জার্মানি, গ্রিস, স্পেনে তাপপ্রবাহ, দাবানল | বিশ্ব | DW | 20.06.2022

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

জার্মানি, গ্রিস, স্পেনে তাপপ্রবাহ, দাবানল

ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশে এখন তাপপ্রবাহ চলছে। শুরু হয়েছে দাবানলের প্রকোপ। গ্রিসে দাবানলের অবস্থা বেশ খারাপ।

জার্মানিতে দাবানল নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চলছে।

জার্মানিতে দাবানল নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চলছে।

গরমের শুরুতেই তাপমাত্রা বাড়ছে চড়চড় করে। জার্মানির পূবদিকের এলাকাগুলিতে তাপমাত্রা পৌঁছেছে ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। সেখানে শুরু হয়েছে দাবানলের তাণ্ডব।

দাবানলের জন্য ২০টি গ্রামের বাসিন্দাকে এলাকা ছেড়ে চলে যেতে বলা হয়েছে। কারণ, শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া দাবানল ক্রমশ তাদের গ্রামের কাছে এসে পড়েছে। কিছু গ্রামের বাসিন্দাকে কয়েক ঘণ্টার নোটিসে বাড়ি ছাড়তে বলা হয়েছে।

আগুন নেভানোর জন্য সামরিক হেলিকপ্টার ব্যবহার করা হচ্ছে। গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। কারণ, আগুন তার একেবারে পাশে এসে গেছে। প্রচণ্ড গরম ও বৃষ্টি কম হওয়ায় সাম্প্রতিক সময়ে জার্মানিতে দাবানল ছড়িয়েছে।

গ্রিসের অবস্থা খারাপ

গ্রিসের দ্বিতীয় বৃহত্তম দ্বীপে রোববারও দাবানল দাউদাউ করে জ্বলছে। কর্তৃপক্ষ নির্দেশ দিয়েছে, বাড়ির ৮০০ মিটারের মধ্যে আগুন এলে সঙ্গে সঙ্গে বাড়ি ছেড়ে চলে যেতে হবে।

গ্রিসে দাবানলের মোকাবিলায় বিমান ব্যবহার করা হচ্ছে।

গ্রিসে দাবানলের মোকাবিলায় বিমান ব্যবহার করা হচ্ছে।

দাবানলের মোকাবিলা করছে ৭০টি দমকল, নয়টি বিমান ও চারটি হেলিকপ্টার। গত গ্রীষ্মেও এখানে আগুন লেগে এক তৃতীয়াংশ বনভূমি পুড়ে গেছিল।

স্পেনের অবস্থা

স্পেনের বেশ কিছু এলাকায় তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি ছাড়িয়েছে। সাধারণত অগাস্টে এই তাপমাত্রা থাকে। তার উপর বৃষ্টি খুব কম হচ্ছে। এখানেও শুরু হয়েছে দাবানলের তাণ্ডব।

৬৫০ জন কর্মী আগুনের মোকাবিলা করছেন। তারা আগুনকে বেশি ছড়াতে দেননি।

বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, জলবায়ুর পরিবর্তনের জন্যই এই অবস্থা। জেনিভার বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থার মুখপাত্র নুলিস বলেছেন, ''আজ যা দেখা যাচ্ছে, সেটা দেখে ভবিষ্যতে কী ঘটতে চলেছে, তা অনুমান করা যায়। গরমের মাসগুলিতে তাপমাত্রা আরো বাড়বে। শিল্পায়নের আগে যে তাপমাত্রা ছিল, তার থেকে তাপমাত্রা দুই ডিগ্রি সেলসিয়াস বাড়বে।''

জিএইত/এসজি (এপি, এএফপি, রয়টার্স)