জার্মান ভাষার প্রতি ভালোবাসা | পাঠক ভাবনা | DW | 11.05.2011
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

পাঠক ভাবনা

জার্মান ভাষার প্রতি ভালোবাসা

১০ই মে নন্দন পর্বে বিদেশি সংস্কৃতির প্রতি জার্মানদের আগ্রহ ও অভিবাসীদের জার্মান ভাষার প্রতি ভালোবাসা শুনে ভালো লাগলো৷ খালিদ হাসান, আজমপুর, কুষ্টিয়া৷

default

হেল্থলাইন ফিচার পর্বে এইডস নিয়ে আলোচনা ভীষণ ভালো লাগলো৷ কেনিয়ার অবস্থা সত্যি ভয়াবহ৷ তবে যতোই সচেতনতা বাড়ানো হোক না কেন এইডস রোগীকে মানুষ আজও স্বাভাবিকভাবে গ্রহণ করতে পারছেনা৷ মাঝে মধ্যে কাগজে দেখি, হাসপাতালের ডাক্তাররাই এইডস রোগীকে ছুঁতে ভয় পায়৷ ডাক্তার সিদ্ধার্থ সরকার,গোল্ডেন ডি-এক্স ক্লাব, জিয়াগঞ্জ, মুর্শিদাবাদ৷

সিরিয়া সরকারের সেনাবাহিনী যেভাবে নিরিহ মানুষকে হত্যা করছে তা অমানবিক৷ তারপর শিশুকে গুলি করে মারা হচ্ছে যা আমর মতো মায়েরা মেনে নিতে পারবেনা৷ ১২ বছরের শিশুর কি অপরাধ? আমি কেন গোটা পৃথিবীর মানুষ ধিক্কার জানাবে৷ আমরা চাই সারা পৃথিবীতে শান্তি বিরাজ করুক৷ হিংসা নয়, শান্তি চাই৷ অপর্ণা চ্যাটার্জী,ওমরাহাগঞ্জ, মুর্শিদাবাদ৷

বিশুদ্ধ পানির অপর নাম জীবন, যদি তাতে আর্সেনিক না থাকে৷ পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের বহু মানুষ এই বিষে আক্রান্ত৷ জটিল ও ব্যয়বহুল হওয়ায় আর্সেনিক পরীক্ষাও করাতে পারছেন না অনেকে৷ তবে জার্মান বিজ্ঞানীদের নতুন এক পরীক্ষা আশার আলো নিয়ে এনেছে৷ এই বিষয়ে ‘আর্সেনিক পরীক্ষায় যুগান্তকারী পরিবর্তনের আশায় বিজ্ঞানীরা' শীর্ষক প্রতিবেদন খুবই তথ্যপূর্ণ ছিল, বিষয়টি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারলাম৷

কোকা কোলা কখনো পান করেন নি এমন মানুষ পাওয়া কঠিন একটা কাজই বটে৷ কারণ সারা বিশ্বে প্রতিদিন প্রায় ১৬০ কোটি গ্লাস কোক বিক্রি হয়৷ যদিও শুরুর বছরে যেটা ছিল মাত্র নয় গ্লাস! ‘কোকা কোলার ১২৫ বছর পূর্তি হলো' শীর্ষক প্রতিবেদনের জন্য ধন্যবাদ ৷

বলিভিয়ার দুই মিলিয়ন মানুষ যে কোন মুহূর্তে বিশাল বড়মাপের ভূমিকম্পের শিকার হতে পারে৷ বলছে সাম্প্রতিক এক গবেষণা৷ বড় মাপের ভূমিকম্পের কবলে পড়ার আশঙ্কা বলিভিয়ার এই নতুন তথ্য আমাদের সকলের কাছেই খুব উদ্বেগের৷

ব্রিটিশ পর্বতারোহী কেনটন কুল৷ এর আগে আট বার এভারেস্টে উঠেছেন৷ তবে নবম বারেরটি তাঁর জন্য একটু অন্যরকমই বটে৷ কারণ এবার তিনি সেখান থেকে একটি টুইট বার্তা পাঠিয়েছেন৷ এভারেস্ট থেকে টুইট বার্তা শীর্ষক খবরটি পড়ে বেশ আনন্দ পেলাম৷ এক নতুন ইন্টারনেট যুগ আনতে চায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন৷ চাই তথ্য উপাত্ত বহনকারী পরিকাঠামোর এক দ্রুতগতি নতুন প্রজন্ম৷ আর তাই গবেষণা ও বিনিয়োগের ৬শ মিলিয়ন ইউরোর এক কর্মসূচি ঘোষিত হল৷ সে সমন্ধে বিস্তারিত জানতে পারলাম আপনাদের ওয়েব সাইটের গঠনমূলক প্রতিবেদন থেকে৷ এমন উদ্যোগ সেখানকার নতুন প্রজন্মের কাছে খুবই কাজের হবে বলে মনে করি৷

