্টমুন্ডের বিস্ফোরণে সেনাবাহিনীর গুদামের বিস্ফোরক উপাদান ব্যবহার করা হয়েছে৷ আরেক দৈনিক জানিয়েছে নতুন হুমকির খবর৷

গত ফেব্রুয়ারিতে এক সালাফিস্টকে গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ৷ জিজ্ঞাসাবাদে ওই ব্যক্তি জানিয়েছেন, ঘরে তৈরি বোমা নিয়ে পুলিশ এবং সেনাবাহিনীর ওপর  হামলা চালানোর পরিকল্পনা ছিল তার৷ তিনি আরো জানান, এ পরিকল্পনাকে সফল করার জন্য তিনজন তাকে সমর্থন দিচ্ছিলেন৷ এ বক্তব্যের ভিত্তিতেই দুই তরুণ এবং এক তরুণীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ৷ জার্মানির তিনটি শহর থেকে গ্রেপ্তার করা হয় তাদের৷ দু'জনকে নর্থ রাইন ওয়েস্টফেলিয়া রাজ্যের দুই শহর কোলন এবং বুন্ডে থেকে আর অন্যজনকে গ্রেপ্তার করা হয় লোয়ার স্যাক্সনি রাজ্যের হিল্ডেসহাইম থেকে৷ পুলিশ জানিয়েছে, আটক তিনজনের একজন আফগান, একজন তুর্কি এবং আরেকজন জার্মান বংশোদ্ভূত৷

গত ডিসেম্বরে বার্লিনের ক্রিসমাস মার্কেটে ট্রাক হামলায় ১২ জন নিহত হওয়ার পর থেকে সতর্কাবস্থায় রয়েছে জার্মান পুলিশ৷ এরই মাঝে গত মঙ্গলবার ডর্টমুন্ড বনাম মোনাকোর চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ম্যাচের আগে ডর্টমুন্ডের টিম বাসের কাছে বোমা বিস্ফোরিত হয়৷

রবিবার ‘ডি ভেল্ট'-এর রবিবাসরীয় আয়োজন ‘ভেল্ট আম সনটাগ'-এর এক প্রতিবেদনে ডর্টমুন্ড বিস্ফোরণের তদন্তকারীদের এক সূত্রকে উদ্ধৃত করে চাঞ্চল্যকর এক খবর দিয়েছে৷ সূত্র পত্রিকাটিকে জানান, ডর্টমুন্ডে বিস্ফোরিত পাইপ বোমায় যে ধাতব পিন ব্যবহার করা হয়েছে, তা সেনাবাহিনীর গুদাম থেকে নেয়া হয়ে থাকতে পারে৷ তিনি আরো জানান, সেনাবাহিনীর ডিটোনেটরগুলো বিশেষজ্ঞের জ্ঞান ছাড়া ব্যবহার করা সম্ভব নয়৷

‘ভেল্ট আম সনটাগ'-এর খবরে আরো বলা হয়, পুলিশ সাম্প্রতিক সময়ে আরো হামলার আশঙ্কা করছে৷ সপ্তাহান্তে বুন্দেসলিগার ফুটবল ম্যাচগুলোতে তাই নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছিল৷ হামলার আশঙ্কায় রক কনসার্ট এবং অন্যান্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেও বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হচ্ছে৷

এর আগে ‘টাগেসস্পিগেল' পত্রিকা জানায়, অজ্ঞাতনামা এক ব্যক্তি তাদের কাছে ই-মেল পাঠিয়ে ডর্টমুন্ড হামলার দায় স্বীকার করেছে৷ বার্লিনভিত্তিক পত্রিকাটির দাবি, মেল প্রেরণকারী আরো লিখেছে, আগামী ২২ এপ্রিল কোলন শহরে আরেকটি হামলা চালানো হবে৷ কোলনে সেদিন অভিবাসীবিরোধী ডানপন্থি দল এএফডি-র ব়্যালি হওয়ার কথা৷

এসিবি/ডিজি (এএফপি, এপি, ডিপিএ, রয়টার্স)

 

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন