জার্মানির ছোট শহর চিকিৎসা প্রযুক্তির প্রাণকেন্দ্র হয়ে উঠেছে | অন্বেষণ | DW | 27.09.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

অন্বেষণ

জার্মানির ছোট শহর চিকিৎসা প্রযুক্তির প্রাণকেন্দ্র হয়ে উঠেছে

জার্মানির দক্ষিণে ছোট একটি শহরে চিকিৎসা প্রযুক্তি কোম্পানিগুলি সেই সুনামের দৃষ্টান্ত৷ তবে উৎপাদন প্রক্রিয়ার অংশবিশেষ পাকিস্তানের মতো দেশেও সরিয়ে ফেলা হচ্ছে৷

Polen Pommersche Medizinische Universität Stettin

প্রতীকী ছবি

জার্মানির দক্ষিণে ছোট এক শহর টুটলিঙেন৷ জনসংখ্যা মাত্র ৩৫,০০০৷ কিন্তু সেখানে তিনশরও বেশি চিকিৎসা প্রযুক্তি কোম্পানি গড়ে উঠেছে৷ প্রায় সব পরিবারের কেউ না কেউ এই ক্ষেত্রে কাজ করে৷ মেডিক্যাল মাউন্টেন্স কোম্পানির কর্ণধার ইভন গ্লিনকে বলেন, ‘‘আমাদের শীতকাল সত্যি দীর্ঘ, রাতও দীর্ঘ৷ অনেক সময় জুড়ে অন্ধকার থাকে৷ সময়টা সৃজনশীল ভাবে কাটানোর তাগিদ মানুষের রয়েছে৷ এভাবেই এখানে একটা ক্লাস্টার তৈরি হয়েছে৷ মানুষ এখানে খুশিমনে নানা পরীক্ষানিরীক্ষা করে, পণ্যের উন্নতি ঘটায়৷ ফলে সার্বিক উন্নতি ঘটেছে৷''

পাইয়ুংক নামের কোম্পানিও সেই ঐতিহ্য অনুযায়ী গড়ে উঠেছে৷ ৬০ বছর আগে কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা তার ভাইয়ের সঙ্গে গ্যারেজে নানা কেরামতি করতেন৷ আজ তার কোম্পানিতে প্রায় ৪০০ মানুষ কাজ করেন৷

সেখানে মূলত ক্যানুলাস ও ক্যাথিটার সিস্টেম তৈরি হয়৷ অত্যন্ত দক্ষ কর্মী ছাড়া সেই কাজ সম্ভব নয়৷ সে কারণেও উৎপাদন বিদেশে সরিয়ে নিয়ে যাবার প্রশ্নও ওঠে না৷ পাইয়ুংক কোম্পানির কর্ণধার সিমোনে পাইয়ুংক শেলিং বলেন, ‘‘কোম্পানির ইতিহাসে একাধিকবার এমন ভাবনাচিন্তা করা হয়েছে বটে, কিন্তু আমরা বুঝতে পেরেছি যে বিশেষ অবস্থানের কারণে কোম্পানির এমন গভীর জ্ঞান ও দক্ষতার প্রয়োজন, যার ফলে সব পর্যায়ের মধ্যে আভ্যন্তরীণ সমন্বয় অত্যন্ত জরুরি৷''

এই কোম্পানি সেই পথে না গেলেও অন্যরা পাকিস্তানে সস্তায় যন্ত্রাংশ তৈরি করাচ্ছে৷ অর্থাৎ ‘মেড ইন জার্মানি' তকমা থাকলেও সবকিছুই জার্মানিতে তৈরি, এমনটা নয়৷ অন্যদিকে পাকিস্তানিরা ‘মেড ইন পাকিস্তান' লেবেলের স্বীকৃতি পায় না৷ ট্রাইমেড কোম্পানির কর্ণধার গোহার ইকবাল বলেন, ‘‘ইউরোপ ও অ্যামেরিকায় আমরা সবচেয়ে বেশি রপ্তানি করি৷ আমরা কখনো ভেন্ডার বা বিক্রেতা, কখনো এই অঞ্চলের বড় কোম্পানি বা গ্রুপের জন্য অরিজিনাল ইকুইপমেন্ট ম্যানুফ্যাকচারার হিসেবে কাজ করি৷ তাই নিজেদের লেবেল ব্যবহার করতে পারি না৷''