ডয়চে ভেলের বাছাই করা ২০ টি প্রকল্প অদূর ভবিষ্যতে আমাদের জীবনযাত্রায় উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন আনতে পারে৷ এই ভবিষ্যতমুখী প্রকল্প সমন্ধে একটা ধারণা পেলাম ফিউচার নাউ - ভবিষ্যতমুখী প্রযুক্তির সম্ভার শীর্ষক প্রতিবেদন থেকে, বেশ ভালো লাগল৷

এইডস রোগীদের প্রতি মানুষ এখনো সহানুভূতি প্রবণ নয় - প্রতিবেদনের মাধ্যমে সমাজের বিশেষ একটা দিককে তুলে ধরেছেন৷ এ ক্ষেত্রে সামাজিক সচেতনতা বোধ খুবই জরুরি৷ শুধু শারীরিক সমস্যাই নয় সামাজিকভাবেও এইডস রোগীরা নানা ধরনের বৈষম্যের শিকার হয়৷

জার্মানির পটসডাম শহরের হাসো প্লাটনার ইন্সটিটিউট নতুন একটি বিষয় পড়ানো শুরু করেছে৷ কোর্সের নাম ‘ডিজাইন থিঙ্কিং'৷ বলা হচ্ছে দৈনন্দিন জীবন যাপনকে সহজ করে তুলতে এই বিষয়টি সাহায্য করবে৷ পড়াশোনার ক্ষেত্রে নতুন এই ব্যবস্থা কীভাবে কাজ করবে তা জানতে পারলাম৷

ডয়চে ভেলে কর্তৃপক্ষকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই তথ্যপূর্ণ ও বস্তুনিষ্ঠ প্রতিবেদন উপহার দেবার জন্য৷ ভালো থাকবেন৷ মহ: হাফিজুর রহমান, ইন্টারন্যাশনাল মিতালি লিসনার্স ক্লাব, চুপী, পূর্বস্থলী, বর্ধমান৷

ডয়চে ভেলের ওয়েবসাইটে ‘ভারতে অনার কিলিং' নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করার জন্য অনেক ধন্যবাদ৷ এরকম খবর ভারতীয় সংবাদপত্রে খুব কমই থাকে৷ ভারতের প্রান্তিক গ্রামগঞ্জ থেকে খবর পাওয়া আপনাদের দূর দৃষ্টি প্রমাণ করে৷ পৃথিবীর অন্য কোন ওয়েবসাইটে এরকম খবর থাকেনা৷ এর প্রতিরোধ ব্যবস্থার জন্য কিছু মতামত পেলে বাধিত হবো৷ সুহৃদ ব্যানার্জী, ভারত৷

১৯৯৭ সালের প্যারিসের সুড়ঙ্গে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘনায় নিহত ব্রিটেনের প্রিন্সেস ডায়ানার মৃত্যুর উপর নির্মিত ছবি ‘আনফুল কিলিং' নিয়ে আলোচনা থেকে অনেক অজানা তথ্য জানতে পেরেছি৷ ‘সমাজ জীবন পাতায়' ঢুকে যখন রহস্যময়ী চার চাকার বিয়ার বাইক গাড়িতে ষোলজন আরোহী আর ষোল জন চালক সম্পর্কে পড়ে ঐ গাড়ি দেখার খুব ইচ্ছে জাগলো৷ কি আশ্চর্য নীচেই গাড়িটির একটি ছবি ছিলো৷ খেলাধুলা শিরোনামে পেলাম আরেক মজার খবর বিশ্বের সবচাইতে জনপ্রিয় খেলা ফুটবলের নিয়ন্ত্রক ফিফার কর্মকর্তাও নাকি ঘুষ খায়৷ কবে যে বিজ্ঞানীরা ঘুষ নিবারক যন্ত্র আবিষ্কার করবে? চলতি ঘটনায় দেখতে পেলাম লাদেনের চতুর্থ সন্তান ওমর বিন লাদেন বলেছেন, তার বাবাকে কেন জীবিত অবস্থায় আটক করা হলো না? আমাদের ঐ একই প্রশ্ন লাদেন তো তখন নিরস্ত্র ছিলো৷ তাঁকে কেন জীবিত অবস্থায় আটক করা হল না? মোঃ রাসেল শিকদার. জ্ঞান বিকাশ কেন্দ্র রেড়িও ক্লাব, শ্রীনাথদী, কেন্দুয়া, মাদারীপুর৷

সংকলন: নুরুননাহার সাত্তার

সম্পাদনা: আবদুল্লাহ আল-ফারূক