জোড়া শতকে ভারতের সংগ্রহ ৩৭০, লড়ছে বাংলাদেশ | খেলাধুলা | DW | 19.02.2011
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

খেলাধুলা

জোড়া শতকে ভারতের সংগ্রহ ৩৭০, লড়ছে বাংলাদেশ

চার উইকিট খুইয়ে ৩৭০ রান৷ তারমধ্যে দু’টি শতক, একটি আবার ১৭৫ রানের৷ ভারতের ক্রিকেট ভক্তদের আনন্দের আর কোন কারণ দরকার নেই৷ অন্যদিকে, বাংলাদেশের ক্রিকেট ভক্তরাও এখন উল্লসিত৷ ব্যাটিংয়ে সমানতালে লড়ছে বাংলাদেশ৷

বাংলাদেশ দলের এক ভক্ত

বাংলাদেশ দলের এক ভক্ত

ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই ভালো করেছে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা৷ উদ্বোধনী জুটিতে ৫৬ রান তোলে স্বাগতিকরা৷ এরপর ইমরুল কায়েস আউট, ৩৮ রান করে মোনাফ পাটেলের বলে বোল্ড হন তিনি৷ বিদায় নিয়েছেন জুনায়ের সিদ্দিকিও৷ বর্তমানে ক্রিজে আছেন সাকিব আল হাসান এবং তামিম ইকবাল৷ ইতিমধ্যে অর্ধশতক সম্পন্ন করেছেন তামিম৷ ২৮ ওভারে বাংলাদেশের সংগ্রহ ১৫৫ রান৷

সকালে টসে জিতে ফিল্ডিং এর সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশের অধিনায়ক সাকিব আল-হাসান৷ ঢাকার মিরপুরে যে মাঠে খেলা হচ্ছে, তাতে এই সিদ্ধান্ত সঠিক মনে করছেন কেউ কেউ৷ কেননা, এই মাঠে দিবারাত্রির ম্যাচে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই জয়ী হয়েছে পরে ব্যাটিং করা দল৷ তবে বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক হাবিবুল বাশার দৈনিক প্রথম আলো জানিয়েছেন, ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত ছিল আত্মঘাতী৷ কেননা, ফেব্রুয়ারি মাসে এই মাঠ দিনে ব্যাটিংয়ের উপযোগী৷

Flash-Galerie Cricket Weltmeisterschaft 2011

শুরুতে ফিল্ডিং নিয়ে বিপাকে পড়ে বাংলাদেশ দল

ম্যাচের শুরুতেই বাংলাদেশকে তুলাধুনা করে বীরেন্দর শেবাগ এবং শচীন টেন্ডুলকার৷ উদ্বোধনী জুটি ৬৯ রান সংগ্রহ করে ১০ ওভারে৷ এরপর ব্যক্তিগত ২৮ রানের মাথায় টেন্ডুলকার রান আউট৷ হাল ধরেন শেবাগ৷ ১৪০ বল খরচ করে রান তোলেন ১৭৫৷ তৃতীয় উইকেট জুটিতে শেবাগ এবং কোহলির সংগ্রহ ২০৩ রান৷ সাতচল্লিশতম ওভারে টাইগারদের অধিনায়ক সাকিব আল-হাসান শেবাগকে বোল্ড করেছেন ঠিকই, কিন্তু ততক্ষণে তিনি তাঁর ম্যাচ সাফল্যের চূঁড়ায় পৌঁছে গেছেন৷ এছাড়া ভারতীয় দলের অপর খেলোয়াড় ভিরাট কোহলি অপরাজিত ছিলেন ১০০ রানে৷ ৮৩ বল খেলে এই রান করেন তিনি, এরমধ্যে চারের মার আছে আটটি, ছয় দু'টি৷

বোলারদের মধ্যে খানিকটা সফলতা দেখিয়েছেন সাকিব আল-হাসান৷ ৬১ রান দিয়ে এক উইকেট সংগ্রহ করেন তিনি৷ এছাড়া মাহমুদুল্লাহ সাত ওভার বল করে ৪৯ রান দিয়েছেন, সংগ্রহ করেছেন একটি উইকেট৷ অপর বোলার শফিকুল ইসলামও পেয়েছেন এক উইকেট৷

প্রতিবেদন: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: জান্নাতুল ফেরদৌস

ইন্টারনেট লিংক

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন