ট্রাম্পের প্রস্তাবে অখুশি কিম, আলোচনা বিফল | বিষয় | DW | 28.02.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ট্রাম্প-উন বৈঠক

ট্রাম্পের প্রস্তাবে অখুশি কিম, আলোচনা বিফল

২০১৮ সালের জুন মাসের পর আবার মুখোমুখি হয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রনেতা কিম জং-উন৷ কিন্তু প্রত্যাশার বিপরীতে আপাতত ব্যর্থ হলো উত্তর কোরিয়ার পরমাণু কর্মসূচি নিয়ন্ত্রণের পরিকল্পনা৷

যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়ার মধ্যে বেশ কয়েক মাস ধরে চলছিল ‘ডিনিউক্লিয়ারাইজেশন' বা পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ বিষয়ে আলোচনা৷ বৃহস্পতিবার ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয়ে অনুষ্ঠিত এই বৈঠকের দিকে তাই ছিল বিশ্বের সংবাদমাধ্যমের নজর৷

এর আগে, দুই দেশের পক্ষেই জানানো হয় যে তারা ইতিবাচক ফল আশা করছেন৷ বৈঠক শেষে ট্রাম্প ও কিমের একটি যৌথ বিবৃতি দেয়ারও কথা ছিল৷

কিন্তু শেষ পর্যন্ত ট্রাম্প একাই সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছেন, কারণ বৈঠকের ফল আশানুরূপ হয়নি৷

কী নিয়ে এই আলোচনা?

হ্যানয়ে দুই দিনব্যাপী বৈঠকের শেষে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, কিম জং-উন উত্তর কোরিয়ার পক্ষে যে সমস্ত দাবি রাখেন, সব মানা যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষে সম্ভব হয়নি৷ সব রকম নিষেধাজ্ঞা তুলে দেয়ার যে দাবি কিম করেন, তা মানতে নারাজ ছিলেন ট্রাম্প৷

এদিকে, উত্তর কোরিয়ার বেশ কিছু স্থান থেকে পরমাণু অস্ত্র সরিয়ে নেয়ার প্রস্তাব দিয়েছিল অ্যামেরিকা৷ উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রনেতা কিম জং-উন এই প্রস্তাব মেনে নিলেও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কাছে তাদের দাবিগুলি ট্রাম্প মেনে নেননি৷ ফলে, ব্যর্থ হয় এই আলোচনা৷

পারমাণবিক শক্তি ছাড়াও আলোচনায় উঠে আসে উত্তর কোরিয়ার মাটিতে এক মার্কিন ছাত্রনিগ্রহের ঘটনা৷ আলোচনা হয় দুই কোরিয়ার মধ্যে সম্পর্ক নিয়েও৷

এই বৈঠক থেকে দুই কোরিয়ার মধ্যে উন্নত সম্পর্কের আশ্বাস বেরিয়ে আসবে, এমনটাই আশা করছিলেন অনেকে৷

এই বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্র-উত্তর কোরিয়ার মধ্যে কোনো সমঝোতা না হওয়ায় শুধু এশিয়ায় রাজনৈতিক উদ্বেগই বাড়ছে না, আঞ্চলিক বাজারেও পড়ছে তার প্রতিফলন, জানাচ্ছে একাধিক সংবাদসংস্থা৷

এসএস/জেডএইচ (এপি, এএফপি, রয়টার্স)

মঙ্গলবারের ছবিঘরটি দেখুন...

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়