ট্রাম্পের সহযোগীর বিরুদ্ধে ভোট কারচুপির কাহিনি সাজানোর অভিযোগ | বিশ্ব | DW | 22.12.2021

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্র

ট্রাম্পের সহযোগীর বিরুদ্ধে ভোট কারচুপির কাহিনি সাজানোর অভিযোগ

ট্রাম্পের পক্ষে প্রচারে অংশ নেয়া এক ব্যক্তির মুখে উঠে এসেছে এই অভিযোগ৷ রয়টার্সকে তিনি বলেছেন,  জর্জিয়ার এক সভায় এক নির্বাচন কর্মীকে ভোটে কারচুপি হয়েছে- এমন কথা স্বীকার করার জন্য চাপ দেয়া হয়েছিল৷

US Wahl 2020 Wahllokal in Atlanta

ফাইল ফটো

২০২০ সালের ৩ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোট গ্রহণের পর ডোনাল্ড ট্রাম্প ও তার অনুসারীদের পক্ষ থেকে ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ তোলা হয়৷ দাবি করা হয়, আটলান্টার স্টেট ফার্ম অ্যারেনায় ভোট গণনার এক ভিডিওতে রুবি ফ্রিম্যান, তার মেয়ে ওয়ান্ড্রিয়া 'শায়ে' মস এবং ফুলটন কাউন্টির আরেক নির্বাচন কর্মীকে ভোট কারচুপিতে অংশ নিতে দেখা গেছে৷ অভিযোগে বলা হয়, ফ্রিম্যান ও তার মেয়ে একটি ব্রিফকেস থেকে কতগুলো নকল ব্যালট পেপার বের করে সেগুলো কয়েক দফা গণনা করেছেন৷ আরো দাবি করা হয়, এভাবে ১৮০০০ জাল ভোট দিয়ে জর্জিয়ায় ট্রাম্পকে হারানো হয়েছে৷ এর ফলে ট্রাম্প সমর্থকদের মাঝে তীব্র ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে৷ ফ্রিম্যান ও তার মেয়েকে নানাভাবে হয়রানি করা হয়, হত্যার হুমকিও দেয়া হয় তাদের৷

প্রতিবেদনে ট্রাম্পের সহযোগী হিসেবে তুলে ধরা এক ব্যক্তির বক্তব্যে উঠে এসেছে নির্বাচনের এক মাস পর, অর্থাৎ, ২০২০ সালের ৪ ডিসেম্বর গভীর রাতের এক বৈঠকের কথা৷ ‘ব্ল্যাক ভয়েস ফর ট্রাম্প'-এর এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর হ্যারিসন ফ্লয়েড সোমবার রয়টার্সকে বলেন, সেদিন শিকাগোর ট্রেভিয়ান কুট্টিকে আটলান্টায় গিয়ে রুবি ফ্রিম্যানের সঙ্গে কথা বলতে বলেছিলেন তিনি৷ ৬২ বছর বয়সি রুবি ফ্রিম্যান অস্থায়ী নির্বাচন কর্মী৷ হ্যারিসন ফ্লয়েডের দাবি, তারপর জর্জিয়ার কোব কাউন্টির পুলিশ স্টেশনে রুবি ফ্রিম্যানের সঙ্গে ট্রেভান কুট্টির কথা হয়৷ তাদের সেই কথোপকথনে ফ্লয়েডও নাকি টেলিফোনে যুক্ত হয়েছিলেন৷

সেদিন কুট্টির সঙ্গে ট্রাম্পের দলের নেতা গ্যারিসন ডগলাসকেও যেতে বলেছিলেন এবং তার অনুরোধে ডগলাসও সেখানে গিয়েছিলেন বলে ফ্লয়েড জানান৷

তবে সোমবার এক বিবৃতিতে ফ্রিম্যানকে ভোট কারচুপিতে অংশ নেয়ার অভিযোগ স্বীকারের জন্য চাপ দেয়ার বিষয়ে অজ্ঞতা প্রকাশ করে ডগলাস বলেন, ‘‘৪ জানুয়ারি আমি কর্মহীন ছিলাম৷ স্বেচ্ছাসেবক চালক হিসেবে কাজ করার অনুরোধ জানানো একটি ফোন পেয়ে আমি সেখানে গিয়েছিলাম৷ এই কাজ আমি অতীতেও বহুবার করেছি৷ গাড়ি চালানো ছাড়া সেখানে আমার কোনো ভূমিকা ছিল না৷''

রয়টার্সের কাছে ফ্লয়েড আরো দাবি করেন, কেন্দ্রীয় আইন প্রয়োগ সংস্থার সঙ্গে যুক্ত এক ব্যক্তি ফোন করে এমন একটি বৈঠকের ব্যবস্থা করার অনুরোধ জানিয়েছিলেন৷ ওই ব্যক্তি নিজের নাম বলেছিলেন চ্যাপলেইন৷ ফ্লয়েডের দাবি, চ্যাপলেইন নিজে শ্বেতাঙ্গ, তাই কৃষ্ণাঙ্গ রুবি ফ্রিম্যান তাকে বিশ্বাস করবেন না- এমন ধারণা থেকেই তাকে বৈঠকটি আয়োজনের ব্যবস্থা করতে বলেছিলেন৷ প্রসঙ্গত, ফ্রিম্যানের মতো ফ্লয়েড, ডগলাস এবং কুট্টিও কৃষ্ণা্ঙ্গ৷

তবে ফ্লয়েড আরো দাবি করেন, ২০২০ সালের ৪ জানুয়ারির আগেই তিনি ট্রাম্পের নির্বাচনি প্রচারের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি নিয়েছিলেন৷ রয়টার্সকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি আরো বলেন, ‘‘ট্রাম্প নিজে কখনো আমাকে জর্জিয়ায় যেতে বলেননি৷ ব্ল্যাক ভয়েসেস ফর ট্রাম্প-এর বোর্ড মেম্বারদের সঙ্গেও বিষয়টির কোনো সম্পর্ক নেই৷''

‘ব্ল্যাক ভয়েসেস ফর ট্রাম্প'-এর এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টরের দাবি, তিনি ট্রাম্পের দলের পক্ষ থেকে যে আইনি ব্যবস্থার কথা বলা হচ্ছিল, রুবি ফ্রিম্যানকে তা থেকে মুক্তি দেয়ার জন্যই এমন একটি সভার আয়োজন করেছিলেন৷ রুবি ফ্রিম্যানের আইনজীবী ভন ডুবোস এ বিষয়ে মন্তব্য করতে চাননি৷ তবে এক মুখপাত্রের মাধ্যমে রুবি ফ্রিম্যান জানিয়েছেন, আইনি ব্যবস্থা থেকে রেহাই দেয়ার অনুরোধ কাউকে কখনোই তিনি করেননি৷

এদিকে এক ইন্সটাগ্রাম পোস্টে কুট্টি কারচুপিতে অংশ নেয়ার অভিযোগ স্বীকারের জন্য ফ্রিম্যানকে চাপ দেয়ার অভিযোগ পুরোপুরি অস্বীকার করেছেন৷

এখন রিপাব্লিকান ন্যাশনাল কমিটিতে রয়েছেন ডগলাস৷ এ ঘটনা সম্পর্কে রয়টার্সের সঙ্গে তিনি কথা বলেননি৷

এসিবি/ কেএম (রয়টার্স)