ভিডিও দেখুন 04:31

চিকিৎসা প্রযুক্তির প্রাণকেন্দ্র ছোট এক শহর

পাকিস্তানের শিয়ালকোট শহরের অন্যতম পুরানো কোম্পানি ট্রাইমেড৷ পারিবারিক ব্যবসা হিসেবে যাত্রা শুরু করে এখন সেখানে দুইশরও বেশি কর্মী কর্মরত৷ কোম্পানি আরও বড় হচ্ছে৷ পাকিস্তানের এই কোম্পানির জন্য জার্মানি অন্যতম প্রধান সহযোগী৷ সেখানেই সবচেয়ে বেশি রপ্তানি হয়৷

এশিয়ায় মজুরি ও বেতন কম হওয়ায় এস্কুলাপ নামের অন্যতম বিশাল কোম্পানিও সেই সুযোগের সদ্ব্যবহার করছে৷ গোটা বিশ্বে ১৮টি জায়াগায় কোম্পানির উৎপাদন কেন্দ্র রয়েছে৷ এশিয়া মহাদেশে ভারত, চীন ও মালয়েশিয়াও সেগুলির অন্যতম৷

টুটলিঙেন শহরে অ্যানোরিজম ক্লিপের মতো জটিল পণ্য উৎপাদন করা হয়৷ অত্যন্ত সূক্ষ্ম ও ভঙ্গুর এই পণ্য বিশেষ প্রক্রিয়ায় বাঁকাতে হয়৷ গোটা বিশ্বে জটিল অপারেশনের সময় এই ক্লিপের ব্যবহার বেড়ে চলেছে৷ অনেক দশক ধরে অর্জিত জ্ঞানের ভিত্তিতে জটিল এই পণ্য তৈরি করা হয়৷ তবে প্রতিযোগিতার বাজারে টিকতে হলে শুধু এমন দক্ষতাই যথেষ্ট নয়৷ এস্কুলাপ কোম্পানির বোর্ডের সদস্য কাটরিন স্ট্যার্নব্যার্গ মনে করেন, ‘‘জার্মানিতে আমাদের এই যোগ্যতা ধরে রাখতে হবে, উদ্ভাবন করতে হবে এবং সেই উদ্ভাবনকে সরাসরি উৎপাদন প্রক্রিয়ার রূপান্তর করার ক্ষমতাও থাকতে হবে৷ সে কারণে জার্মানিতে আমাদের কেন্দ্রগুলিতে অবশ্যই সেই দক্ষতার প্রয়োজন রয়েছে৷ সেই সম্ভাবনা বাড়াতে সম্মিলিতভাবে সামনের দিকে এগিয়ে চলতে হবে৷''

গোটা বিশ্বে চিকিৎসা প্রযুক্তির বাজার বেড়ে চলায় এই ক্ষেত্রে সম্ভাবনা অত্যন্ত উজ্জ্বল৷ তবে জার্মানি হোক বা পাকিস্তান, একটি বড় সমস্যা সব জায়গায়ই আছে৷ পাইয়ুংক কোম্পানির কর্ণধার সিমোনে পাইয়ুংক শেলিং বলেন, ‘‘দক্ষ কর্মী ও তরুণ ইঞ্জিনিয়ারদের আকর্ষণ করাই সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ৷ আমাদের এই অঞ্চলে স্কুলসহ নানা সুবিধা আছে বটে, কিন্তু প্রতিযোগিতা খুব কঠিন৷ অন্য কোম্পানিগুলির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে আমাদের কর্মী আকর্ষণ করতে হয়৷''

ভালো প্রশিক্ষণ কাঠামোর জন্যও জার্মানি পাকিস্তানের মতো দেশের জন্য আকর্ষণীয়৷ পাইয়ুংক কোম্পানি এখনো গোটা উৎপাদন প্রক্রিয়া টুটলিঙেনেই রাখতে পেরেছে৷ ফলে ভবিষ্যতেও সম্ভাবনা কম নয়৷ জার্মানিও সার্বিক প্রবণতা থেকে বিচ্ছিন্ন নয়৷ সেখানেও অটোমেশন প্রক্রিয়া চলছে বা উৎপাদন প্রক্রিয়ার অংশবিশেষ আউটসোর্সিং করা হচ্ছে৷ এমন কাঁচির মতো বড় আকারে তৈরি পণ্য পাকিস্তানের ট্রাইমেড তৈরি করছে বটে, কিন্তু শেষ পর্যন্ত ‘মেড ইন জার্মানি' লেবেলের মধ্যেই সেটির স্থান হচ্ছে৷

হাইনরিশমান/মেহদি/এসবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

সংশ্লিষ্ট বিষয়