জার্মানি, যুক্তরাষ্ট্র সন্ত্রাসবাদ সংক্রান্ত তথ্যের আদানপ্রদানে আগ্রহী | বিশ্ব | DW | 18.05.2016
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

জার্মানি, যুক্তরাষ্ট্র সন্ত্রাসবাদ সংক্রান্ত তথ্যের আদানপ্রদানে আগ্রহী

জার্মান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী টোমাস ডেমেজিয়ের তাঁর চলতি ওয়াশিংটন সফরে মার্কিন হোমল্যান্ড সিকিউরিটি মন্ত্রী জে জনসনের সঙ্গে নিরাপত্তা সহযোগিতা নিয়ে আলাপ-আলোচনা করেছেন৷

দুই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আলাপের মূল সুর ছিল, ইসলামপন্থি সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সংগ্রামে দু'টি দেশের মধ্যে সহযোগিতা আরো জোরদার করা প্রয়োজন৷ মঙ্গলবার তাঁদের আলাপ-আলোচনার পর ডেমেজিয়ের সংশ্লিষ্ট সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন যে, উভয় দেশ আরো বেশি তথ্যের আদানপ্রদান করতে চায়; ইসলামপন্থি উগ্রবাদীদের অনলাইন প্রোপাগান্ডা প্রতিরোধ করতে চায়, ও উদ্বাস্তুদের মধ্যে যারা ‘‘বিপজ্জনক'' হয়ে উঠতে পারে, অর্থাৎ সন্ত্রাসী আক্রমণ চালাতে পারে, তাদের সম্বন্ধে খবরাখবর আদানপ্রদান করতে চায়৷

‘‘সন্ত্রাসবাদ আমাদের সকলের পক্ষেই একটা বিপদ৷ কাজেই আমাদের যা করতে হবে....তা হলো শক্ত থাকা আর আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সহযোগিতা করা'', বলেছেন ডেমেজিয়ার৷ গত মার্চে ব্রাসেলস, ও তার আগের নভেম্বরে প্যারিস সন্ত্রাসের পর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইউরোপীয় সহযোগীদের সঙ্গে তথ্যের আদানপ্রদান আরো জোরদার করার দাবি জানিয়ে আসছিল৷ কাজেই জনসন ইউরোপীয় দেশগুলির ‘‘বর্ধিত অঙ্গীকারকে'' স্বাগত জানিয়েছেন৷

উভয় পক্ষই যে এই সহযোগিতা থেকে উপকৃত হবে, তা-তে কোনো সন্দেহ নেই৷ জার্মানি যে অন্তত জনা চল্লিশেক উদ্বাস্তুর সন্ত্রাসবাদীদের সঙ্গে যোগাযোগের অভিযোগ অনুসন্ধান করে দেখছে, তা নিয়ে টুইটার সরগরম৷

মার্কিন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ইউরোপীয় ইউনিয়নের একটি সাম্প্রতিক নির্দেশের উল্লেখ করেছেন, যা অনুযায়ী সমগ্র ইইউ জুড়ে বিমানযাত্রী সংক্রান্ত তথ্যের ‘‘সমন্বয়'' করা হবে৷ সমস্যাটা নিয়ে হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বিভাগের মাথাব্যথাও কম নয়, এই টুইট যার প্রমাণ: শিকাগো বিমানবন্দরে সিকিউরিটি চেকের লাইন ১ ঘণ্টা ৪৫ মিনিটে দাঁড়ানো নিয়ে টুইট৷

আজ বুধবার ডেমেজিয়ার মার্কিন আইনমন্ত্রী লোরেটা লিঞ্চ-এর সঙ্গে মিলিত হবেন ও দৃশ্যত তথ্যের আদানপ্রদানের ব্যাপারে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করবেন৷

এসি/ডিজি (ডিপিএ, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন