‘টিকা পেতে সেরামকে অগ্রিম ১২ কোটি ডলার দিয়েছে সরকার’ | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 29.01.2021

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

‘টিকা পেতে সেরামকে অগ্রিম ১২ কোটি ডলার দিয়েছে সরকার’

অনুমোদনের পূর্বেই ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটকে ১২ কোটি ডলার দিয়েছে বাংলাদেশে সরকার৷ আর বেক্সিমকো ডিলারশিপ পেতে খরচ করেছে ৮০ লাখ ডলার৷

ডয়চে ভেলের সাপ্তাহিক ইউটিউব টক শো ‘খালেদ মুহিউদ্দিন জানতে চায়'-এ এসব তথ্য দেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান৷ করোনা ভাইরাসের টিকা পাওয়া নিশ্চিত করতেই এমন ‘ঝুঁকি নেওয়া হয়', বলে দাবি করেন তিনি৷

‘‘ভ্যাকসিন অনুমোদনের আগে উৎপাদন সক্ষমতা বাড়াতে সেরাম ইন্সটিটিউটকে অনেকেই অগ্রিম টাকা দিয়েছে৷সে সময় বেক্সিমকো লিমিটেড আট মিলিয়ন ডলার দেয়৷ ভ্যাকসিনের ডিলারশিপ পেতে এ টাকা প্রদান করে প্রতিষ্ঠানটি৷ এ দিকে সরকার প্রথমে ৬ কোটি ও পরে ৬ কোটি মিলিয়ে মোট ১২কোটি ডলার দেয় সেরামকে,’’ বলেন শিল্পগ্রুপ বেক্সিমকো লিমিটেডের কর্ণধার সালমান এফ রহমান৷

সঞ্চালকের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি আরো বলেন, ‘‘ভারত থেকে আমদানি করা এ ভ্যাকসিনের স্বত্ত্ব বাংলাদেশ সরকারের৷’’

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন কবি ও উদ্যোক্তা ফরহাদ মজহার৷

ফরহাদ মজহারের এক প্রশ্নের জবাবে সালমান এফ রহমান বলেন, সরকার ভ্যাকসিনের প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ জনগণকে বিনামূল্যে দেবে৷

তিনি বলেন ‘‘প্রথম ডোজের মতো দ্বিতীয় ডোজও বিনামূল্যে জনগণকে প্রদান করা হবে, যা ইতিমধ্যে সরকারের বিভিন্ন দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে৷''

ফরহাদ মজহার বলেন, বিভিন্ন সময়ে মিউটেট করে কোভিড-১৯ ভাইরাস, যা ইতিমধ্যে মারাত্মক সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে৷ এমন একটি জাতীয় সমস্যাকে মোকাবেলা করতে সমন্বিত চেষ্টা প্রয়োজন বলে মত দেন তিনি৷

আরআর/এসিবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন